নিউইয়র্ক ১২:২৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

ভারতে শান্তি পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশী নবকুমার রাহা

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৩৪:৪৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২১ মার্চ ২০১৫
  • / ৬৭৯ বার পঠিত

ঢাকা: বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলার নবকুমার রাহা নামের এক গান্ধীবাদী পেলেন ‘জি রামচন্দ্র-ইকেদা শান্তি পুরস্কার’। গান্ধীর অহিংস বাণী প্রচার ও দরিদ্র মানুষদের জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা রাখায় তাকে এ পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। নবকুমার রাহা নোয়াখালী গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের পরিচালক। উল্লেখ্য, ১৯৪৬-৪৭ সালে মহাত্মা গান্ধী ৩ মাসেরও বেশি সময় কাটান নোয়াখালীতে। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় আক্রান্ত এ জেলায় গান্ধী গিয়েছিলেন অহিংসার বাণী প্রচারের মাধ্যমে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে। এর প্রায় ৭০ বছর পর এক গান্ধীবাদীই চেষ্টা করছেন অহিংসা বজায় রাখা এবং গরিব ও সংখ্যালঘুদের জন্য কাজ করার মাধ্যমে নোয়াখালীতে মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি ও আদর্শ অটুট রাখতে। ১২ মার্চ বৃহস্প্রতিবার ভারতের রাজধানী দিল্লিতে তার কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ তাকে দেয়া হয় জি রামচন্দ্র-ইকেদা পুরস্কার ২০১৪।
৫১ বছর বয়সী রাহা কয়েক দশক ধরে জড়িত রয়েছেন নোয়াখালী গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের সঙ্গে। নোয়াখালীতে গান্ধীর সফরের সময় এ সংগঠন গড়ে ওঠে। তার বিভিন্ন সামাজিক ও জনহিতৈষী কর্মকান্ডের সুফল পেয়েছে এ জেলার প্রায় ১২ লাখ মানুষ। এ ছাড়া নোয়াখালীর দরিদ্র মানুষজন, বিশেষ করে সংখ্যালঘু হিন্দুদের আশ্রয় স্থল হয়ে উঠেছে এ সংগঠনটি। বাংলাদেশেও নবকুমার রাহা বেশ পরিচিত মুখ। তিনি বহু বছর ধরে মানবাধিকার ও সুশাসনের জন্য সক্রিয় প্রচারণা চালিয়ে আসছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

ভারতে শান্তি পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশী নবকুমার রাহা

প্রকাশের সময় : ০৯:৩৪:৪৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২১ মার্চ ২০১৫

ঢাকা: বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলার নবকুমার রাহা নামের এক গান্ধীবাদী পেলেন ‘জি রামচন্দ্র-ইকেদা শান্তি পুরস্কার’। গান্ধীর অহিংস বাণী প্রচার ও দরিদ্র মানুষদের জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা রাখায় তাকে এ পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। নবকুমার রাহা নোয়াখালী গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের পরিচালক। উল্লেখ্য, ১৯৪৬-৪৭ সালে মহাত্মা গান্ধী ৩ মাসেরও বেশি সময় কাটান নোয়াখালীতে। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় আক্রান্ত এ জেলায় গান্ধী গিয়েছিলেন অহিংসার বাণী প্রচারের মাধ্যমে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে। এর প্রায় ৭০ বছর পর এক গান্ধীবাদীই চেষ্টা করছেন অহিংসা বজায় রাখা এবং গরিব ও সংখ্যালঘুদের জন্য কাজ করার মাধ্যমে নোয়াখালীতে মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি ও আদর্শ অটুট রাখতে। ১২ মার্চ বৃহস্প্রতিবার ভারতের রাজধানী দিল্লিতে তার কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ তাকে দেয়া হয় জি রামচন্দ্র-ইকেদা পুরস্কার ২০১৪।
৫১ বছর বয়সী রাহা কয়েক দশক ধরে জড়িত রয়েছেন নোয়াখালী গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের সঙ্গে। নোয়াখালীতে গান্ধীর সফরের সময় এ সংগঠন গড়ে ওঠে। তার বিভিন্ন সামাজিক ও জনহিতৈষী কর্মকান্ডের সুফল পেয়েছে এ জেলার প্রায় ১২ লাখ মানুষ। এ ছাড়া নোয়াখালীর দরিদ্র মানুষজন, বিশেষ করে সংখ্যালঘু হিন্দুদের আশ্রয় স্থল হয়ে উঠেছে এ সংগঠনটি। বাংলাদেশেও নবকুমার রাহা বেশ পরিচিত মুখ। তিনি বহু বছর ধরে মানবাধিকার ও সুশাসনের জন্য সক্রিয় প্রচারণা চালিয়ে আসছেন।