নিউইয়র্ক ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

বাসা ভাড়ার চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ : ১১ বছর পর লীগ্যাল নোটিশ

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৩৭:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • / ৫৬৬ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কের জ্যামাইকা বসবাসকারী এক প্রবাসী বাংলাদেশীর বিরুদ্ধে বাসা ভাড়ার চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ এনে ১১ বছর পর লীগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এতোদিন পর এমন নোটিশ পেয়ে হতভম্ব হয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐ বাংলাদেশী।
ভুক্তভোগী ঐ বাংলাদেশী ইউএনএ প্রতিনিধিকে জানান, বিগত ২০০৪ সালে জ্যামাইকাস্থ একটি কোম্পানীর অ্যাপার্টমেন্টে এক বেডরুমের বাসা ভাড়া নেন এবং এজন্য লীজেও স্বাক্ষর করেন। বাসায় স্বামী-স্ত্রী থাকার পর নবাগত সন্তানের সুবিধার কথা বিবেচনা করে অ্যাপার্টমেন্টটি ভাড়া নেয়ার দু’মাস পরই বাসা বদলাতে বাধ্য হন। অ্যাপার্টমেন্টটি ছাড়ার সময় তিনি সুপারের সাথে কথা বলেই নতুন একজনের কাছে অ্যাপার্টমেন্টটি বুঝিয়ে দিয়ে নতুন বাসায় উঠেন। অসাবধানতাবশত: তিনি অ্যাপার্টমেন্ট লীজের বিষয়ে কোন পদক্ষেপ নেননি। দীর্ঘ দিনে বিষয়টি তিনি ভুলেও যান। কিন্তু ১১ বছর পর গত চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারী একটি আইনী প্রতিষ্ঠান থেকে লীগ্যাল নোটিশ পান ৫ হাজার ৮৭১ ডলার ৫১ সেন্ট। লীগ্যাল নোটিশে বলা হয় ২০০৪ সালে ভাড়া নেয়া অ্যাপার্টমেন্টের লীজের শর্ত ভঙ্গ এবং এজন্য ৯% সুদে-আসলে ৫,৮৭১ ডলার ৫১ সেন্ট দাবী করে অবিলম্বে আইনী প্রতিষ্ঠানটির সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয় এবং তার ব্যাংক অ্যাকউন্ট জব্দের উদ্যোগ নেয়া হয়। পরবর্তীতে ঐ বাংলাদেশী স্থানীয় আদালতের স্মরণাপন্ন হন এবং আইনী প্রতিষ্ঠানটির সাথে আলোচনার ভিত্তিতে সমঝোতায় পৌঁছার উদ্যোগ নিতে বাধ্য হন বলে জানান। ঘটনাটি তাকে বিস্মিত করে এবং যেকোন লীগ্যাল বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য তিনি সকল প্রবাসী বাংলাদেশীর প্রতি আহ্বান জানান।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

বাসা ভাড়ার চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ : ১১ বছর পর লীগ্যাল নোটিশ

প্রকাশের সময় : ০৮:৩৭:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কের জ্যামাইকা বসবাসকারী এক প্রবাসী বাংলাদেশীর বিরুদ্ধে বাসা ভাড়ার চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ এনে ১১ বছর পর লীগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এতোদিন পর এমন নোটিশ পেয়ে হতভম্ব হয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐ বাংলাদেশী।
ভুক্তভোগী ঐ বাংলাদেশী ইউএনএ প্রতিনিধিকে জানান, বিগত ২০০৪ সালে জ্যামাইকাস্থ একটি কোম্পানীর অ্যাপার্টমেন্টে এক বেডরুমের বাসা ভাড়া নেন এবং এজন্য লীজেও স্বাক্ষর করেন। বাসায় স্বামী-স্ত্রী থাকার পর নবাগত সন্তানের সুবিধার কথা বিবেচনা করে অ্যাপার্টমেন্টটি ভাড়া নেয়ার দু’মাস পরই বাসা বদলাতে বাধ্য হন। অ্যাপার্টমেন্টটি ছাড়ার সময় তিনি সুপারের সাথে কথা বলেই নতুন একজনের কাছে অ্যাপার্টমেন্টটি বুঝিয়ে দিয়ে নতুন বাসায় উঠেন। অসাবধানতাবশত: তিনি অ্যাপার্টমেন্ট লীজের বিষয়ে কোন পদক্ষেপ নেননি। দীর্ঘ দিনে বিষয়টি তিনি ভুলেও যান। কিন্তু ১১ বছর পর গত চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারী একটি আইনী প্রতিষ্ঠান থেকে লীগ্যাল নোটিশ পান ৫ হাজার ৮৭১ ডলার ৫১ সেন্ট। লীগ্যাল নোটিশে বলা হয় ২০০৪ সালে ভাড়া নেয়া অ্যাপার্টমেন্টের লীজের শর্ত ভঙ্গ এবং এজন্য ৯% সুদে-আসলে ৫,৮৭১ ডলার ৫১ সেন্ট দাবী করে অবিলম্বে আইনী প্রতিষ্ঠানটির সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয় এবং তার ব্যাংক অ্যাকউন্ট জব্দের উদ্যোগ নেয়া হয়। পরবর্তীতে ঐ বাংলাদেশী স্থানীয় আদালতের স্মরণাপন্ন হন এবং আইনী প্রতিষ্ঠানটির সাথে আলোচনার ভিত্তিতে সমঝোতায় পৌঁছার উদ্যোগ নিতে বাধ্য হন বলে জানান। ঘটনাটি তাকে বিস্মিত করে এবং যেকোন লীগ্যাল বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য তিনি সকল প্রবাসী বাংলাদেশীর প্রতি আহ্বান জানান।