নিউইয়র্ক ০৬:১৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

দৈনিক মানবজমিন-এর খবর : নিউইয়র্কে জরুরি অবস্থা : ভয়াবহ তুষারঝড়ের কবলে যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চল

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৪৮:৫৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৬
  • / ১২০৯ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: ভয়াবহ তুষার ঝড়ের কবলে পড়ে নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর জনজীবন প্রায় অচল হয়ে পড়েছে। প্রচন্ড তুষারপাতের পাশাপাশি কনকনে ঠান্ডা বাতাস পরিস্থিতিকে অত্যন্ত বৈরী করে তুলেছে। বিভিন্ন রাজ্যে এ পর্যন্ত ৮ ব্যক্তির মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। বাতিল করা হয়েছে হাজার হাজার ফ্লাইট। শনিবার ও রোববার খোলা থাকে- এ ধরনের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অফিস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অবস্থার দ্রুত অবনতির প্রেক্ষিতে নিউইয়র্কের গভর্নর এন্ড্রুকুমো তার রাজ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন। লোকজনকে ঘরের বাইরে না যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে মহাসড়কে চলাচলের ওপর। এ ছাড়া রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি এবং ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ড, নিউজার্সি, কানেকটি কাট, ম্যাসাচুসেটস, ডেলাওয়ার, রোডআইল্যান্ড ও পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের প্রায় সাড়ে ৮ কোটি মানুষ এখন রয়েছেন তুষার ঝড়ের সতর্কতার মধ্যে। এসব রাজ্যে পৃথক পৃথকভাবে ‘দুর্যোগ-পরিস্থিতি’ ঘোষণা করে জনগণকে ঘরের বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এখানকার মহাসড়কগুলোতে আটকা পড়েছে হাজার হাজার গাড়ি। বিভিন্ন এলাকায় অগণিত মানুষ হয়ে পড়েছেন বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন।
যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া দপ্তর আগেই তুষার ঝড়ের সতর্ক বার্তা জারি করেছিল। বলা হয়েছিল শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে হালকা তুষার কণা ঝরবে এবং শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হবে তুষার ঝড়। কিন্তু বাস্তবে শনিবার ভোররাত থেকেই তুষার ঝড় শুরু হয়ে যায় এবং সূর্যের আলো ফোটার আগেই সবকিছু শ্বেতবর্ণ ধারণ করে। বিশেষত, ওয়াশিংটন ডিসি ও সংলগ্ন অঞ্চলে শুক্রবার সন্ধ্যা রাতেই ভারি তুষার পাতের ঘটনা ঘটে। আবহাওয়া দপ্তর বলেছে, রোববার (২৪ জানুয়ারী) পর্যন্ত তুষার ঝড় অব্যাহত থাকতে পারে। তবে সবচেয়ে ভারি তুষার ঝড় বইবে শনিবার বিকালনাগাদ। দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে টানা তুষার পাতের কারণে ৬১ সেন্টিমিটার বা দুই ফুটেরও বেশি তুষার জমতে পারে বলে সতর্ক করেছে আবহাওয়া দপ্তর। এ ছাড়া তীব্র বাতাসের ফলে সৃষ্ট বড় বড় ঢেউয়ের কারণে কোনো কোনো এলাকায় সাময়িক বন্যার আশঙ্কাও করা হয়েছে।
এমন দুর্যোগের মধ্যেও দুনিয়ার রাজধানীখ্যাত নিউইয়র্ক নগরীকে আংশিকভাবে সচল রাখার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন নগরীর মেয়র বিল ডি ব্লাজিও। দুর্যোগাক্রান্ত অন্য রাজ্যগুলোতে গণপরিবহন সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ঘোষণা করা হলেও নিউইয়র্কের প্রধান গণপরিবহন ‘সাবওয়ে’ বা পাতাল ট্রেন সার্ভিস চালু রাখা হয়েছে। এই ট্রেন যোগাযোগ নির্বিঘœ রাখতে জরুরি ভিত্তিতে নিয়োজিত রাখা হয়েছে ১৮ হাজার কর্মীকে। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সব রকম কনস্ট্রাকশন বা নির্মাণকাজ। তবে এক্সপ্রেস ট্রেনগুলোকে লোকাল সার্ভিস দিতে বলা হয়েছে। সড়কগুলোতে জমে যাওয়া বরফ কণা পরিষ্কার করতে নামানো হয়েছে বিশেষ ধরনের শত শত গাড়ি। এ ছাড়া পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে শুক্রবার বিকাল থেকেই নিউইয়র্ক সিটির প্রায় সবগুলো সড়কে হাজার হাজার টন লবণ ছিটানো হয়।
অন্যদিকে ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র মুরিয়েলবাও সার চলমান তুষার ঝড়কে নগরবাসীর জন্য ‘জীবন-মরণ সমস্যা’ আখ্যা দিয়ে সবাইকে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি ওয়াশিংটনের সব রকম গণপরিবহন শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে সোমবার ভোর পর্যন্ত বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন।(দৈনিক মানবজমিন)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

