নিউইয়র্ক ০৯:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834
যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের ঐতিহাসিক ছয় দফা দিবস পালন

নিউইয়র্কে বাংলাদেশ প্যারেড নামে নাটক করে বঙ্গবন্ধুকে খাটো করা হয়েছে : ড. সিদ্দিক

হককথা ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : ১১:৫২:৪৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
  • / ৭০ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: ঐতিহাসিক ৭ জুন উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত সভায় বক্তব্য রাখছেন ড. সিদ্দিকুর রহমান

৭ জুন ছিলো ঐতিহাসিক ছয় দফা দিবস। ‘জাতির পিতা’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষিত ‘বাঙালী জাতির মুক্তির সনদ ছয় দফা’ দাবির পক্ষে দেশব্যাপী তীব্র গণআন্দোলন সূচনার দিন। ১৯৬৬ সালের ৭ জুন বাঙালীর স্বাধিকার আন্দোলন স্পষ্টত নতুন পর্যায়ে উন্নীত হয়। এর মধ্য দিয়ে রচিত হয় স্বাধীনতার রূপরেখা। ছয় দফাভিত্তিক আন্দোলন-সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় বাঙালীর স্বাধিকার আন্দোলন স্বাধীনতা সংগ্রামে রূপ নেয়।

গত ৭ জুন শুক্রবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে নবান্ন পার্টি হলে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল হামিদের যৌথভাবে সভাপি পরিচালনা করেন। সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত, এক মিনিট নীরবতা পালন ও জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়।

সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান তার স্বাগত বক্তব্য বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৬৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারী তাসখন্দ চুক্তিকে কেন্দ্র করে লাহোরে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের সাবজেক্ট কমিটিতে ছয় দফা উত্থাপন করেন এবং পরের দিন সম্মেলনের আলোচ্যসূচিতে ছয় দফাকে স্থান দিতে সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেন। সম্মেলনে বঙ্গবন্ধুর অনুরোধ উপেক্ষা করে ছয় দফার প্রতি আয়োজক পক্ষ গুরুত্ব না দিয়ে তা প্রত্যাখ্যান করে। এর প্রতিবাদে বঙ্গবন্ধু ওই সম্মেলনে আর যোগ দেননি। তবে লাহোরে অবস্থানকালেই ছয় দফা উত্থাপন করেন তিনি। এর মধ্য দিয়ে পশ্চিম পাকিস্তানের খবরের কাগজে বঙ্গবন্ধুকে বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা আখ্যা দিয়ে সংবাদ ছাপানো হয়। পরে বঙ্গবন্ধু ঢাকায় ফিরে ১৩ মার্চ ছয় দফা এবং দলের অন্যান্য বিস্তারিত কর্মসূচি দলের কার্যনির্বাহী সংসদে পাস করিয়ে নেন।

ড. সিদ্দিক বলেন, ছয় দফা দাবী আদায়ের লক্ষ্যে শুরু হয় আওয়ামী লীগের আন্দোলন। হরতালও ডাকা হয়। হরতাল চলাকালে নিরস্ত্র জনতার ওপর পুলিশ ও তৎকালীন ইপিআর গুলিবর্ষণ করে। এতে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে মনু মিয়া, সফিক ও শামসুল হকসহ ১১ জন শহীদ হন। তিনি বলেন, নিউইয়র্কে বাংলাদেশ প্যারেড নামে নাটক করে বঙ্গবন্ধুকে খাটো করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর পাশে খুনি জিয়াউর রহমানের ছবি টাঙ্গানো হয়েছে এ ধরনের নেক্কারজনক ঘটনার আমরা তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ সভাপতি ডা. মাসুদুল হাসান ও সামসুদ্দীন আজাদ, নিউইয়র্ক মহাননগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দুরুদ মিয়া রলেন ও তারিকুল হায়দার চৌধুরী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল হামিদ, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আশরাফ উদ্দীন, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক নাফিকুর রহমান তুরান, উপ দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মালেক, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরি সদস্য সাহানারা রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধো সিরাজ উদ্দীন সরকার, আবুল কাসেম, বুদরুজ্জামান পান্না, সাইফুল আলম, এবাদুল হক, শাহ আল শফি আনসারী, মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মাসুদ হোসেন সিরাজী, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী খান লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক গনেশ কীর্তনিয়া, যুবলীগ নেতা সেবুল মিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ নেতা রায়হান মাহমুদ প্রমুখ। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের ঐতিহাসিক ছয় দফা দিবস পালন

