নিউইয়র্ক ১১:৫৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

আগামী নির্বাচনে খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণের সুযোগ নেই : তথ্যমন্ত্রী

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১০:৪১:৪৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১ জুলাই ২০১৫
  • / ৫২৮ বার পঠিত

ঢাকা: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণের সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎটা হচ্ছে তাকে রাজনীতির বাইরেই থাকতে হবে এবং আদালতে বারান্দায় দাঁড়াতে হবে। ২০১৯ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে গণতান্ত্রিক শক্তির সঙ্গে গণতান্ত্রিক শক্তির নির্বাচন। সেই নির্বাচনে গণতন্ত্রের অচল মাল সচল করার সুযোগ নেই। খালেদা জিয়ারও অংশগ্রহণের সুযোগ নেই। শনিবার (২৭ জুন) সকালে জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব মন্তব্য করেন ইনু।
জাসদ সভাপতি ইনু বলেন, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে অগণতান্ত্রিক শক্তিকে সুযোগ দিলে গণতন্ত্রের দুর্যোগ নেমে আসে। গণতন্ত্রে ছোবল মারে। যেমনটি মারছে জামায়াত, যুদ্ধাপরাধী ও জঙ্গিবাদীরা। হাসানুল হক ইনু বলেন, খালেদা জিয়া যে রাজনীতি করছেন এই রাজনীতির দিন শেষ। বাংলাদেশে আর কোনদিন পাকিস্তান মার্কা, মুসলিম লীগ মার্কা নেজামে ইসলাম মার্কা, সামরিক শাসন মার্কা, জামায়াতে ইসলাম মার্কা রাজনীতি চলবে না। শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে সম্মুখ যাত্রার যে মহাসড়কে টেনে তুলেছেন সেই মহাসড়কে বেগম খালেদা জিয়ার কোন জায়গা নেই। সুতরাং কোনদিন আর বাংলাদেশে রাজাকার সমর্থিত, সামরিক সমর্থিক কোন সরকার আসবেনা। শেখ হাসিনার বিকল্প খালেদা জিয়া কখনই নন।
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আরও কয়েক বছর দেশ পরিচালিত হলে এই সংসদে ৭ লাখ কোটি টাকার বাজেট দেওয়া হবে বলেও দাবি করেন হাসানুল হক ইনু।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

আগামী নির্বাচনে খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণের সুযোগ নেই : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ১০:৪১:৪৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১ জুলাই ২০১৫

ঢাকা: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণের সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎটা হচ্ছে তাকে রাজনীতির বাইরেই থাকতে হবে এবং আদালতে বারান্দায় দাঁড়াতে হবে। ২০১৯ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে গণতান্ত্রিক শক্তির সঙ্গে গণতান্ত্রিক শক্তির নির্বাচন। সেই নির্বাচনে গণতন্ত্রের অচল মাল সচল করার সুযোগ নেই। খালেদা জিয়ারও অংশগ্রহণের সুযোগ নেই। শনিবার (২৭ জুন) সকালে জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব মন্তব্য করেন ইনু।
জাসদ সভাপতি ইনু বলেন, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে অগণতান্ত্রিক শক্তিকে সুযোগ দিলে গণতন্ত্রের দুর্যোগ নেমে আসে। গণতন্ত্রে ছোবল মারে। যেমনটি মারছে জামায়াত, যুদ্ধাপরাধী ও জঙ্গিবাদীরা। হাসানুল হক ইনু বলেন, খালেদা জিয়া যে রাজনীতি করছেন এই রাজনীতির দিন শেষ। বাংলাদেশে আর কোনদিন পাকিস্তান মার্কা, মুসলিম লীগ মার্কা নেজামে ইসলাম মার্কা, সামরিক শাসন মার্কা, জামায়াতে ইসলাম মার্কা রাজনীতি চলবে না। শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে সম্মুখ যাত্রার যে মহাসড়কে টেনে তুলেছেন সেই মহাসড়কে বেগম খালেদা জিয়ার কোন জায়গা নেই। সুতরাং কোনদিন আর বাংলাদেশে রাজাকার সমর্থিত, সামরিক সমর্থিক কোন সরকার আসবেনা। শেখ হাসিনার বিকল্প খালেদা জিয়া কখনই নন।
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আরও কয়েক বছর দেশ পরিচালিত হলে এই সংসদে ৭ লাখ কোটি টাকার বাজেট দেওয়া হবে বলেও দাবি করেন হাসানুল হক ইনু।