নিউইয়র্ক ১১:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

‘মরহুম মন্ত্রী মহসিন আলীর যোগ্য উত্তরসূরী ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী’

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৫:৫৪:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৫
  • / ১৪৪১ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: সম্প্রতি প্রয়াত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলীর যোগ্য উত্তরসূরী হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট রাজনীতিক, সমাজসেবী এবং এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীকে জাতীয় সংসদের মৌলভীবাজার-৩ (রাজনগর-মৌলভীবাজার) আসনের উপ-নির্বাচনে নিউইয়র্কের সর্বস্তরের প্রবাসী প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন। ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী সমর্থক গোষ্ঠীর উদ্যোগে নিউইয়র্কে আয়োজিত এক সভায় বক্তারা মরহুম সৈয়দ মহসীন আলীর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, একজন যোগ্য জনপ্রতিনিধি আর সমাজসেবী হিসেবে তার (মহসীন আলী) যেমন গুণ ছিলো, তেমনী গুণের অধিকারী ফরাসত আলীও। মৌলভীবাজারবাসী তথা দেশের কল্যাণে মহসীন আলী যেমন দিয়ে যাওয়ার রাজনীতি করেছেন, তেমনী রাজনীতির অধিকারী ফরাসত আলী। তাই সকল দিক বিবেচনা করলে ফরাসত আলীই পারেন মরহুম মন্ত্রীর শূন্য স্থান পূরণ করতে। বক্তারা বলেন, শুধু মৌলভীবাজারবাসীই নন, নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্রের মতো যুক্তরাজ্যের প্রবাসীরাও ফরাসত আলীকে মৌলভীবাজার-৩ আসন থেকে জাতীয় সংসদে দেখতে চান। তিনি প্রবাসীদের পক্ষ থেকে একমাত্র প্রার্থী। সরকার তাকে সম্মানিত করলে এলাকাবাসীদের যেমন আশা পূরণ হবে, তেমনী প্রবাসীরাও সম্মানিত হবেন।
Farasot Ali-1সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ জুইস সেন্টারে গত ১৯ অক্টোবর সোমবার সন্ধ্যায় এই সভার আয়োজন করা হয়। সভায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি ও জাসদ-এর শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ বৃহত্তর সিলেটের বিভিন্ন সামাজিক ও আঞ্চলিক সংগঠন এবং কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ ছাড়াও দল-মত নির্বিশেষে সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলী এমপি’র ইন্তেকালে মৌলভীবাজার-৩ আসন শূন্য হয়।
Farasot Ali-3মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, প্রবীণ প্রবাসী গজনফর আলী চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠিত সভায় ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীর উপস্থিতিতে সভায় উল্লেখযোগ্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সভার বিশেষ অতিথি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, উপদেষ্টা ডা. মাসুদুল হাসান, মূলধারার রাজনীতিক মোর্শেদ আলম, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি যথাক্রমে আকতার হোসেন, সৈয়দ বসারত আলী ও লুৎফুল কবীর, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সৈয়দ সিদ্দিকুল হাসান, বাংলাদেশ সোসাইটি ইন্ক নিউইয়র্কের সাবেক সভাপতি কামাল আহমেদ ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা রানা ফেরদৌস চৌধুরী, জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা’র সভাপতি বদরুল খান, মৌলভীবাজার জেলা সমিতি ইউএসএ’র প্রতিষ্ঠিাতা সভাপতি আব্দুল মালেক সিপিএ ও বর্তমান সভাপতি আজমল হোসেন খান, নিউইয়র্ক সিটি আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নূরুজ্জামান চৌধুরী শাহী, হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক নুবেন্দু দত্ত ও যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী চান্দু।
সভার শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে পাঠ করেন হাফেজ জামসেদ হোসাইন। এছাড়া গীতা থেকে পাঠ করেন ডা. টমাস দুলু রায় এবং বাইবেল থেকে পাঠ করেন অধ্যাপক নুবেন্দু দত্ত।
