নিউইয়র্ক ০৬:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

তমিজ উদদীন লোদী’র দু’টি কবিতা

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১০:৪৯:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর ২০১৫
  • / ১৩৬৯ বার পঠিত

১.
শিল্পী ও শব্দবীজ

বারে বারে নির্মাণ করে তুমি যে তল খুঁজে চলেছো তা-ই আসলে জীবন। সব অনুষঙ্গ যেন ভাঁজ করে
রেখেছো অঙ্কিত চিত্রণে । মনে হচ্ছে এটিই একমাত্র কিংবা সর্বশেষ চিত্রকল্প । কিংবা জন্মের শব্দবীজ
উপ্ত হয়ে আছে অদৃশ্য কোনো আলোছায়াচক্রে । যেন বিরতিহীন হেমন্তের মধ্যরাত । চারপাশ মাত
হয়ে আছে অঘ্রাণের ঘ্রাণে । এইসবও হতে পারে ।

নির্মাণ করো প্রায় মরে যাওয়া নদী । ক্ষীণতোয়া সোঁতা । কখনো ঝড়ের দৃশ্য । কখনোবা
পাখির কোরাসের যুগলবন্দী । সোনালি রঙের ছোটখাটো এক ধূর্ত শেয়াল । কিংবা ময়ূরীর সাথে
হাড়গিলে । হরিণের সাথে হিংস্র চিতা । শিকারের পেছনে হন্যে দৌড় । কিংবা মনুষ্য প্রজাতির

বর্ণনাতীত নৃশংসতা । স্তুুপ স্তুুপ অন্ধকারে ঢেকে যাওয়া চারপাশ ।
হতে পারে,এইসবও হতে পারে ।

২.
একদিন ট্রাফিক সিগন্যালে

সারা রাস্তায় লাল চোখ জ্বলে
সার সার গাড়িগুলো ধৈর্য্যরে ঠোঁট চাটে
চারপাশে হিম ঝাড় ,হিমসিক্ত পাতা ঝরে পড়ে ।
পাতাল ফুঁড়ে চলে ট্রেন, স্তব্ধ মাটি কাঁপে
মানুষের মুখ ভেঙেচুরে পরাবাস্তব ঘোড়া হয়ে ওঠে ।

কেন যেন মনে হয় মানুষ প্রকৃতির কাছে অষ্টাবক্র নুলো হয়ে আছে ।
আদিপৃথিবীর কাছে আদিম ও নগ্ন হয়ে আছে ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

তমিজ উদদীন লোদী’র দু’টি কবিতা

প্রকাশের সময় : ১০:৪৯:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর ২০১৫

১.
শিল্পী ও শব্দবীজ

বারে বারে নির্মাণ করে তুমি যে তল খুঁজে চলেছো তা-ই আসলে জীবন। সব অনুষঙ্গ যেন ভাঁজ করে
রেখেছো অঙ্কিত চিত্রণে । মনে হচ্ছে এটিই একমাত্র কিংবা সর্বশেষ চিত্রকল্প । কিংবা জন্মের শব্দবীজ
উপ্ত হয়ে আছে অদৃশ্য কোনো আলোছায়াচক্রে । যেন বিরতিহীন হেমন্তের মধ্যরাত । চারপাশ মাত
হয়ে আছে অঘ্রাণের ঘ্রাণে । এইসবও হতে পারে ।

নির্মাণ করো প্রায় মরে যাওয়া নদী । ক্ষীণতোয়া সোঁতা । কখনো ঝড়ের দৃশ্য । কখনোবা
পাখির কোরাসের যুগলবন্দী । সোনালি রঙের ছোটখাটো এক ধূর্ত শেয়াল । কিংবা ময়ূরীর সাথে
হাড়গিলে । হরিণের সাথে হিংস্র চিতা । শিকারের পেছনে হন্যে দৌড় । কিংবা মনুষ্য প্রজাতির

বর্ণনাতীত নৃশংসতা । স্তুুপ স্তুুপ অন্ধকারে ঢেকে যাওয়া চারপাশ ।
হতে পারে,এইসবও হতে পারে ।

২.
একদিন ট্রাফিক সিগন্যালে

সারা রাস্তায় লাল চোখ জ্বলে
সার সার গাড়িগুলো ধৈর্য্যরে ঠোঁট চাটে
চারপাশে হিম ঝাড় ,হিমসিক্ত পাতা ঝরে পড়ে ।
পাতাল ফুঁড়ে চলে ট্রেন, স্তব্ধ মাটি কাঁপে
মানুষের মুখ ভেঙেচুরে পরাবাস্তব ঘোড়া হয়ে ওঠে ।

কেন যেন মনে হয় মানুষ প্রকৃতির কাছে অষ্টাবক্র নুলো হয়ে আছে ।
আদিপৃথিবীর কাছে আদিম ও নগ্ন হয়ে আছে ।