নিউইয়র্ক ১১:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

প্রহসনের রায়ে বিএনপির নেতা-কর্মীদেরকে ভয় দেখানো যাবে না

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০২:১৭:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০১৫
  • / ৮০০ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: কেন্দ্রীয় বিএনপি’র অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম বলেছেন, দেশে চরম ক্লান্তিকাল চলছে। শেখ হাসিনার সরকার বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকাকে ভয় পায় বলেই আওয়ামী লীগ প্রথমবার ক্ষমতায় এসে তার বিরুদ্ধে ১৫০টি মামলা দিয়েছিলো। জাতীয় সংসদের প্রথমবারের নির্বাচনে সাদেক হোসেন খোকার কাছে বিপুল ভোটে পরাজিত হবার পর থেকেই শেখ হাসিনার প্রতিহিংসার শিকার হন সাদেক হোসেন খোকা। যে কারণে তার বিরুদ্ধে এবার মিথ্যা মামলা এবং তার অনুপস্থিতিতেই প্রহসনের রায় দেয়া হয়। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নেত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াও চিকিৎসার জন্য বিদেশে যান। এতে দোষের কিছু নেই। আর সাদেক হোসেন খোকারও চিকিৎসার জন্য বিদেশে এসেছেন হাইকোর্টের অনুমতি নিয়েই। তারপরেও তার বিরুদ্ধে প্রসহনের রায় দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে সাদেক হোসেন খোকার প্রতি যে সম্মান দেখানোর কথা সরকার তাও দেখায়নি। তিনি বলেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়া প্রতিষ্ঠিত বিএনপি বাংলাদেশের জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল। আদালতকে ব্যবহার করে প্রহসনের রায় দিয়ে বিএনপি আর বিএনপির নেতা-কর্মীদেরকে ভয় দেখানো যাবে না।
বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস-চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী ও ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার বিরুদ্ধে দেয়া আদালতের রায়ের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্র যুবদল আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুস সালাম উপরোক্ত কথা বলেন।
সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ খাবার বাড়ীর পালকী পার্টি সেন্টারে ২৫ অক্টোবর রোববার সন্ধ্যায় আয়োজিত যুবদলের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের অন্যতম সহ-সভাপতি আহবাব হোসেন চৌধুরী খোকন। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু, জাসাস-এর কেন্দ্রীয় নেত্রী ও জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বেবী নাজনীন, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম সম্পাদক হেলাল উদ্দিন ও সাবেক কোষাধ্যক্ষ আবুল হাসেম শাহাদৎ। সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা আবু সুফিয়ান, ছৈয়দুল হক, বাসেত রহমান, এবাদ চৌধুরী, আবু সুফিয়ান, ফয়েজ আহমেদ চৌধুরী, মার্শাল মুরাদ, এম জাহাঙ্গীর, যুক্তরাষ্ট্র সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমেদ, নিউইয়র্ক ষ্টেট যুবদলের সভাপতি কাজী আমিনুল ইসলাম স্বপন, সিটি যুবদলের সভাপতি বিলাল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক, যুবদল নেতা সৈয়দ এনাম আহমেদ, আরশাদ খান, ইকবাল হায়দার, মীর সুজন, নাজিম উদ্দিন প্রমুখ। সমাবেশ পরিচালনা করেন নিউইয়র্ক ষ্টেট যুবদলের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আজাদ ভূঁইয়া।
সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে সাদেক হোসেন খোকার বিরুদ্ধে আনিত সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার’সহ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক আদালতের রায় বাতিলের দাবী জানিয়ে বলেন, রায়টি ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত আর ফরমায়েশী রায়’। বক্তারা আওয়ামী লীগ সরকারের সমালোচনা করে বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। আওয়ামী লীগ বিএনপিকে ভয় পায় বলেই, আইন-শৃঙখলা বাহিনী আর আদালতের উপর প্রভাব ঘাটিয়ে বিএনপিকে ধ্বংস করতে চায়। বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ জিয়ার আদর্শের সৈনিকরা জনগণকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগের এই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে। সেদিন আর বেশী দূরে নয়, ‘অবৈধ’ আওয়ামী লীগ সরকার তাদের নিপীড়ন-নির্যাতনের কারণে জনবিচ্ছন্ন দলে পরিণত হবে।
সমাবেশে আব্দুস সালাম আরো বলেন, চাটুকাররা যেভাবে শেখ মুজিবুর রহমানের ক্ষতি করেছেন, জ্ঞানপাপী চাটুকাররা সেভাবেই শেখ হাসিনা এবং দেশের ক্ষতি করছে। তারা দেশকে জাহান্নামের দিকে ঠেলে দিতে চায়। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নয়, বিএনপিই গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। তাই আমরা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে মধ্যবর্তী নির্বাচন চাই। নির্বাচনের মাধ্যমেই বিএনপি ক্ষমতায় যেতে চায়। তিনি বলেন, কোন স্বৈরশাসক ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি, শেখ হাসিনাও পারবে না। তিনি জাতীয়তাবাদী বিশ্বাসে সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলন জোরদান করার আহ্বান জানান।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

