নিউইয়র্ক ১২:৩৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

কুইন্স বোরো প্রেসিডেন্টের ইফতার পার্টি অনুষ্ঠিত

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:২৯:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ জুন ২০১৬
  • / ৬৭৭ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে নিউইয়র্ক সিটির অন্যতম বরো ‘কুইন্স বরো’র প্রেসিডেন্ট মেলিন্ডা কাটস এক ইফতার পার্টির আয়োজন করেন। গত ৮ জুন বুধবার কুইন্স বরো হলে অনুষ্ঠিত হয় ‘কুইন্স ইফতার’ শীর্ষক এই পার্টি। এতে নিউইয়র্কস্থ মুসলিম সম্প্রদায়ের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং ইসলামিক স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। দোয়া, পবিত্র কোরান থেকে তেলওয়াত, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, শিশুদের হামদ নাত, ইফতার পরিবেশনে বিভিন্ন ভাষা-ভাষী মুসলমান নর-নারীর অংশগ্রহনে উক্ত ইফতার পার্টি পরিণত হয় চিরন্তন মুসলিম সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির এক মিলনমেলায়।
দালাইলা তাহিরোভিচ ও জোয়েল মাহমুদ ভুইয়ার উপস্থাপনায় শুরুতেই দোয়া পরিচালনা করেন আল ইহসান একাডেমির প্রিন্সিপাল ইমাম শেখ রফিক মোহাম্মদ। এরপর পবিত্র কোরান থেকে তেলওয়াত করেন আল মামুর স্কুলের ছাত্র ইক্রিমাহ তেলি।
অনুষ্ঠানে আল মামুর স্কুলের প্রিন্সিপাল ড. ইসমাইল খলিল রমজান প্রসঙ্গে বলেন, এই মাসটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এ কারণে যে এমাসেই তিনটি আসমানী গ্রন্থ নাজেল হয়।
Melinda Catzsকুইন্স বোরো প্রেসিডেন্ট অনুষ্ঠান স্থলে এসেই ‘আসসালামু আলাইকুম’ বলে সম্বোধন করেন। বোরো প্রেসিডেন্ট কাট্জ তার বক্তৃতায় বলেন, এটা আমার দ্বিতীয় ইফতার আয়োজন। এটা আপনাদেরই বাড়ি। এই বাড়িতে সকলেরই প্রবেশাধিকার রয়েছে। তিনি বলেন, কুইন্স সব ধর্মের, সব বর্ণের, সব দেশের, সব ভাষার মানুষের। যেহেতু এই বোরো ‘ওয়ার্ল্ডস বরো’ তাই আপনাদের সকলের নিরাপত্তার বিষয়টি আমরা গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করি। তিনি বলেন, এই বোরোতে সকল কমিউনিটির নিজের ভাষা, সংস্কৃতি, নিজের খাবার রয়েছে। আমরা প্রত্যেকের নিজস্ব সংস্কৃতিকে লালনে উৎসাহিত করি। এখানে ঘৃণা জন্মালে, আমরা ভালবাসা দিয়ে, সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা দিয়ে তা মোকাবেলা করি।
মেলিন্ডা বলেন, কুইন্স বোরো মিশ্র সংস্কৃতি এবং একতার আদর্শ স্থান। তিনি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান।
Queens boro Iftar 02উল্লেখ্য, উক্ত ইফতার অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে গঠিত কমিটিতে বাংলাদেশী কমিউনিটির পক্ষ থেকে বিশেষ সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত ছিলেন আল আমিন মসজিদের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন এবং জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের প্রতিনিধি ইঞ্জিনিয়ার কামাল ভূঁইয়া।
অনুষ্ঠানে কমিউনিটির স্বার্থ উন্নয়নে উল্লেখয্যোগ্য ভুমিকা রাখবার জন্য, কুইন্স বোরো প্রেসিডেন্ট মেলিন্ডা কাটজ কর্তৃক বিশেষ সাইটেশন প্রদান করা হয়। যারা সম্মাননা পান, তারা হলেন যথাক্রমে সাউথ এশিয়ান কমিউনিটি থেকে বাংলাদেশী বাংলাদেশী আমেরিকান এডভোকেসী গ্রুপের জয়নাল আবেদীন, আরব আমেরিকান ফ্যামিলি সাপোর্ট সেন্টারের লিনা হুসেইনী এবং অ্যারাবিয়ান রেডিও হোস্ট অর্সানাল এই মোহামেদ।
ইফতার পার্টিতে অংশগ্রহনকারী সকলকে স্বাগত জানান এবং পুরো অনুষ্ঠান তত্বাবধান করেন বোরো হলের কমিউনিটি অ্যাফেয়ার্স এর পরিচালক ড. মোহাম্মেদ হক।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

