নিউইয়র্ক ১২:৩৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আসুকের ইন্তেকাল

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৩৫:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ নভেম্বর ২০১৪
  • / ১০২৫ বার পঠিত

juri-upazila-chairme mumitরাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত হলেন সিলেটের জুড়ী উপজেলা শহরের উত্তর ভবানীপুর নিবাসী মরহুম এম এ মুছাওয়ীর দ্বিতীয় পুত্র, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জুড়ী টি এন খানম ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুক। গত ২২ নভেম্বর শনিবার রাত সোয়া নয়টায় উপজেলার বাছিরপুরস্থ বাংলাবাড়ীতে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)। তিনি ক্যান্সারসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তিনি স্ত্রী, ২ মেয়ে ও ১ ছেলেসহ বহু আতœীয়-স্বজন রেখে যান। সম্প্রতি তিনি নিউইয়র্ক সফর করেন। উল্লেখ্য, আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুক নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল শাহীনের স্ত্রী তাহেরা খানম মিলু’র বড় ভাই এবং নিউইয়র্কের বিশিষ্ট ইমাম, সমাজকর্মী ও এক্টিভিষ্ট ইমাম কাজী কাইয়ূম ও বিশিষ্ট অটোমোবাইল ব্যবসায়ী কাদির খানের আপন মামা। আলহাজ আসুক বছর তিনেক যাবত ফুসফুস, কিডনী ও ডায়াবেটিক সংক্রান্ত জটিলতায় ভুগছিলেন।
সিলেটের জুড়ী থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুকের মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে তাকে শেষবারের মতো একনজর দেখার জন্য মূহুর্তেই বাংলাবাড়ীতে হাজারো শোকার্ত মানুষের ঢল নামে। পরদিন ২৩ নভেম্বর রোববার বেলা তিনটায় জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম ডিগ্রি কলেজ মাঠে মরহুমে আসুকের জানাজার নামাজ শেষে তার ওসীয়ত অনুযায়ী উত্তর ভবানীপুরের পৈত্রিক বাড়ী সংলগ্ন পারিবারিক গোরস্থানে তার মহীয়সী মা মরহুমা আলহাজ্জ্বা তৈয়বুন নেসা খানম ও মরহুম বাবা সূফী শাইখ মওলোভী মোহাম্মদ আবদুল মুসাওয়ীর বদরপুরীর পদপার্শ্বে দাফন করা হয়।
মরহুম আসুক ঐতিহ্যবাহী গ্রাম্য ব্যবসায়িক শহর জুড়ীকে উপজেলা, থানা, বহু প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাগ্রাসা ও এতীমখানা দিয়েই শুধু সাজাননি বরং একজন চেয়ারম্যান ও উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে জুড়ীকে একটি আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলেছেন। তিনি তার এসব কাজের জন্য প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক স্বর্ণপদকও লাভ করেন এবং সরকারীভাবে বহু দেশ পরিভ্রমন করেন।
আসুক মুমিথ পারিবারিক সূত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৈধ অভিবাসী হয়ে গত ২২ মে ২০১৪ আমেরিকা আসেন এবং এখানের উন্নত চিকিৎসা শেষে গত ৫ অক্টোবর স্বদেশে ফিরে যান। নিউইয়র্কে তার চিকিৎসার সময় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বিশেষ দূত পাঠিয়ে তার চিকিৎসা ও শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন। ঐ সময় তিনি সুস্থ্য হয়ে উঠলে নিউইয়কস্থ জুড়ী সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সমিতি মুহিত আসুকে বৃহদাকারে সংবর্ধনাও প্রদান করে।
photo-1প্রাথমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় ২০১১ সালে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে জাতীয় পদকপ্রাপ্ত শিক্ষানুরাগী মরহুম আসুকের জানাজার পূর্বে পুলিশের একটি চৌকশ দল বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে যথাযথ সম্মান সহকারে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান করে। এছাড়াও বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়। জুড়ীতে সর্বকালের সর্ববৃহৎ এই জানাজায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব শাহাব উদ্দিন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট এবাদুর রহমান চৌধুরী, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের প্রশাসক আজিজুর রহমান, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন কামরানসহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জামায়াত, জাসদের নেতাকর্মী, বিভিন্ন পৌর সভার সাবেক ও বর্তমান মেয়র, বিভিন্ন উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যান এবং জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী জানাজায় শরীক হন।

photo
শোক প্রকাশ: আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল শাহীন, সহ সভাপতি শেখ আতিকুল ইসলাম, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি কমান্ডার নূরুন্নবী, সহ সভাপতি কামাল আহমেদ, মহিউদ্দিন, সৈয়দ আতিকুর রহমান, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক দরুদ মিয়া রনেল ও লিটন আহমেদ।
দোয়া মাহফিল: এদিকে আলহাজ আসুকের মুুত্যু সংবাদ নিউইয়র্কে আসার সাথে সাথে ঐ দিনই বাদ মাগরেব জ্যাকসন হাইটস্থ মোহাম্মদী সেন্টারে তার রুহের মাগফেরাত কামনায় এক বিশেষ ইসলে সাওয়াবের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে একই সাথে তার ছোট ভাই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি এসএম সালেহর (বর্তমানে ব্যাংককে চিকিৎসাধীন) আশু রোগমুক্তির জন্য মহান আল্লাহর নিকট দোয়া কামনা করা হয়।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আসুকের ইন্তেকাল

