নিউইয়র্ক ১১:১৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

বাংলাদেশসহ ৪২টি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূতদের অংশগ্রহণ

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৬:১৫:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুন ২০১৫
  • / ৭৩৪ বার পঠিত

ওয়াশিংটন ডিসি: ঐতিহ্য ও পরম্পরা বজায় রেখে বাংলাদেশসহ মুসলিম দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে হোয়াইট হাউজে ইফতারের আয়োজন করলেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা৷ ইফতারে আমন্ত্রণ জানানো হয় বাংলাদেশ-পাকিস্তানসহ মুসলিম দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের। সোমবার (২২ জুন) হোয়াইট হাউজের ‘এক্সিকিউটিভ ম্যানশনের’ সবচেয়ে বড় ঘর ‘ইস্ট রুমে’ আয়োজিত ইফতারে উপস্থিত ছিলেন অন্তত দেড়শ অতিথি। ইফতারের আগে ওবামা বলেন, ‘রমজান মাসে মুসলিমরা তাদের ধর্মীয় চেতনার প্রতি আস্থাবোধকে উজ্জীবিত করেন। আমাদের ধর্মীয় বিশ্বাস যাই হোক, আমরা যে একই পরিবারের সদস্য ও প্রতিটি মানুষ যে সমান, সেই চেতনার প্রতি অবিচল আস্থা রাখি।’
প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন, আমরা এখনও চালর্সটনে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি এবং তাদের আত্মার শান্তি কামনা করছি। আমরা বলতে চাই, ধর্ম-বর্ণ-জাতি-গোষ্ঠীর ভিন্নতার কারণে কেউ যেন হত্যার শিকার না হয়। ঐক্যবদ্ধভাবে উগ্রপন্থী এবং অন্যায়-অবিচারকে রোধ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন প্রেসিডেন্ট।
P Obama Ifter_2ইফতারে অংশ নেন ইন্ডিয়ানা, ইলিনয় ও মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের তিন কংগ্রেস সদস্য আন্দ্রে কারসন, রিচার্ড ডারবিন ও কিথ এলিসন। ওয়াশিংটনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিনসহ ৪২টি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূতরা এতে অংশ নেন। অতিথি রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করে প্রত্যেকের দেশের খবর জানতে চান ওবামা।
এর পর ইফতারে আসা অতিথি রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। উল্লেখ্য, হোয়াইট হাউজে ইফতার শুরু করেছিলেন প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন৷-ওয়েবসাইট।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

বাংলাদেশসহ ৪২টি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূতদের অংশগ্রহণ

প্রকাশের সময় : ০৬:১৫:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুন ২০১৫

ওয়াশিংটন ডিসি: ঐতিহ্য ও পরম্পরা বজায় রেখে বাংলাদেশসহ মুসলিম দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে হোয়াইট হাউজে ইফতারের আয়োজন করলেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা৷ ইফতারে আমন্ত্রণ জানানো হয় বাংলাদেশ-পাকিস্তানসহ মুসলিম দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের। সোমবার (২২ জুন) হোয়াইট হাউজের ‘এক্সিকিউটিভ ম্যানশনের’ সবচেয়ে বড় ঘর ‘ইস্ট রুমে’ আয়োজিত ইফতারে উপস্থিত ছিলেন অন্তত দেড়শ অতিথি। ইফতারের আগে ওবামা বলেন, ‘রমজান মাসে মুসলিমরা তাদের ধর্মীয় চেতনার প্রতি আস্থাবোধকে উজ্জীবিত করেন। আমাদের ধর্মীয় বিশ্বাস যাই হোক, আমরা যে একই পরিবারের সদস্য ও প্রতিটি মানুষ যে সমান, সেই চেতনার প্রতি অবিচল আস্থা রাখি।’
প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন, আমরা এখনও চালর্সটনে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি এবং তাদের আত্মার শান্তি কামনা করছি। আমরা বলতে চাই, ধর্ম-বর্ণ-জাতি-গোষ্ঠীর ভিন্নতার কারণে কেউ যেন হত্যার শিকার না হয়। ঐক্যবদ্ধভাবে উগ্রপন্থী এবং অন্যায়-অবিচারকে রোধ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন প্রেসিডেন্ট।
P Obama Ifter_2ইফতারে অংশ নেন ইন্ডিয়ানা, ইলিনয় ও মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের তিন কংগ্রেস সদস্য আন্দ্রে কারসন, রিচার্ড ডারবিন ও কিথ এলিসন। ওয়াশিংটনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিনসহ ৪২টি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূতরা এতে অংশ নেন। অতিথি রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করে প্রত্যেকের দেশের খবর জানতে চান ওবামা।
এর পর ইফতারে আসা অতিথি রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। উল্লেখ্য, হোয়াইট হাউজে ইফতার শুরু করেছিলেন প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন৷-ওয়েবসাইট।