নিউইয়র্কে বাংলাদেশ প্যারেড নামে নাটক করে বঙ্গবন্ধুকে খাটো করা হয়েছে : ড. সিদ্দিক

প্রকাশের সময় : ১১:৫২:৪৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪

৭ জুন ছিলো ঐতিহাসিক ছয় দফা দিবস। ‘জাতির পিতা’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষিত ‘বাঙালী জাতির মুক্তির সনদ ছয় দফা’ দাবির পক্ষে দেশব্যাপী তীব্র গণআন্দোলন সূচনার দিন। ১৯৬৬ সালের ৭ জুন বাঙালীর স্বাধিকার আন্দোলন স্পষ্টত নতুন পর্যায়ে উন্নীত হয়। এর মধ্য দিয়ে রচিত হয় স্বাধীনতার রূপরেখা। ছয় দফাভিত্তিক আন্দোলন-সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় বাঙালীর স্বাধিকার আন্দোলন স্বাধীনতা সংগ্রামে রূপ নেয়।

গত ৭ জুন শুক্রবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে নবান্ন পার্টি হলে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল হামিদের যৌথভাবে সভাপি পরিচালনা করেন। সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত, এক মিনিট নীরবতা পালন ও জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়।

সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান তার স্বাগত বক্তব্য বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৬৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারী তাসখন্দ চুক্তিকে কেন্দ্র করে লাহোরে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের সাবজেক্ট কমিটিতে ছয় দফা উত্থাপন করেন এবং পরের দিন সম্মেলনের আলোচ্যসূচিতে ছয় দফাকে স্থান দিতে সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেন। সম্মেলনে বঙ্গবন্ধুর অনুরোধ উপেক্ষা করে ছয় দফার প্রতি আয়োজক পক্ষ গুরুত্ব না দিয়ে তা প্রত্যাখ্যান করে। এর প্রতিবাদে বঙ্গবন্ধু ওই সম্মেলনে আর যোগ দেননি। তবে লাহোরে অবস্থানকালেই ছয় দফা উত্থাপন করেন তিনি। এর মধ্য দিয়ে পশ্চিম পাকিস্তানের খবরের কাগজে বঙ্গবন্ধুকে বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা আখ্যা দিয়ে সংবাদ ছাপানো হয়। পরে বঙ্গবন্ধু ঢাকায় ফিরে ১৩ মার্চ ছয় দফা এবং দলের অন্যান্য বিস্তারিত কর্মসূচি দলের কার্যনির্বাহী সংসদে পাস করিয়ে নেন।

ড. সিদ্দিক বলেন, ছয় দফা দাবী আদায়ের লক্ষ্যে শুরু হয় আওয়ামী লীগের আন্দোলন। হরতালও ডাকা হয়। হরতাল চলাকালে নিরস্ত্র জনতার ওপর পুলিশ ও তৎকালীন ইপিআর গুলিবর্ষণ করে। এতে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে মনু মিয়া, সফিক ও শামসুল হকসহ ১১ জন শহীদ হন। তিনি বলেন, নিউইয়র্কে বাংলাদেশ প্যারেড নামে নাটক করে বঙ্গবন্ধুকে খাটো করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর পাশে খুনি জিয়াউর রহমানের ছবি টাঙ্গানো হয়েছে এ ধরনের নেক্কারজনক ঘটনার আমরা তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ সভাপতি ডা. মাসুদুল হাসান ও সামসুদ্দীন আজাদ, নিউইয়র্ক মহাননগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দুরুদ মিয়া রলেন ও তারিকুল হায়দার চৌধুরী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল হামিদ, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আশরাফ উদ্দীন, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক নাফিকুর রহমান তুরান, উপ দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মালেক, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরি সদস্য সাহানারা রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধো সিরাজ উদ্দীন সরকার, আবুল কাসেম, বুদরুজ্জামান পান্না, সাইফুল আলম, এবাদুল হক, শাহ আল শফি আনসারী, মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মাসুদ হোসেন সিরাজী, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী খান লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক গনেশ কীর্তনিয়া, যুবলীগ নেতা সেবুল মিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ নেতা রায়হান মাহমুদ প্রমুখ। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।