নিউইয়র্ক ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

এক স্লিপ

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১০:৪১:১৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ নভেম্বর ২০১৪
  • / ৮৮২ বার পঠিত

যুক্তরাষ্ট্র সফর করছেন প্রবীণ রাজনীতিক, সিলেট জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আব্দুস জহির চৌধুরী সুফিয়ান। এটি তার প্রথম যুক্তরাষ্ট্র সফর হলেও ইতিপূর্বে তিনি লন্ডন সফর করেছেন। তার অনেক নিকটাতœীয় লন্ডন আর নিউইয়র্কে বাস করেন । তাকে ঘিরে উৎফুল্ল নিউইয়র্কের প্রবাসী সিলেটবাসী, আনন্দিত যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী। ইতিমধ্যেই একাধিক সভা-সমাবেশে অতিথি হিসেবে যোগ দিয়েছেন তিনি। তার সম্মানে সর্বজনীন সম্বর্ধনা সভাও হয়েছে। এমনি এক সভায় বক্তৃতা করার সময় জহির চৌধুরী ‘যুক্তরাষ্ট্র’ বলতে গিয়ে বারবার ‘যুক্তরাজ্য’ বলছিলেন। তার এই ভুল (সিøপ অপ টাংগ) শুধরে দেয়ার পরও তিনি অবচেতনেই ‘যুক্তরাষ্ট্র’ কে ‘যুক্তরাজ্য’ বলছিলেন। তিনি বললেন, আমাদের অনেকেই লন্ডনে থাকেন তো, তাই কথায় কথায় যুক্তরাজ্য চলে আসে। তো যুক্তরাষ্ট্রে যুক্তরাজ্যের কথাটি শুনতে খারাপ, বিব্রতকর আর বেমানান লাগায় অনুষ্ঠানের এক বক্তা তাৎক্ষনিক পরামর্শ দিলেন ‘আপনি আমেরিকা বলুন’। বুদ্ধিমান জননেতা লুফে নিলেন পরামর্শটি। সেই সাথে রক্ষাও পেলেন বিব্রতকর অবস্থা থেকে। স্বস্তি পেলেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলে। ১১ নভেম্বর’২০১৪ (সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

এক স্লিপ

প্রকাশের সময় : ১০:৪১:১৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ নভেম্বর ২০১৪

যুক্তরাষ্ট্র সফর করছেন প্রবীণ রাজনীতিক, সিলেট জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আব্দুস জহির চৌধুরী সুফিয়ান। এটি তার প্রথম যুক্তরাষ্ট্র সফর হলেও ইতিপূর্বে তিনি লন্ডন সফর করেছেন। তার অনেক নিকটাতœীয় লন্ডন আর নিউইয়র্কে বাস করেন । তাকে ঘিরে উৎফুল্ল নিউইয়র্কের প্রবাসী সিলেটবাসী, আনন্দিত যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী। ইতিমধ্যেই একাধিক সভা-সমাবেশে অতিথি হিসেবে যোগ দিয়েছেন তিনি। তার সম্মানে সর্বজনীন সম্বর্ধনা সভাও হয়েছে। এমনি এক সভায় বক্তৃতা করার সময় জহির চৌধুরী ‘যুক্তরাষ্ট্র’ বলতে গিয়ে বারবার ‘যুক্তরাজ্য’ বলছিলেন। তার এই ভুল (সিøপ অপ টাংগ) শুধরে দেয়ার পরও তিনি অবচেতনেই ‘যুক্তরাষ্ট্র’ কে ‘যুক্তরাজ্য’ বলছিলেন। তিনি বললেন, আমাদের অনেকেই লন্ডনে থাকেন তো, তাই কথায় কথায় যুক্তরাজ্য চলে আসে। তো যুক্তরাষ্ট্রে যুক্তরাজ্যের কথাটি শুনতে খারাপ, বিব্রতকর আর বেমানান লাগায় অনুষ্ঠানের এক বক্তা তাৎক্ষনিক পরামর্শ দিলেন ‘আপনি আমেরিকা বলুন’। বুদ্ধিমান জননেতা লুফে নিলেন পরামর্শটি। সেই সাথে রক্ষাও পেলেন বিব্রতকর অবস্থা থেকে। স্বস্তি পেলেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলে। ১১ নভেম্বর’২০১৪ (সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)