Poster-1সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সাপ্তাহিক ঠিকানা’র প্রধান সম্পাদক মুহাম্মদ ফজলুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আব্দুল বাসিত, গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সহকারী এটর্নী জেনারেল আব্দুর রকিব মন্টু, সাংবাদিক দাউদ ভূইয়া, যুক্তরাষ্ট্র জাসদ-এর সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম জিকু, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, জনসংযোগ সম্পাদক ও সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কাজী কয়েস, বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক নিউইয়র্কের সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দিন আহমেদ সোহাগ, বৃহত্তর সিলেট গণদাবী পরিষদের সভাপতি সালেহ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুস শহীদ দুদু, বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচন কমিশনার আজমল আলী, মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিনহাজ আহমেদ সাম্মু, প্রবাসী রাজনগরবাসী আব্দুল বারী খান, বাংলাদেশ আমেরিকান ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক সোসাইটির সভাপতি আব্দুস শহীদ, ব্রঙ্কস-এর কমিউনিটি বোর্ড-৯ এর চেয়ার ও বাংলাদেশ আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিলের সভাপতি এডভোকেট এন মজুমদার, মদিনা মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি এডভোকেট নাসির উদ্দিন, বাংলা বাজার জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আলহাজ গিয়াস উদ্দিন, ওয়েস্ট ব্রঙ্কস জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফয়েজ আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহীম বাদশা, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল, গোপালগঞ্জ সোসাইটি ইউএসএ’র সভাপতি জাকির হোসাইন হিরু ভূইয়া, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের সদস্য শাহানারা রহমান, ঢাকা দক্ষিণ কলেজের সাবেক ভিপি ও নিউজার্সী ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শফিক উদ্দিন, সিলেট এমসি কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি সুফিয়ান খান, কংগ্রেস অব বাংলাদেশ ইউএসএ’র সাধারণ সম্পাদক ও কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার মঞ্জুর চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি দরুদ মিয়া রনেল ও সাধারণ সম্পাদক শেখ আতিকুল ইসলাম, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি আব্দুল গাফফার চৌধুরী ও রেজাউল ইসলাম সেলিম, ফেঞ্চুগঞ্জ আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও ইসলামিক হাফেজিয়া মাদ্রাসার চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান বাঙালী, বিশ্ববনাথ সমিতি ইউএসএ’র সাবেক সভাপতি আলমাস আলী, ব্রঙ্কস বাংলা স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ নূরুল আহহিয়া, মৌলভীবাজার সরকারী কলেজের সাবেক জিএস সৈয়দ জুয়েল, মৌলভীবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি লায়েক তরফদার, রাজনগর উন্নয়ন পরিষদের সিনিয়র সহ সভাপতি মাসুক মিয়া, কমিউনিটি নেতা হেলাল তরফদার, যুক্তরাষ্ট্র কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্কাস আলী, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রব খান জামাল, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন ও সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নেতা এম আলম বিপ্লব, শাহ রকিব আলী প্রমুখ।
Farasot Ali-4সন্ধ্যার পর শুরু হওয়া সভার কার্যক্রম চলে রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত। সভা পরিচালনা করেন বাঙালীর চেতনা মঞ্চের প্রতিষ্ঠাতা হারুন আলী। সভায় জ্যাকসন হাইটস ছাড়াও নিউইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কস, জ্যামাইকা, ব্রুকলীন, এস্টোরিয়া, ওজনপার্ক এলাকার বিপুল সংখ্যক প্রবাসীর সমাবেশ ঘটে। উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন প্রবাস জীবন শেষে দেশ ও জনগণের সেবার লক্ষ্যে ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বাংলাদেশে ফিরে গেছেন এবং এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। প্রবাস জীবনে তিনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি ও ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যুক্তরাষ্ট্র শাখার প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন।