প্রকাশের সময় : ০৯:৩৫:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ নভেম্বর ২০১৪

juri-upazila-chairme mumitরাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত হলেন সিলেটের জুড়ী উপজেলা শহরের উত্তর ভবানীপুর নিবাসী মরহুম এম এ মুছাওয়ীর দ্বিতীয় পুত্র, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জুড়ী টি এন খানম ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুক। গত ২২ নভেম্বর শনিবার রাত সোয়া নয়টায় উপজেলার বাছিরপুরস্থ বাংলাবাড়ীতে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)। তিনি ক্যান্সারসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তিনি স্ত্রী, ২ মেয়ে ও ১ ছেলেসহ বহু আতœীয়-স্বজন রেখে যান। সম্প্রতি তিনি নিউইয়র্ক সফর করেন। উল্লেখ্য, আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুক নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল শাহীনের স্ত্রী তাহেরা খানম মিলু’র বড় ভাই এবং নিউইয়র্কের বিশিষ্ট ইমাম, সমাজকর্মী ও এক্টিভিষ্ট ইমাম কাজী কাইয়ূম ও বিশিষ্ট অটোমোবাইল ব্যবসায়ী কাদির খানের আপন মামা। আলহাজ আসুক বছর তিনেক যাবত ফুসফুস, কিডনী ও ডায়াবেটিক সংক্রান্ত জটিলতায় ভুগছিলেন।
সিলেটের জুড়ী থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুকের মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে তাকে শেষবারের মতো একনজর দেখার জন্য মূহুর্তেই বাংলাবাড়ীতে হাজারো শোকার্ত মানুষের ঢল নামে। পরদিন ২৩ নভেম্বর রোববার বেলা তিনটায় জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম ডিগ্রি কলেজ মাঠে মরহুমে আসুকের জানাজার নামাজ শেষে তার ওসীয়ত অনুযায়ী উত্তর ভবানীপুরের পৈত্রিক বাড়ী সংলগ্ন পারিবারিক গোরস্থানে তার মহীয়সী মা মরহুমা আলহাজ্জ্বা তৈয়বুন নেসা খানম ও মরহুম বাবা সূফী শাইখ মওলোভী মোহাম্মদ আবদুল মুসাওয়ীর বদরপুরীর পদপার্শ্বে দাফন করা হয়।
মরহুম আসুক ঐতিহ্যবাহী গ্রাম্য ব্যবসায়িক শহর জুড়ীকে উপজেলা, থানা, বহু প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাগ্রাসা ও এতীমখানা দিয়েই শুধু সাজাননি বরং একজন চেয়ারম্যান ও উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে জুড়ীকে একটি আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলেছেন। তিনি তার এসব কাজের জন্য প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক স্বর্ণপদকও লাভ করেন এবং সরকারীভাবে বহু দেশ পরিভ্রমন করেন।
আসুক মুমিথ পারিবারিক সূত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৈধ অভিবাসী হয়ে গত ২২ মে ২০১৪ আমেরিকা আসেন এবং এখানের উন্নত চিকিৎসা শেষে গত ৫ অক্টোবর স্বদেশে ফিরে যান। নিউইয়র্কে তার চিকিৎসার সময় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বিশেষ দূত পাঠিয়ে তার চিকিৎসা ও শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন। ঐ সময় তিনি সুস্থ্য হয়ে উঠলে নিউইয়কস্থ জুড়ী সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সমিতি মুহিত আসুকে বৃহদাকারে সংবর্ধনাও প্রদান করে।
photo-1প্রাথমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় ২০১১ সালে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে জাতীয় পদকপ্রাপ্ত শিক্ষানুরাগী মরহুম আসুকের জানাজার পূর্বে পুলিশের একটি চৌকশ দল বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে যথাযথ সম্মান সহকারে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান করে। এছাড়াও বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়। জুড়ীতে সর্বকালের সর্ববৃহৎ এই জানাজায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব শাহাব উদ্দিন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট এবাদুর রহমান চৌধুরী, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের প্রশাসক আজিজুর রহমান, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন কামরানসহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জামায়াত, জাসদের নেতাকর্মী, বিভিন্ন পৌর সভার সাবেক ও বর্তমান মেয়র, বিভিন্ন উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যান এবং জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী জানাজায় শরীক হন।

photo
শোক প্রকাশ: আলহাজ্ব এম এ মুমিত আসুকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল শাহীন, সহ সভাপতি শেখ আতিকুল ইসলাম, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি কমান্ডার নূরুন্নবী, সহ সভাপতি কামাল আহমেদ, মহিউদ্দিন, সৈয়দ আতিকুর রহমান, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক দরুদ মিয়া রনেল ও লিটন আহমেদ।
দোয়া মাহফিল: এদিকে আলহাজ আসুকের মুুত্যু সংবাদ নিউইয়র্কে আসার সাথে সাথে ঐ দিনই বাদ মাগরেব জ্যাকসন হাইটস্থ মোহাম্মদী সেন্টারে তার রুহের মাগফেরাত কামনায় এক বিশেষ ইসলে সাওয়াবের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে একই সাথে তার ছোট ভাই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি এসএম সালেহর (বর্তমানে ব্যাংককে চিকিৎসাধীন) আশু রোগমুক্তির জন্য মহান আল্লাহর নিকট দোয়া কামনা করা হয়।