কুইন্স বোরো প্রেসিডেন্টের ইফতার পার্টি অনুষ্ঠিত

প্রকাশের সময় : ০৯:২৯:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ জুন ২০১৬

নিউইয়র্ক: পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে নিউইয়র্ক সিটির অন্যতম বরো ‘কুইন্স বরো’র প্রেসিডেন্ট মেলিন্ডা কাটস এক ইফতার পার্টির আয়োজন করেন। গত ৮ জুন বুধবার কুইন্স বরো হলে অনুষ্ঠিত হয় ‘কুইন্স ইফতার’ শীর্ষক এই পার্টি। এতে নিউইয়র্কস্থ মুসলিম সম্প্রদায়ের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং ইসলামিক স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। দোয়া, পবিত্র কোরান থেকে তেলওয়াত, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, শিশুদের হামদ নাত, ইফতার পরিবেশনে বিভিন্ন ভাষা-ভাষী মুসলমান নর-নারীর অংশগ্রহনে উক্ত ইফতার পার্টি পরিণত হয় চিরন্তন মুসলিম সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির এক মিলনমেলায়।
দালাইলা তাহিরোভিচ ও জোয়েল মাহমুদ ভুইয়ার উপস্থাপনায় শুরুতেই দোয়া পরিচালনা করেন আল ইহসান একাডেমির প্রিন্সিপাল ইমাম শেখ রফিক মোহাম্মদ। এরপর পবিত্র কোরান থেকে তেলওয়াত করেন আল মামুর স্কুলের ছাত্র ইক্রিমাহ তেলি।
অনুষ্ঠানে আল মামুর স্কুলের প্রিন্সিপাল ড. ইসমাইল খলিল রমজান প্রসঙ্গে বলেন, এই মাসটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এ কারণে যে এমাসেই তিনটি আসমানী গ্রন্থ নাজেল হয়।
Melinda Catzsকুইন্স বোরো প্রেসিডেন্ট অনুষ্ঠান স্থলে এসেই ‘আসসালামু আলাইকুম’ বলে সম্বোধন করেন। বোরো প্রেসিডেন্ট কাট্জ তার বক্তৃতায় বলেন, এটা আমার দ্বিতীয় ইফতার আয়োজন। এটা আপনাদেরই বাড়ি। এই বাড়িতে সকলেরই প্রবেশাধিকার রয়েছে। তিনি বলেন, কুইন্স সব ধর্মের, সব বর্ণের, সব দেশের, সব ভাষার মানুষের। যেহেতু এই বোরো ‘ওয়ার্ল্ডস বরো’ তাই আপনাদের সকলের নিরাপত্তার বিষয়টি আমরা গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করি। তিনি বলেন, এই বোরোতে সকল কমিউনিটির নিজের ভাষা, সংস্কৃতি, নিজের খাবার রয়েছে। আমরা প্রত্যেকের নিজস্ব সংস্কৃতিকে লালনে উৎসাহিত করি। এখানে ঘৃণা জন্মালে, আমরা ভালবাসা দিয়ে, সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা দিয়ে তা মোকাবেলা করি।
মেলিন্ডা বলেন, কুইন্স বোরো মিশ্র সংস্কৃতি এবং একতার আদর্শ স্থান। তিনি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান।
Queens boro Iftar 02উল্লেখ্য, উক্ত ইফতার অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে গঠিত কমিটিতে বাংলাদেশী কমিউনিটির পক্ষ থেকে বিশেষ সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত ছিলেন আল আমিন মসজিদের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন এবং জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের প্রতিনিধি ইঞ্জিনিয়ার কামাল ভূঁইয়া।
অনুষ্ঠানে কমিউনিটির স্বার্থ উন্নয়নে উল্লেখয্যোগ্য ভুমিকা রাখবার জন্য, কুইন্স বোরো প্রেসিডেন্ট মেলিন্ডা কাটজ কর্তৃক বিশেষ সাইটেশন প্রদান করা হয়। যারা সম্মাননা পান, তারা হলেন যথাক্রমে সাউথ এশিয়ান কমিউনিটি থেকে বাংলাদেশী বাংলাদেশী আমেরিকান এডভোকেসী গ্রুপের জয়নাল আবেদীন, আরব আমেরিকান ফ্যামিলি সাপোর্ট সেন্টারের লিনা হুসেইনী এবং অ্যারাবিয়ান রেডিও হোস্ট অর্সানাল এই মোহামেদ।
ইফতার পার্টিতে অংশগ্রহনকারী সকলকে স্বাগত জানান এবং পুরো অনুষ্ঠান তত্বাবধান করেন বোরো হলের কমিউনিটি অ্যাফেয়ার্স এর পরিচালক ড. মোহাম্মেদ হক।