Poster-2সভায় বক্তারা আরো বলেন, মরহুম মন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলী নিজের অর্থ বিলিয়ে রাজনীতি করেছেন। মন্ত্রীর মৃত্যুর পর তার কন্যা বলেছেন, ‘কোটিপতি বাবা লাখপতি হয়ে চলে গেলেন’। বক্তারা বলেন, সৈয়দ মহসীন আলীর মতো ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে শুধু দিয়েই গেছেন, কিছু নেননি। শেষ পর্যন্ত ম্যানহাটানের বিখ্যাত তার রেষ্টুরেন্টটিও সচল রাখতে পারেননি। যে রেষ্টুরেন্টে জননেতা মরহুম ফরিদ গাজী, মরহুম পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদ সহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের র্শীষ নেতারা বৈঠক করেছেন, আপ্যায়িত হয়েছেন। সভায় কোন কোন বক্তা বলেন, ইতিপূর্বে এম এম শাহীন ছাড়া জাতীয় সংসদে প্রবাসীদের পক্ষে কোন সংসদ সদস্যই তেমন কোন কথা বলেননি। ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী এমপি নির্বাচিত হলে তিনি প্রবাসীদের প্রতিনিধি হিসেবে প্রবাসী ছাড়াও দেশবাসীর কথা বলবেন। বক্তারা একবাক্যে তাকে মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়ন দেয়ার জোড়ালো জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি দাবী জানান।
Poster-4সভায় ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বলেন, দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিলাম। আওয়ামী লীগের রাজনীতি আর সমাজ কর্মের মধ্য দিয়ে সাধ্য মতো প্রবাসীদের সেবা করার চেষ্টা করেছি। জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রী আমাকে সম্মান জানিয়ে ব্যাংক প্রতিষ্ঠার সুযোগ দিয়েছেন। চেষ্টা করছি এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের মাধ্যমে দেশের মানুষের কাজে আসছে, দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ আর শক্তিশালী করতে। আমার আর চাওয়া পাওয়াপর কিছু নেই। তারপরও মৌলভীবাজারবাসী তথা দেশের জনগণের সেবা করার সুযোগ পেলে সাধ্য মতো সেবার করার চেষ্টা করবো। তিনি বলেন, শ্রদ্ধেয় গজনফর আলী চৌধুরী দীর্ঘদিন যাবৎ মৌলভীবাজারবাসীদের জন্য কিছু করার জন্য উৎসাহ দিয়ে আসছিলেন। আমি বলেছিলাম (মরহুম) সৈয়দ মহসীন আলী বেঁচে থাকাবস্থায় আমি তার জায়গায় কোন দায়িত্ব নিতে চাই না। তিনি সবার মনে স্থান করে চলে গেছেন। তার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করা আমাদের দায়িত্ব। তিনি বলেন, আমি সবাইকে নিয়েই কাজ করতে চাই। তাই আমার সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীকে নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে তার অফিসে এক সাথে দেখা করেছি। নেত্রীকে বলেছি, আপনি যাকেই দায়িত্ব দেবেন, আমরা তাকেই সমর্থন দেবো এবং এক সাথে কাজ করবো। নেত্রী আমাদের কথা শুনেছেন। তিনি আগামী দিনে তার পাশে থাকার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান এবং যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন শহর থেকে মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য যারা তাকে উৎসাহী ও সমর্থন জানিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে ফরাসত আলীর ব্যক্তিগত সম্পর্ক রয়েছে। তার মনোনয়নের ব্যাপারে তার সকল যোগ্যতাই রয়েছে এবং এজন্য তিনি নিজেই যথেষ্ট। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আমার সাংগঠনিক সীমাবদ্ধতা থাকলেও ব্যক্তিগতভাবে ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীর মনোনয়নের ব্যাপারে যা কিছু করার তা তিনি করবেন।
গজনফর আলী চৌধুরী ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীর পরিবারের সাথে তার দীর্ঘ দিসের পরিচয় ও সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান ফরাসত আলী। তাদের পরিবার সমাজসেবী পরিবার হিসেবে পরিচিত। ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী পরিষ্কার মনের মানুষ, সৎ মানুষ, ভদ্র মানুষ। মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপনির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পেলে অবশ্যই নির্বাচিত হবেন এবং এলাকাবাসীর সেবায় আরো অনেক কিছু করতে পারবেন। সভার পক্ষ থেকে তাকে উপনির্বাচনে মনোনয়ন দেয়ার জন্য আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানান।
সভায় কমিউনিটির উল্লেখযোগ্য নেতৃবৃন্দ ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে বসির খান, তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী, আব্দুর নূর বড় ভূঁইয়া, ছদরুন নূর, রিয়াজ উদ্দিন কামরান ছাড়াও সিলেট জেলা কৃষক লীগের সভাপতি কফিল উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, রাজনগর উপজেলা পরিষদের প্রথম চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন চৌধুরী রানা, মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক নজরুল হক, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সভাপতি মামুন ইসলাম, সিলেট এমসি কলেজের সাবেক জিএস ও যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত আলী, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক নূর উদ্দিন, পার্কচেষ্টার জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি লিয়াক আলী, ওয়েস্ট ব্রঙ্কস জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফারুক আলী, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহাদৎ হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি মাস্টার আবু মোতাহার ও যুগ্ম সম্পাদক মইজুর এ লস্কর, যুক্তরাষ্ট্র কৃষক লীগের যুগ্ম সম্পাদক একে চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মনোয়ারা চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র যুব মহিলা লীগের যুগ্ম সম্পাদক মনোয়ারা বেগম মনি, সহ গোপাল স্যানোল, আব্দুল মালেক, মোহাম্মদ মনির, মোহাম্মদ কিবরিয়া, আমিনুর রহমান মামুন, নজরুল ইসলাম, মোহন ইসলাম, শিবলু আহমেদ, রুহুল আলিম, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্র লীগ নেতা জেড এ জয়, জাহাঙ্গীর হোসেন মিয়া, প্রজন্ম লীগের সভাপতি কবীর আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়া প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা সমাজ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা লীগ, যুব মহিলা লীগ ছাড়াও বাংলাদেশ সোসাইটি, বাংলাদেশ ল সোসাইটি অব ইউএসএ, বৃহত্তর সিলেট গনদাবী পরিষদ, রাজনগর ইউনিয়ন পরিষদ, বাংলাদেশ আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিল, রোটারী ক্লাব অব সেন্ট্রাল ব্রঙ্কস, বাংলাদেশ স্পোর্টস ফাউন্ডেশন, জালালাবাদ এসোসিয়েশন, মৌলভীবাজার জেলা সমিতি, হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ, আওয়ামী প্রজন্ম লীগ, কংগ্রেস অব বাংলাদেশ, জয়বাংলা পরিষদ, আমেরিকান এসোসিয়েশন অব দেশী ইঞ্জিনিয়ানর্স এন্ড আর্কিটেক্ট, বাঙালীর চেতনা মঞ্চ, থ্রি জেনারেশন অ্যালায়েন্স ইউএসএ, শহীদ নজাবত আলী ফাউন্ডেশন, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ সোসাইটি প্রভৃতি সংগঠন ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীকে সমর্থন জানিয়ে মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপ নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন বলে ‘ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী সমর্থক গোষ্ঠী’র পক্ষ থেকে বার্তা সংস্থা ইউএনএ-কে জানানো হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

‘মরহুম মন্ত্রী মহসিন আলীর যোগ্য উত্তরসূরী ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী’

প্রকাশের সময় : ০৫:৫৪:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৫

নিউইয়র্ক: সম্প্রতি প্রয়াত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলীর যোগ্য উত্তরসূরী হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট রাজনীতিক, সমাজসেবী এবং এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীকে জাতীয় সংসদের মৌলভীবাজার-৩ (রাজনগর-মৌলভীবাজার) আসনের উপ-নির্বাচনে নিউইয়র্কের সর্বস্তরের প্রবাসী প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন। ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী সমর্থক গোষ্ঠীর উদ্যোগে নিউইয়র্কে আয়োজিত এক সভায় বক্তারা মরহুম সৈয়দ মহসীন আলীর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, একজন যোগ্য জনপ্রতিনিধি আর সমাজসেবী হিসেবে তার (মহসীন আলী) যেমন গুণ ছিলো, তেমনী গুণের অধিকারী ফরাসত আলীও। মৌলভীবাজারবাসী তথা দেশের কল্যাণে মহসীন আলী যেমন দিয়ে যাওয়ার রাজনীতি করেছেন, তেমনী রাজনীতির অধিকারী ফরাসত আলী। তাই সকল দিক বিবেচনা করলে ফরাসত আলীই পারেন মরহুম মন্ত্রীর শূন্য স্থান পূরণ করতে। বক্তারা বলেন, শুধু মৌলভীবাজারবাসীই নন, নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্রের মতো যুক্তরাজ্যের প্রবাসীরাও ফরাসত আলীকে মৌলভীবাজার-৩ আসন থেকে জাতীয় সংসদে দেখতে চান। তিনি প্রবাসীদের পক্ষ থেকে একমাত্র প্রার্থী। সরকার তাকে সম্মানিত করলে এলাকাবাসীদের যেমন আশা পূরণ হবে, তেমনী প্রবাসীরাও সম্মানিত হবেন।
Farasot Ali-1সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ জুইস সেন্টারে গত ১৯ অক্টোবর সোমবার সন্ধ্যায় এই সভার আয়োজন করা হয়। সভায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি ও জাসদ-এর শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ বৃহত্তর সিলেটের বিভিন্ন সামাজিক ও আঞ্চলিক সংগঠন এবং কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ ছাড়াও দল-মত নির্বিশেষে সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলী এমপি’র ইন্তেকালে মৌলভীবাজার-৩ আসন শূন্য হয়।