প্রহসনের রায়ে বিএনপির নেতা-কর্মীদেরকে ভয় দেখানো যাবে না

প্রকাশের সময় : ০২:১৭:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০১৫

নিউইয়র্ক: কেন্দ্রীয় বিএনপি’র অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম বলেছেন, দেশে চরম ক্লান্তিকাল চলছে। শেখ হাসিনার সরকার বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকাকে ভয় পায় বলেই আওয়ামী লীগ প্রথমবার ক্ষমতায় এসে তার বিরুদ্ধে ১৫০টি মামলা দিয়েছিলো। জাতীয় সংসদের প্রথমবারের নির্বাচনে সাদেক হোসেন খোকার কাছে বিপুল ভোটে পরাজিত হবার পর থেকেই শেখ হাসিনার প্রতিহিংসার শিকার হন সাদেক হোসেন খোকা। যে কারণে তার বিরুদ্ধে এবার মিথ্যা মামলা এবং তার অনুপস্থিতিতেই প্রহসনের রায় দেয়া হয়। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নেত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াও চিকিৎসার জন্য বিদেশে যান। এতে দোষের কিছু নেই। আর সাদেক হোসেন খোকারও চিকিৎসার জন্য বিদেশে এসেছেন হাইকোর্টের অনুমতি নিয়েই। তারপরেও তার বিরুদ্ধে প্রসহনের রায় দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে সাদেক হোসেন খোকার প্রতি যে সম্মান দেখানোর কথা সরকার তাও দেখায়নি। তিনি বলেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়া প্রতিষ্ঠিত বিএনপি বাংলাদেশের জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল। আদালতকে ব্যবহার করে প্রহসনের রায় দিয়ে বিএনপি আর বিএনপির নেতা-কর্মীদেরকে ভয় দেখানো যাবে না।
বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস-চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী ও ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার বিরুদ্ধে দেয়া আদালতের রায়ের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্র যুবদল আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুস সালাম উপরোক্ত কথা বলেন।
সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ খাবার বাড়ীর পালকী পার্টি সেন্টারে ২৫ অক্টোবর রোববার সন্ধ্যায় আয়োজিত যুবদলের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের অন্যতম সহ-সভাপতি আহবাব হোসেন চৌধুরী খোকন। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু, জাসাস-এর কেন্দ্রীয় নেত্রী ও জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বেবী নাজনীন, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম সম্পাদক হেলাল উদ্দিন ও সাবেক কোষাধ্যক্ষ আবুল হাসেম শাহাদৎ। সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা আবু সুফিয়ান, ছৈয়দুল হক, বাসেত রহমান, এবাদ চৌধুরী, আবু সুফিয়ান, ফয়েজ আহমেদ চৌধুরী, মার্শাল মুরাদ, এম জাহাঙ্গীর, যুক্তরাষ্ট্র সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমেদ, নিউইয়র্ক ষ্টেট যুবদলের সভাপতি কাজী আমিনুল ইসলাম স্বপন, সিটি যুবদলের সভাপতি বিলাল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক, যুবদল নেতা সৈয়দ এনাম আহমেদ, আরশাদ খান, ইকবাল হায়দার, মীর সুজন, নাজিম উদ্দিন প্রমুখ। সমাবেশ পরিচালনা করেন নিউইয়র্ক ষ্টেট যুবদলের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আজাদ ভূঁইয়া।
সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে সাদেক হোসেন খোকার বিরুদ্ধে আনিত সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার’সহ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক আদালতের রায় বাতিলের দাবী জানিয়ে বলেন, রায়টি ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত আর ফরমায়েশী রায়’। বক্তারা আওয়ামী লীগ সরকারের সমালোচনা করে বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। আওয়ামী লীগ বিএনপিকে ভয় পায় বলেই, আইন-শৃঙখলা বাহিনী আর আদালতের উপর প্রভাব ঘাটিয়ে বিএনপিকে ধ্বংস করতে চায়। বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ জিয়ার আদর্শের সৈনিকরা জনগণকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগের এই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে। সেদিন আর বেশী দূরে নয়, ‘অবৈধ’ আওয়ামী লীগ সরকার তাদের নিপীড়ন-নির্যাতনের কারণে জনবিচ্ছন্ন দলে পরিণত হবে।
সমাবেশে আব্দুস সালাম আরো বলেন, চাটুকাররা যেভাবে শেখ মুজিবুর রহমানের ক্ষতি করেছেন, জ্ঞানপাপী চাটুকাররা সেভাবেই শেখ হাসিনা এবং দেশের ক্ষতি করছে। তারা দেশকে জাহান্নামের দিকে ঠেলে দিতে চায়। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নয়, বিএনপিই গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। তাই আমরা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে মধ্যবর্তী নির্বাচন চাই। নির্বাচনের মাধ্যমেই বিএনপি ক্ষমতায় যেতে চায়। তিনি বলেন, কোন স্বৈরশাসক ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি, শেখ হাসিনাও পারবে না। তিনি জাতীয়তাবাদী বিশ্বাসে সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলন জোরদান করার আহ্বান জানান।