নিউইয়র্ক ১১:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা গলায় ঘা রোগে ভুগছেন

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৪:৪৯:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৪
  • / ১১২২ বার পঠিত

ওয়াশিংটন ডিসি: প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা গলায় ঘা রোগে ভুগছেন। বিষয়টি পরীক্ষা করাতে শনিবার একটি হাসপাতালে যান তিনি। হোয়াইট হাউস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
ওবামার চিকিৎসক জানান, কয়েক সপ্তাহ ধরে অ্যাসিড প্রদাহের কারণে সৃষ্ট গলার ঘায়ে ভুগছেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। শনিবার ওবামা ফাইবার অপটিক্যাল পরীক্ষার পাশাপাশি সিটি স্ক্যান করিয়েছেন। পাকস্থলীতে অ্যাসিড প্রদাহের ফলে গলা ছিদ্র হওয়া সাধারণ একটি বিষয়। এটি কোনো মারাত্মক রোগ নয় বলেও জানান ওই চিকিৎসক। এক বিবৃতিতে ওবামার চিকিৎসক রুনি এল জ্যাকসন বলেন, ‘ফাইবার অপটিক্যাল পরীক্ষায় দেখা গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত গলা সফট টিস্যুর কারণে ফুলে গেছে। এ ব্যাপারে আরও মূল্যায়ন করতে রুটিন মাফিক সিটি স্ক্যান করারও সিদ্ধান্ত নেন ওবামা।’ জ্যাকসন আরও বলেন, ‘ওলাটার রিড সামরিক হাসপাতালে’ তিনি সিটি স্ক্যান করান। তবে ফলাফল স্বাভাবিক পাওয়া যায়।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা গলায় ঘা রোগে ভুগছেন

প্রকাশের সময় : ০৪:৪৯:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৪

ওয়াশিংটন ডিসি: প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা গলায় ঘা রোগে ভুগছেন। বিষয়টি পরীক্ষা করাতে শনিবার একটি হাসপাতালে যান তিনি। হোয়াইট হাউস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
ওবামার চিকিৎসক জানান, কয়েক সপ্তাহ ধরে অ্যাসিড প্রদাহের কারণে সৃষ্ট গলার ঘায়ে ভুগছেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। শনিবার ওবামা ফাইবার অপটিক্যাল পরীক্ষার পাশাপাশি সিটি স্ক্যান করিয়েছেন। পাকস্থলীতে অ্যাসিড প্রদাহের ফলে গলা ছিদ্র হওয়া সাধারণ একটি বিষয়। এটি কোনো মারাত্মক রোগ নয় বলেও জানান ওই চিকিৎসক। এক বিবৃতিতে ওবামার চিকিৎসক রুনি এল জ্যাকসন বলেন, ‘ফাইবার অপটিক্যাল পরীক্ষায় দেখা গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত গলা সফট টিস্যুর কারণে ফুলে গেছে। এ ব্যাপারে আরও মূল্যায়ন করতে রুটিন মাফিক সিটি স্ক্যান করারও সিদ্ধান্ত নেন ওবামা।’ জ্যাকসন আরও বলেন, ‘ওলাটার রিড সামরিক হাসপাতালে’ তিনি সিটি স্ক্যান করান। তবে ফলাফল স্বাভাবিক পাওয়া যায়।