Farasot Ali-3মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, প্রবীণ প্রবাসী গজনফর আলী চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠিত সভায় ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীর উপস্থিতিতে সভায় উল্লেখযোগ্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সভার বিশেষ অতিথি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, উপদেষ্টা ডা. মাসুদুল হাসান, মূলধারার রাজনীতিক মোর্শেদ আলম, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি যথাক্রমে আকতার হোসেন, সৈয়দ বসারত আলী ও লুৎফুল কবীর, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সৈয়দ সিদ্দিকুল হাসান, বাংলাদেশ সোসাইটি ইন্ক নিউইয়র্কের সাবেক সভাপতি কামাল আহমেদ ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা রানা ফেরদৌস চৌধুরী, জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা’র সভাপতি বদরুল খান, মৌলভীবাজার জেলা সমিতি ইউএসএ’র প্রতিষ্ঠিাতা সভাপতি আব্দুল মালেক সিপিএ ও বর্তমান সভাপতি আজমল হোসেন খান, নিউইয়র্ক সিটি আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নূরুজ্জামান চৌধুরী শাহী, হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক নুবেন্দু দত্ত ও যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী চান্দু।
সভার শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে পাঠ করেন হাফেজ জামসেদ হোসাইন। এছাড়া গীতা থেকে পাঠ করেন ডা. টমাস দুলু রায় এবং বাইবেল থেকে পাঠ করেন অধ্যাপক নুবেন্দু দত্ত।
Poster-1সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সাপ্তাহিক ঠিকানা’র প্রধান সম্পাদক মুহাম্মদ ফজলুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আব্দুল বাসিত, গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সহকারী এটর্নী জেনারেল আব্দুর রকিব মন্টু, সাংবাদিক দাউদ ভূইয়া, যুক্তরাষ্ট্র জাসদ-এর সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম জিকু, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, জনসংযোগ সম্পাদক ও সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কাজী কয়েস, বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক নিউইয়র্কের সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দিন আহমেদ সোহাগ, বৃহত্তর সিলেট গণদাবী পরিষদের সভাপতি সালেহ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুস শহীদ দুদু, বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচন কমিশনার আজমল আলী, মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিনহাজ আহমেদ সাম্মু, প্রবাসী রাজনগরবাসী আব্দুল বারী খান, বাংলাদেশ আমেরিকান ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক সোসাইটির সভাপতি আব্দুস শহীদ, ব্রঙ্কস-এর কমিউনিটি বোর্ড-৯ এর চেয়ার ও বাংলাদেশ আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিলের সভাপতি এডভোকেট এন মজুমদার, মদিনা মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি এডভোকেট নাসির উদ্দিন, বাংলা বাজার জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আলহাজ গিয়াস উদ্দিন, ওয়েস্ট ব্রঙ্কস জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফয়েজ আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহীম বাদশা, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল, গোপালগঞ্জ সোসাইটি ইউএসএ’র সভাপতি জাকির হোসাইন হিরু ভূইয়া, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের সদস্য শাহানারা রহমান, ঢাকা দক্ষিণ কলেজের সাবেক ভিপি ও নিউজার্সী ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শফিক উদ্দিন, সিলেট এমসি কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি সুফিয়ান খান, কংগ্রেস অব বাংলাদেশ ইউএসএ’র সাধারণ সম্পাদক ও কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার মঞ্জুর চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি দরুদ মিয়া রনেল ও সাধারণ সম্পাদক শেখ আতিকুল ইসলাম, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি আব্দুল গাফফার চৌধুরী ও রেজাউল ইসলাম সেলিম, ফেঞ্চুগঞ্জ আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও ইসলামিক হাফেজিয়া মাদ্রাসার চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান বাঙালী, বিশ্ববনাথ সমিতি ইউএসএ’র সাবেক সভাপতি আলমাস আলী, ব্রঙ্কস বাংলা স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ নূরুল আহহিয়া, মৌলভীবাজার সরকারী কলেজের সাবেক জিএস সৈয়দ জুয়েল, মৌলভীবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি লায়েক তরফদার, রাজনগর উন্নয়ন পরিষদের সিনিয়র সহ সভাপতি মাসুক মিয়া, কমিউনিটি নেতা হেলাল তরফদার, যুক্তরাষ্ট্র কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্কাস আলী, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রব খান জামাল, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন ও সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নেতা এম আলম বিপ্লব, শাহ রকিব আলী প্রমুখ।
Farasot Ali-4সন্ধ্যার পর শুরু হওয়া সভার কার্যক্রম চলে রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত। সভা পরিচালনা করেন বাঙালীর চেতনা মঞ্চের প্রতিষ্ঠাতা হারুন আলী। সভায় জ্যাকসন হাইটস ছাড়াও নিউইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কস, জ্যামাইকা, ব্রুকলীন, এস্টোরিয়া, ওজনপার্ক এলাকার বিপুল সংখ্যক প্রবাসীর সমাবেশ ঘটে। উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন প্রবাস জীবন শেষে দেশ ও জনগণের সেবার লক্ষ্যে ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বাংলাদেশে ফিরে গেছেন এবং এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। প্রবাস জীবনে তিনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি ও ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যুক্তরাষ্ট্র শাখার প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন।
Poster-2সভায় বক্তারা আরো বলেন, মরহুম মন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলী নিজের অর্থ বিলিয়ে রাজনীতি করেছেন। মন্ত্রীর মৃত্যুর পর তার কন্যা বলেছেন, ‘কোটিপতি বাবা লাখপতি হয়ে চলে গেলেন’। বক্তারা বলেন, সৈয়দ মহসীন আলীর মতো ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে শুধু দিয়েই গেছেন, কিছু নেননি। শেষ পর্যন্ত ম্যানহাটানের বিখ্যাত তার রেষ্টুরেন্টটিও সচল রাখতে পারেননি। যে রেষ্টুরেন্টে জননেতা মরহুম ফরিদ গাজী, মরহুম পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদ সহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের র্শীষ নেতারা বৈঠক করেছেন, আপ্যায়িত হয়েছেন। সভায় কোন কোন বক্তা বলেন, ইতিপূর্বে এম এম শাহীন ছাড়া জাতীয় সংসদে প্রবাসীদের পক্ষে কোন সংসদ সদস্যই তেমন কোন কথা বলেননি। ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী এমপি নির্বাচিত হলে তিনি প্রবাসীদের প্রতিনিধি হিসেবে প্রবাসী ছাড়াও দেশবাসীর কথা বলবেন। বক্তারা একবাক্যে তাকে মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়ন দেয়ার জোড়ালো জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি দাবী জানান।
Poster-4সভায় ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বলেন, দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিলাম। আওয়ামী লীগের রাজনীতি আর সমাজ কর্মের মধ্য দিয়ে সাধ্য মতো প্রবাসীদের সেবা করার চেষ্টা করেছি। জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রী আমাকে সম্মান জানিয়ে ব্যাংক প্রতিষ্ঠার সুযোগ দিয়েছেন। চেষ্টা করছি এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের মাধ্যমে দেশের মানুষের কাজে আসছে, দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ আর শক্তিশালী করতে। আমার আর চাওয়া পাওয়াপর কিছু নেই। তারপরও মৌলভীবাজারবাসী তথা দেশের জনগণের সেবা করার সুযোগ পেলে সাধ্য মতো সেবার করার চেষ্টা করবো। তিনি বলেন, শ্রদ্ধেয় গজনফর আলী চৌধুরী দীর্ঘদিন যাবৎ মৌলভীবাজারবাসীদের জন্য কিছু করার জন্য উৎসাহ দিয়ে আসছিলেন। আমি বলেছিলাম (মরহুম) সৈয়দ মহসীন আলী বেঁচে থাকাবস্থায় আমি তার জায়গায় কোন দায়িত্ব নিতে চাই না। তিনি সবার মনে স্থান করে চলে গেছেন। তার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করা আমাদের দায়িত্ব। তিনি বলেন, আমি সবাইকে নিয়েই কাজ করতে চাই। তাই আমার সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীকে নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে তার অফিসে এক সাথে দেখা করেছি। নেত্রীকে বলেছি, আপনি যাকেই দায়িত্ব দেবেন, আমরা তাকেই সমর্থন দেবো এবং এক সাথে কাজ করবো। নেত্রী আমাদের কথা শুনেছেন। তিনি আগামী দিনে তার পাশে থাকার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান এবং যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন শহর থেকে মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য যারা তাকে উৎসাহী ও সমর্থন জানিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে ফরাসত আলীর ব্যক্তিগত সম্পর্ক রয়েছে। তার মনোনয়নের ব্যাপারে তার সকল যোগ্যতাই রয়েছে এবং এজন্য তিনি নিজেই যথেষ্ট। