নিউইয়র্ক ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস ৪ জুলাই : বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, কনসার্ট, বারবিকিউ, বনভোজন ও পারিবারিক সম্মিলনের আয়োজন : নিরাপত্তা আশঙ্কা

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৫:৩৯:০০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ জুলাই ২০১৫
  • / ৯৪০ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস ৪ জুলাই। ১৭৭৬ সালের এই দিনে দেশটি ব্রিটিশদের অধীন থেকে মুক্ত হয়। দিনটি জাতীয় দিবস হওয়ায় ৪ জুলাই দেশটিতে জাতীয় ছুটি পালিত হয়। বর্ণাঢ্য আয়োজনে দিনটি পালন করা হয়। অনুষ্ঠানমালর মধ্যে রয়েছে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, কনসার্ট, বারবিকিউ, বনভোজন ও পারিবারিক সম্মিলন।
ইতিহাস বলে: আমেরিকা বিপ্লবের মাধ্যমে ১৭৭৬ সালের ২ জুলাই গ্রেট ব্রিটেনের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ১৩ টি উপনিবেশ মুক্ত হয়। এরপর ৪ জুলাই চূড়ান্তভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়া হয়। এ ছাড়া দিনটি আরও নানা দিক থেকে তাৎপর্যপূর্ণ। দেশটির স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে একমাত্র স্বাক্ষরকারী দুজন জন এডামস ও থমাস জেফারসন একইদিন অর্থাৎ ১৮২৬ সালের ৪ জুলাই মারা যান। ওই বছর ছিল স্বাধীনতার ৫০ বছর। এ ছাড়া অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা জনক জেমস মনরো, যিনি পরবর্তীতে দেশটির প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন, তিনিও মারা যান ৪ জুলাই। তবে সালটি ছিল ১৮৩১। যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তিনি দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছেন। সবদিক মিলিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এখন বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী দেশ।
এদিকে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে: নিরাপত্তা আশঙ্কার মধ্য দিয়ে এবার যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হচ্ছে। নিরাপত্তা বিঘিœত হতে পারে এই শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রে একটি বিমান ঘাঁটিতে পূর্ব নির্ধারিত একটি অনুষ্ঠানও বাতিল করা হয়েছে।
খবরে বলা হয়েছে: কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দেশটির নাগরিকরা ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। আয়োজন করা হয়েছে স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজ। আতশবাজির আয়োজনও আছে ব্যাপকভাবে। তবে পূর্ব উপকূলের সমুদ্র সৈকতে হামলা এবং পশ্চিমের দাবানল এই নিরাপত্তার শঙ্কা আরো বৃদ্ধি করেছে।
সম্প্রতি ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হুমকি বিবেচনা করে ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটি এবং ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছে। নিউইয়র্ক গভর্নর অ্যান্ড্রিউ কুওমো রাজ্যজুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্ক শহরে প্রায় সাত হাজার কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে যারা সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিটের। নিউইয়র্ক পুুলিশ কমিশনার বিল ব্রাটন বলেন, আমরা সবসময়ই চেষ্টা করি নতুন কিছু করতে এবং সহিংসতা প্রতিরোধ করতে। এমন নয় যে, একটা কিছু ঘটলো এবং তখন আমরা কিছু একটা করলাম।
ওয়াশিংটনের প্যারেড, কনসার্ট এবং আতশবাজির খেলায় হাজার হাজার মানুষ অংশ নিবে বলে আশা করা হচ্ছে। এখানে সাড়ে ছয় হাজার শেল ব্যবহার করা হবে। ন্যাশনাল পার্ক প্রায় সাড়ে তিন মাইল জুড়ে চেইন দিয়ে ঘিরে রেখেছে। এছাড়া ১৪শ হাজার ফুটের বাইকেল ঝুলিয়ে রাখার তাক তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া নাগরিকদের সুবিধার্থে সাড়ে ৩শ টয়লেট তৈরি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) নৌবাহিনীর একটি ঘাঁটিতে গুলি বিনিময়ের ঘটনার খবর যখন পাওয়া যায়, তখন ওয়াশিংটনে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় বিঘ্ন ঘটার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়। পুলিশ প্রধান ক্যাথি লেনিয়ার সাংবাদিকদের বলেন, পুলিশ রবিবার ছুটির দিনেও ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রস্তুত রয়েছে।
পশ্চিমাঞ্চলে দাবানল দেখা দেয়ার পর ওয়াশিংটন, ওরেগন রাজ্যে আতশবাজি ফুটানোর বিষয়ে নাগরিকদের সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। কুপারটিনো, ক্যালিফোর্নিয়া এবং আলাস্কার বৃহৎ শহর আনকোজে আতশবাজির খেলা বাতিল করা হয়েছে। তবে নাগরিকদের বেশিরভাগই এসব নিরাপত্তার শঙ্কাকে পাত্তা দিচ্ছেন না, তারা মাতৃভূমির স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়েই বাইরে আসছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস ৪ জুলাই : বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, কনসার্ট, বারবিকিউ, বনভোজন ও পারিবারিক সম্মিলনের আয়োজন : নিরাপত্তা আশঙ্কা

