নিউইয়র্ক ০১:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

প্রধানমন্ত্রীর ‘চ্যাম্পিয়নস অফ দি আর্থ’ পুরস্কার গ্রহণ

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৩:৫৬:০৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর ২০১৫
  • / ১২৪৩ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় ‘বিচক্ষণ নেতৃত্বের’ স্বীকৃতি হিসেবে জাতিসংঘের ‘চ্যাম্পিয়নস অফ দি আর্থ’ পুরস্কার গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ পুরস্কার বাংলাদেশের মানুষের প্রতি উৎসর্গ করে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলার মানুষ শিখেছে- কীভাবে দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হয়, কঠিন সময়ে কীভাবে বাঁচতে হয়। আর আমরা তা করছি নিজেদের সম্পদ ব্যবহার করে। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় আমাদের জনগণের ঐকান্তিকতা ও দৃঢ়তার স্বীকৃতি এই পুরস্কার বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। ২৭ সেপ্টেম্বর রোববার নিউইয়র্কে এক অনুষ্ঠানে জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ও জাতিসংঘ পরিবেশ কর্মসূচির (ইউএনইপি) নির্বাহী পরিচালক অ্যাচিম স্টেইনার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলবায় পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় অনেক দেশ বাংলাদেশকে অনেক প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবে উল্লেখযোগ্য কোনো অর্থ বা সহায়তা পাওয়া যায়নি। এ কারণে আমরা নিজেদের সম্পদ ব্যবহার করেছি, আর নিজস্ব পরিকল্পনা নিয়ে দেশ বাঁচাতে মানুষ বাঁচাতে কাজ করছি। দুর্যোগ মোকাবেলা করতে শিখেছে বাংলাদেশ।
জাতিসংঘের পুরস্কার গ্রহণ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা: চলতি বছর শেখ হাসিনাকে জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক এই সর্বোচ্চ পুরস্কার দেয়া হল ‘পলিসি লিডারশিপ’ ক্যাটাগরিতে। প্রতিবেশগতভাবে ‘নাজুক অবস্থায় থাকা’ বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের ‘সামগ্রিক পদক্ষেপের স্বীকৃতি’ এই পুরস্কার।
প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও ‘ইনসপিরেশন অ্যান্ড অ্যাকশন’ ক্যাটাগরিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বন্যপ্রাণী রক্ষাকর্মীদের দল ব্ল্যাক মামবা এপিইউ, ‘সায়েন্স অ্যান্ড ইনোভেশন’ ক্যাটাগরিতে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক সোসাইটি, ‘এন্টারপ্রেনারিয়াল ভিশন’ ক্যাটাগরিতে ব্রাজিলের প্রসাধনী প্রস্তুতকারক কোম্পানি নেটুরা এ পুরস্কার পেয়েছে।
গত ১৪ সেপ্টেম্বর ইউএনইপি প্রধানমন্ত্রীকে এ পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল। ওই সময় ইউএনইপির নির্বাহী পরিচালক অচিম স্টেইনার বলেছিলেন, জলবায়ু পরিবর্তনকে জাতীয়ভাবে অগ্রাধিকারমূলক একটি ইস্যু হিসেবে গ্রহণ এবং উচ্চাকাঙ্ক্ষী বৈশ্বিক প্রতিক্রিয়ার জন্য সোচ্চার হওয়ার ক্ষেত্রে শেখ হাসিনা নেতৃত্ব ও দূরদৃষ্টির পরিচয় দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, পরিবেশ নিয়ে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ২০০৪ সাল থেকে প্রতিবছর পলিসি, বিজ্ঞান, উদ্যোক্তা এবং অনুপ্রেরণামূলক কর্মকান্ড- এই চারটি ক্যাটাগরিতে ‘চ্যাম্পিয়নস অব দ্য আর্থ’ পুরস্কার দিয়ে আসছে ইউএনইপি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

প্রধানমন্ত্রীর ‘চ্যাম্পিয়নস অফ দি আর্থ’ পুরস্কার গ্রহণ

প্রকাশের সময় : ০৩:৫৬:০৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর ২০১৫

নিউইয়র্ক: জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় ‘বিচক্ষণ নেতৃত্বের’ স্বীকৃতি হিসেবে জাতিসংঘের ‘চ্যাম্পিয়নস অফ দি আর্থ’ পুরস্কার গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ পুরস্কার বাংলাদেশের মানুষের প্রতি উৎসর্গ করে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলার মানুষ শিখেছে- কীভাবে দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হয়, কঠিন সময়ে কীভাবে বাঁচতে হয়। আর আমরা তা করছি নিজেদের সম্পদ ব্যবহার করে। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় আমাদের জনগণের ঐকান্তিকতা ও দৃঢ়তার স্বীকৃতি এই পুরস্কার বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। ২৭ সেপ্টেম্বর রোববার নিউইয়র্কে এক অনুষ্ঠানে জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ও জাতিসংঘ পরিবেশ কর্মসূচির (ইউএনইপি) নির্বাহী পরিচালক অ্যাচিম স্টেইনার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলবায় পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় অনেক দেশ বাংলাদেশকে অনেক প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবে উল্লেখযোগ্য কোনো অর্থ বা সহায়তা পাওয়া যায়নি। এ কারণে আমরা নিজেদের সম্পদ ব্যবহার করেছি, আর নিজস্ব পরিকল্পনা নিয়ে দেশ বাঁচাতে মানুষ বাঁচাতে কাজ করছি। দুর্যোগ মোকাবেলা করতে শিখেছে বাংলাদেশ।
জাতিসংঘের পুরস্কার গ্রহণ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা: চলতি বছর শেখ হাসিনাকে জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক এই সর্বোচ্চ পুরস্কার দেয়া হল ‘পলিসি লিডারশিপ’ ক্যাটাগরিতে। প্রতিবেশগতভাবে ‘নাজুক অবস্থায় থাকা’ বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের ‘সামগ্রিক পদক্ষেপের স্বীকৃতি’ এই পুরস্কার।
প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও ‘ইনসপিরেশন অ্যান্ড অ্যাকশন’ ক্যাটাগরিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বন্যপ্রাণী রক্ষাকর্মীদের দল ব্ল্যাক মামবা এপিইউ, ‘সায়েন্স অ্যান্ড ইনোভেশন’ ক্যাটাগরিতে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক সোসাইটি, ‘এন্টারপ্রেনারিয়াল ভিশন’ ক্যাটাগরিতে ব্রাজিলের প্রসাধনী প্রস্তুতকারক কোম্পানি নেটুরা এ পুরস্কার পেয়েছে।
গত ১৪ সেপ্টেম্বর ইউএনইপি প্রধানমন্ত্রীকে এ পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল। ওই সময় ইউএনইপির নির্বাহী পরিচালক অচিম স্টেইনার বলেছিলেন, জলবায়ু পরিবর্তনকে জাতীয়ভাবে অগ্রাধিকারমূলক একটি ইস্যু হিসেবে গ্রহণ এবং উচ্চাকাঙ্ক্ষী বৈশ্বিক প্রতিক্রিয়ার জন্য সোচ্চার হওয়ার ক্ষেত্রে শেখ হাসিনা নেতৃত্ব ও দূরদৃষ্টির পরিচয় দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, পরিবেশ নিয়ে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ২০০৪ সাল থেকে প্রতিবছর পলিসি, বিজ্ঞান, উদ্যোক্তা এবং অনুপ্রেরণামূলক কর্মকান্ড- এই চারটি ক্যাটাগরিতে ‘চ্যাম্পিয়নস অব দ্য আর্থ’ পুরস্কার দিয়ে আসছে ইউএনইপি।