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আমার সাংগঠনিক সীমাবদ্ধতা থাকলেও ব্যক্তিগতভাবে ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীর মনোনয়নের ব্যাপারে যা কিছু করার তা তিনি করবেন।
গজনফর আলী চৌধুরী ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীর পরিবারের সাথে তার দীর্ঘ দিসের পরিচয় ও সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান ফরাসত আলী। তাদের পরিবার সমাজসেবী পরিবার হিসেবে পরিচিত। ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী পরিষ্কার মনের মানুষ, সৎ মানুষ, ভদ্র মানুষ। মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপনির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পেলে অবশ্যই নির্বাচিত হবেন এবং এলাকাবাসীর সেবায় আরো অনেক কিছু করতে পারবেন। সভার পক্ষ থেকে তাকে উপনির্বাচনে মনোনয়ন দেয়ার জন্য আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানান।
সভায় কমিউনিটির উল্লেখযোগ্য নেতৃবৃন্দ ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে বসির খান, তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী, আব্দুর নূর বড় ভূঁইয়া, ছদরুন নূর, রিয়াজ উদ্দিন কামরান ছাড়াও সিলেট জেলা কৃষক লীগের সভাপতি কফিল উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, রাজনগর উপজেলা পরিষদের প্রথম চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন চৌধুরী রানা, মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক নজরুল হক, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সভাপতি মামুন ইসলাম, সিলেট এমসি কলেজের সাবেক জিএস ও যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত আলী, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক নূর উদ্দিন, পার্কচেষ্টার জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি লিয়াক আলী, ওয়েস্ট ব্রঙ্কস জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফারুক আলী, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহাদৎ হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি মাস্টার আবু মোতাহার ও যুগ্ম সম্পাদক মইজুর এ লস্কর, যুক্তরাষ্ট্র কৃষক লীগের যুগ্ম সম্পাদক একে চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মনোয়ারা চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র যুব মহিলা লীগের যুগ্ম সম্পাদক মনোয়ারা বেগম মনি, সহ গোপাল স্যানোল, আব্দুল মালেক, মোহাম্মদ মনির, মোহাম্মদ কিবরিয়া, আমিনুর রহমান মামুন, নজরুল ইসলাম, মোহন ইসলাম, শিবলু আহমেদ, রুহুল আলিম, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্র লীগ নেতা জেড এ জয়, জাহাঙ্গীর হোসেন মিয়া, প্রজন্ম লীগের সভাপতি কবীর আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়া প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা সমাজ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা লীগ, যুব মহিলা লীগ ছাড়াও বাংলাদেশ সোসাইটি, বাংলাদেশ ল সোসাইটি অব ইউএসএ, বৃহত্তর সিলেট গনদাবী পরিষদ, রাজনগর ইউনিয়ন পরিষদ, বাংলাদেশ আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিল, রোটারী ক্লাব অব সেন্ট্রাল ব্রঙ্কস, বাংলাদেশ স্পোর্টস ফাউন্ডেশন, জালালাবাদ এসোসিয়েশন, মৌলভীবাজার জেলা সমিতি, হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ, আওয়ামী প্রজন্ম লীগ, কংগ্রেস অব বাংলাদেশ, জয়বাংলা পরিষদ, আমেরিকান এসোসিয়েশন অব দেশী ইঞ্জিনিয়ানর্স এন্ড আর্কিটেক্ট, বাঙালীর চেতনা মঞ্চ, থ্রি জেনারেশন অ্যালায়েন্স ইউএসএ, শহীদ নজাবত আলী ফাউন্ডেশন, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ সোসাইটি প্রভৃতি সংগঠন ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলীকে সমর্থন জানিয়ে মৌলভীবাজার-৩ আসনের উপ নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন বলে ‘ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী সমর্থক গোষ্ঠী’র পক্ষ থেকে বার্তা সংস্থা ইউএনএ-কে জানানো হয়েছে।