প্রকাশের সময় : ০৫:৩৯:০০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ জুলাই ২০১৫

নিউইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস ৪ জুলাই। ১৭৭৬ সালের এই দিনে দেশটি ব্রিটিশদের অধীন থেকে মুক্ত হয়। দিনটি জাতীয় দিবস হওয়ায় ৪ জুলাই দেশটিতে জাতীয় ছুটি পালিত হয়। বর্ণাঢ্য আয়োজনে দিনটি পালন করা হয়। অনুষ্ঠানমালর মধ্যে রয়েছে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, কনসার্ট, বারবিকিউ, বনভোজন ও পারিবারিক সম্মিলন।
ইতিহাস বলে: আমেরিকা বিপ্লবের মাধ্যমে ১৭৭৬ সালের ২ জুলাই গ্রেট ব্রিটেনের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ১৩ টি উপনিবেশ মুক্ত হয়। এরপর ৪ জুলাই চূড়ান্তভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়া হয়। এ ছাড়া দিনটি আরও নানা দিক থেকে তাৎপর্যপূর্ণ। দেশটির স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে একমাত্র স্বাক্ষরকারী দুজন জন এডামস ও থমাস জেফারসন একইদিন অর্থাৎ ১৮২৬ সালের ৪ জুলাই মারা যান। ওই বছর ছিল স্বাধীনতার ৫০ বছর। এ ছাড়া অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা জনক জেমস মনরো, যিনি পরবর্তীতে দেশটির প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন, তিনিও মারা যান ৪ জুলাই। তবে সালটি ছিল ১৮৩১। যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তিনি দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছেন। সবদিক মিলিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এখন বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী দেশ।
এদিকে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে: নিরাপত্তা আশঙ্কার মধ্য দিয়ে এবার যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হচ্ছে। নিরাপত্তা বিঘিœত হতে পারে এই শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রে একটি বিমান ঘাঁটিতে পূর্ব নির্ধারিত একটি অনুষ্ঠানও বাতিল করা হয়েছে।
খবরে বলা হয়েছে: কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দেশটির নাগরিকরা ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। আয়োজন করা হয়েছে স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজ। আতশবাজির আয়োজনও আছে ব্যাপকভাবে। তবে পূর্ব উপকূলের সমুদ্র সৈকতে হামলা এবং পশ্চিমের দাবানল এই নিরাপত্তার শঙ্কা আরো বৃদ্ধি করেছে।
সম্প্রতি ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হুমকি বিবেচনা করে ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটি এবং ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছে। নিউইয়র্ক গভর্নর অ্যান্ড্রিউ কুওমো রাজ্যজুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্ক শহরে প্রায় সাত হাজার কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে যারা সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিটের। নিউইয়র্ক পুুলিশ কমিশনার বিল ব্রাটন বলেন, আমরা সবসময়ই চেষ্টা করি নতুন কিছু করতে এবং সহিংসতা প্রতিরোধ করতে। এমন নয় যে, একটা কিছু ঘটলো এবং তখন আমরা কিছু একটা করলাম।
ওয়াশিংটনের প্যারেড, কনসার্ট এবং আতশবাজির খেলায় হাজার হাজার মানুষ অংশ নিবে বলে আশা করা হচ্ছে। এখানে সাড়ে ছয় হাজার শেল ব্যবহার করা হবে। ন্যাশনাল পার্ক প্রায় সাড়ে তিন মাইল জুড়ে চেইন দিয়ে ঘিরে রেখেছে। এছাড়া ১৪শ হাজার ফুটের বাইকেল ঝুলিয়ে রাখার তাক তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া নাগরিকদের সুবিধার্থে সাড়ে ৩শ টয়লেট তৈরি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) নৌবাহিনীর একটি ঘাঁটিতে গুলি বিনিময়ের ঘটনার খবর যখন পাওয়া যায়, তখন ওয়াশিংটনে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় বিঘ্ন ঘটার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়। পুলিশ প্রধান ক্যাথি লেনিয়ার সাংবাদিকদের বলেন, পুলিশ রবিবার ছুটির দিনেও ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রস্তুত রয়েছে।
পশ্চিমাঞ্চলে দাবানল দেখা দেয়ার পর ওয়াশিংটন, ওরেগন রাজ্যে আতশবাজি ফুটানোর বিষয়ে নাগরিকদের সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। কুপারটিনো, ক্যালিফোর্নিয়া এবং আলাস্কার বৃহৎ শহর আনকোজে আতশবাজির খেলা বাতিল করা হয়েছে। তবে নাগরিকদের বেশিরভাগই এসব নিরাপত্তার শঙ্কাকে পাত্তা দিচ্ছেন না, তারা মাতৃভূমির স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়েই বাইরে আসছেন।