দৈনিক মানবজমিন-এর খবর : নিউইয়র্কে জরুরি অবস্থা : ভয়াবহ তুষারঝড়ের কবলে যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চল

প্রকাশের সময় : ০৬:৪৮:৫৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৬

নিউইয়র্ক: ভয়াবহ তুষার ঝড়ের কবলে পড়ে নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর জনজীবন প্রায় অচল হয়ে পড়েছে। প্রচন্ড তুষারপাতের পাশাপাশি কনকনে ঠান্ডা বাতাস পরিস্থিতিকে অত্যন্ত বৈরী করে তুলেছে। বিভিন্ন রাজ্যে এ পর্যন্ত ৮ ব্যক্তির মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। বাতিল করা হয়েছে হাজার হাজার ফ্লাইট। শনিবার ও রোববার খোলা থাকে- এ ধরনের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অফিস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অবস্থার দ্রুত অবনতির প্রেক্ষিতে নিউইয়র্কের গভর্নর এন্ড্রুকুমো তার রাজ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন। লোকজনকে ঘরের বাইরে না যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে মহাসড়কে চলাচলের ওপর। এ ছাড়া রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি এবং ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ড, নিউজার্সি, কানেকটি কাট, ম্যাসাচুসেটস, ডেলাওয়ার, রোডআইল্যান্ড ও পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের প্রায় সাড়ে ৮ কোটি মানুষ এখন রয়েছেন তুষার ঝড়ের সতর্কতার মধ্যে। এসব রাজ্যে পৃথক পৃথকভাবে ‘দুর্যোগ-পরিস্থিতি’ ঘোষণা করে জনগণকে ঘরের বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এখানকার মহাসড়কগুলোতে আটকা পড়েছে হাজার হাজার গাড়ি। বিভিন্ন এলাকায় অগণিত মানুষ হয়ে পড়েছেন বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন।
যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া দপ্তর আগেই তুষার ঝড়ের সতর্ক বার্তা জারি করেছিল। বলা হয়েছিল শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে হালকা তুষার কণা ঝরবে এবং শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হবে তুষার ঝড়। কিন্তু বাস্তবে শনিবার ভোররাত থেকেই তুষার ঝড় শুরু হয়ে যায় এবং সূর্যের আলো ফোটার আগেই সবকিছু শ্বেতবর্ণ ধারণ করে। বিশেষত, ওয়াশিংটন ডিসি ও সংলগ্ন অঞ্চলে শুক্রবার সন্ধ্যা রাতেই ভারি তুষার পাতের ঘটনা ঘটে। আবহাওয়া দপ্তর বলেছে, রোববার (২৪ জানুয়ারী) পর্যন্ত তুষার ঝড় অব্যাহত থাকতে পারে। তবে সবচেয়ে ভারি তুষার ঝড় বইবে শনিবার বিকালনাগাদ। দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে টানা তুষার পাতের কারণে ৬১ সেন্টিমিটার বা দুই ফুটেরও বেশি তুষার জমতে পারে বলে সতর্ক করেছে আবহাওয়া দপ্তর। এ ছাড়া তীব্র বাতাসের ফলে সৃষ্ট বড় বড় ঢেউয়ের কারণে কোনো কোনো এলাকায় সাময়িক বন্যার আশঙ্কাও করা হয়েছে।
এমন দুর্যোগের মধ্যেও দুনিয়ার রাজধানীখ্যাত নিউইয়র্ক নগরীকে আংশিকভাবে সচল রাখার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন নগরীর মেয়র বিল ডি ব্লাজিও। দুর্যোগাক্রান্ত অন্য রাজ্যগুলোতে গণপরিবহন সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ঘোষণা করা হলেও নিউইয়র্কের প্রধান গণপরিবহন ‘সাবওয়ে’ বা পাতাল ট্রেন সার্ভিস চালু রাখা হয়েছে। এই ট্রেন যোগাযোগ নির্বিঘœ রাখতে জরুরি ভিত্তিতে নিয়োজিত রাখা হয়েছে ১৮ হাজার কর্মীকে। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সব রকম কনস্ট্রাকশন বা নির্মাণকাজ। তবে এক্সপ্রেস ট্রেনগুলোকে লোকাল সার্ভিস দিতে বলা হয়েছে। সড়কগুলোতে জমে যাওয়া বরফ কণা পরিষ্কার করতে নামানো হয়েছে বিশেষ ধরনের শত শত গাড়ি। এ ছাড়া পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে শুক্রবার বিকাল থেকেই নিউইয়র্ক সিটির প্রায় সবগুলো সড়কে হাজার হাজার টন লবণ ছিটানো হয়।
অন্যদিকে ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র মুরিয়েলবাও সার চলমান তুষার ঝড়কে নগরবাসীর জন্য ‘জীবন-মরণ সমস্যা’ আখ্যা দিয়ে সবাইকে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি ওয়াশিংটনের সব রকম গণপরিবহন শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে সোমবার ভোর পর্যন্ত বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন।(দৈনিক মানবজমিন)