নিউইয়র্ক ১১:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

মুক্তিযুদ্ধের রেকর্ড বাংলাদেশকে উপহার দিল ভারত

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৫:৫৩:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৪
  • / ৬৫৭ বার পঠিত

নয়াদিল্লী:  ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক ও মূল্যবান ‘রেডিও রেকর্ড’ উপহার দিল ভারত। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সম্প্রতি (১৮-২৩ ডিসেম্বর’২০১৪) ভারত সফরকালে অল ইন্ডিয়া রেডিওর (এআইআর) কর্তৃপক্ষ রাষ্ট্রপতির হাতে এই উপহার তুলে দেয়। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন ধরে ভারতের কাছ থেকে এই মূল্যবান রেডিও রেকর্ড পাওয়ার জন্য দেনদরবার চলছিল। অবশেষে ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির অনুরোধে বাংলাদেশকে তা উপহার হিসেবে দিল এআইআর।
মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ও মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ দুই দেশের শীর্ষ নেতাদের ভাষণ, বক্তব্য, সাক্ষাৎকার নিয়ে এসব রেকর্ড সিডি আকারে সংরক্ষণ করে এআইআর। রেকর্ডের অনেক বিষয় বাংলাদেশে সংরক্ষিত নেই। যা আছে, তার আবার মূল রেকর্ড নেই। গুরুত্বপূর্ণ এই ডকুমেন্ট মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে আরো সমৃদ্ধ করবে।
ঐতিহাসিক এই রেকর্ডে আরো রয়েছে ১৯৭২ সালের জানুয়ারিতে সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ। এ ছাড়া ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণ নিয়ে দেওয়া বক্তব্য, সাক্ষাৎকারও এতে রয়েছে। দুটি সিডি আকারে ঐতিহাসিক সেই রেকর্ড বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতিকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। একটি সিডির শিরোনাম ‘স্ট্রাগল অব আ নেশন’। ১৯৭১ সালের মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত আকাশবাণী কলকাতায় প্রচারিত গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার রেকর্ডগুলো এতে স্থান পেয়েছে।
‘সংবাদ বিচিত্রা’ শীর্ষক নিউজ-রিলও এতে স্থান পেয়েছে। আকাশবাণীর প্রচারিত সংবাদ বিচিত্রা মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রেরণার একটি উৎস ছিল। দ্বিতীয় সিডির শিরোনাম ‘লিবারেশন অব বাংলাদেশ’। আকাশবাণী দিলি¬ থেকে প্রচারিত রেকর্ডগুলো এতে স্থান পেয়েছে। ১৬ ডিসেম্বর ঢাকায় পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণ, বঙ্গবন্ধু ও ইন্দিরা গান্ধীর ভাষণ, তাদের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা, ভারতের লোকসভার বিবৃতি এবং বাংলাদেশে ঘটে যাওয়ার নানা ঘটনা এই সিডিতে স্থান পেয়েছে। সরকারিভাবে সিডি দুটি সংরক্ষণ করবে বাংলাদেশ। মুক্তিযুদ্ধের সময় আকাশবাণী কলকাতার ভূমিকা ছিল বাংলাদেশের মুখপত্রের মতো। ফলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ রেকর্ড সেখানে জমা হয়। তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

মুক্তিযুদ্ধের রেকর্ড বাংলাদেশকে উপহার দিল ভারত

প্রকাশের সময় : ০৫:৫৩:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৪

নয়াদিল্লী:  ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক ও মূল্যবান ‘রেডিও রেকর্ড’ উপহার দিল ভারত। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সম্প্রতি (১৮-২৩ ডিসেম্বর’২০১৪) ভারত সফরকালে অল ইন্ডিয়া রেডিওর (এআইআর) কর্তৃপক্ষ রাষ্ট্রপতির হাতে এই উপহার তুলে দেয়। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন ধরে ভারতের কাছ থেকে এই মূল্যবান রেডিও রেকর্ড পাওয়ার জন্য দেনদরবার চলছিল। অবশেষে ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির অনুরোধে বাংলাদেশকে তা উপহার হিসেবে দিল এআইআর।
মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ও মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ দুই দেশের শীর্ষ নেতাদের ভাষণ, বক্তব্য, সাক্ষাৎকার নিয়ে এসব রেকর্ড সিডি আকারে সংরক্ষণ করে এআইআর। রেকর্ডের অনেক বিষয় বাংলাদেশে সংরক্ষিত নেই। যা আছে, তার আবার মূল রেকর্ড নেই। গুরুত্বপূর্ণ এই ডকুমেন্ট মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে আরো সমৃদ্ধ করবে।
ঐতিহাসিক এই রেকর্ডে আরো রয়েছে ১৯৭২ সালের জানুয়ারিতে সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ। এ ছাড়া ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণ নিয়ে দেওয়া বক্তব্য, সাক্ষাৎকারও এতে রয়েছে। দুটি সিডি আকারে ঐতিহাসিক সেই রেকর্ড বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতিকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। একটি সিডির শিরোনাম ‘স্ট্রাগল অব আ নেশন’। ১৯৭১ সালের মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত আকাশবাণী কলকাতায় প্রচারিত গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার রেকর্ডগুলো এতে স্থান পেয়েছে।
‘সংবাদ বিচিত্রা’ শীর্ষক নিউজ-রিলও এতে স্থান পেয়েছে। আকাশবাণীর প্রচারিত সংবাদ বিচিত্রা মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রেরণার একটি উৎস ছিল। দ্বিতীয় সিডির শিরোনাম ‘লিবারেশন অব বাংলাদেশ’। আকাশবাণী দিলি¬ থেকে প্রচারিত রেকর্ডগুলো এতে স্থান পেয়েছে। ১৬ ডিসেম্বর ঢাকায় পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণ, বঙ্গবন্ধু ও ইন্দিরা গান্ধীর ভাষণ, তাদের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা, ভারতের লোকসভার বিবৃতি এবং বাংলাদেশে ঘটে যাওয়ার নানা ঘটনা এই সিডিতে স্থান পেয়েছে। সরকারিভাবে সিডি দুটি সংরক্ষণ করবে বাংলাদেশ। মুক্তিযুদ্ধের সময় আকাশবাণী কলকাতার ভূমিকা ছিল বাংলাদেশের মুখপত্রের মতো। ফলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ রেকর্ড সেখানে জমা হয়। তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।