নিউইয়র্ক ০৭:৫৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834
পাঁচ শতাধিক প্রবাসীর অংশগ্রহণ : সৌহার্দ-সম্প্রীতির বন্ধনকে আরো জোরার করার উপর গুরুত্বারোপ

উৎসবমুখর পরিবেশে ‘টাঙ্গাইল সোসাইটি’র বনভোজন অনুষ্ঠিত

ইউএনএ,নিউইয়র্ক
  • প্রকাশের সময় : ০৩:২২:৩২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪
  • / ৯০ বার পঠিত

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী টাঙ্গাইল জেলাবাসীদের সামাজিক সংগঠন ‘টাঙ্গাইল সোসাইটি ইউএসএ ইনক’র বার্ষিক বনভোজন উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গাছ-গাছালিতে ঘেরা সবুজ চত্ত্বর আর বিশাল লেকের ধারে নিউইয়র্কের কিংসল্যান্ড পয়েন্ট পার্কে গত ৭ জুলাই রোববার এই বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজকদের দাবী এতে আমন্ত্রিত অতিথিসহ পাঁচ শতাধিক প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসী সপরিবারে অংশ নেন। ফলে বনভোজনস্থল হয়ে উঠে এক টুকরো ‘টাঙ্গাইল জেলা’। টাঙ্গাইলের আঞ্চলিক ভাষায় আড্ডা, শুভেচ্ছা বিনিময়, সুখ-দু:খের আলাপ, বিভিন্ন খেলাধুলা, মধ্যাহ্ন ভোজ, সঙ্গীত প্রভৃতি কর্মকান্ডে মুখরিত হয়ে উঠে ‘টাঙ্গাইল সোসাইটি’র বনভোজন। এতে অংশগ্রহণকারীরা প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসীদের সৌহার্দ-সম্প্রীতির বন্ধনকে আরো জোরার করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। উল্লেখ্য, এই বনভোজন অনুষ্ঠানে প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসী ছাড়াও শেরপুর, বরিশাল, ফেনী, নোয়াখালী প্রভৃতি জেলার প্রবাসীরাও সপরিবারে অংশ নেন এবং বনভোজন অনুষ্ঠানের প্রশংসা করেন। খবর ইউএনএ’র।

নিউইয়র্ক সিটির অদূরে জ্যামাইকা থেকে এক ঘন্টার ড্রাইভিং দূরত্বে স্লিপি হলো এলাকার কিংসল্যান্ড পয়েন্ট পার্কে সকাল ৯টা থেকেই প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসীরা প্রাইভেট কারযোগে সমবেত হতে থাকেন। আগতদের স্বাগত জানান আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ শামসুজ্জামান খান ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ এ ভূইয়া টনি ও কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক সহ কার্যকরী কমিটির কর্মকর্তাগণ। বেলা ১১টার দিকে লাইনে দাঁড়িয়ে পরিবেশন করা হয় সকালের নাস্তা। দুপুরে প্রচন্ড গরমে মিষ্টি তরমুজ খেতে ভীড় ছিলো খাবার স্থলে। অপরাহ্নে আনুষ্ঠানিকভাবে বনভোজন ও র‌্যাফল ড্র’র টিকিট বিক্রি উদ্বোধন করেন সভাপতি মোহাম্মদ শামসুজ্জামান খান। এসময় সংগঠনের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

দুপুরে জোহরের নামাজের পর অনুষ্ঠিত হয় শিশু-কিশোর-কিশোরীদের দৌড়, পদ্মা আর যমুনা দলের ফুটবল আর এবং মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতীর পর অনুষ্ঠিত হয় মহিলাদের মিউজিক্যাল পিলো। আরো ছিলো যেমন খুশী তেমন সাজ। এছাড়াও কেউ কেউ ক্রিকেট আর ব্যাটমিন্টন খেলে আনন্দ উপভোগ করেন। বিকেলে ছিলো দই-রসগোল্লার পর চা-পানের পাশাপাশি প্রবাসের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী কৃষ্ণা তিথি সহ প্রবাসের শিল্পীদের সঙ্গীত। মধ্যহ্ন ভোজে ছিলো জ্যামাইকার সুপরিচিত সাগর রেষ্টুরেন্টের মজাদার খাবার।

বিকেলে মনোজ্ঞ র‌্যাফল ড্র’র আগে আমন্ত্রিত অতিথিগণ শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে টাঙ্গাইলের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে পৌরসভার জনপ্রিয় চেয়ারম্যান মরহুম শওকত আলীর স্ত্রী, এনওয়াইপিডি’র অফিসার মোহাম্মদ গোলাম কিবরীয়া খান, সাপ্তাহিক হককথা ও আজকের টেলিগ্রাম সম্পাদক এবিএম সালাহউদ্দিন আহমেদ, প্রফেসর গোলাম মোস্তফা, প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সমগ্র অনুষ্ঠান উপস্থাপনা ও পরিচালনায় ছিলেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন।

অনুষ্ঠানে সংগঠনের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুস সালাম, দেওয়ান আমিনুর রহমান ও মিজানুর রহমান খান আপেল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মজিবর রহমান, মির্জা নূর-এ আলম ও খন্দকার মনিরুজ্জামান আরিফ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বনভোজন অনুষ্ঠান আয়োজনে বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন শহীদুল ইসলাম শহীদ, ইমরুল আলম শাহেদ, আজাদ আলী খান, মোহাম্মদ আলী, মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, ইউনুস আলী মাস্টার, মোহাম্মদ সোহেল রানা রিপন প্রমুখ।

র‌্যাফল ড্র’র উল্লেখযোগ্য পুরষ্কারের মধ্যে রাইট কেয়ার ফার্মেসীর স্বত্তাধিকারী ইকবাল রশীদ রানার সৌজন্যে প্রথম পুরষ্কার ছিলো নগদ দেড় হাজার ডলার। এটি জিতে নেন জহিরুল ইসলাম। ল অফিস অব মাইকেল গাসি ইএসকিউ এন্ড এসোসিয়েটস পিসি’র কাজী জামান ও জিয়া হক-এর সৌজন্যে দ্বিতীয় পুরষ্কার ছিলো নগদ এক হাজার ডলার। ইয়েলো ট্যাক্সি রেন্টাল উইকলী এন্ড ডেইলী অ্যাভেইল্যাবেল-এর জাহিদুল ইসলাম বাসেদ-এর সৌজন্যে তৃতীয় পুরষ্কার ছিলো নগদ ৫০০ ডলার। এছাড়াও তৃতীয় পুষ্কার ছিলো ৫৫ ইঞ্চি স্যামসং কালার টিভি (আলম মোহাম্মদ), চতুর্থ পুরষ্কার ছিলো ল্যাপটপ (মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, ডালাস), পঞ্চম পুরষ্কার ছিলো ৫০ ইঞ্চি লীড স্মার্ট টিভি (সাঈদ আলম)। এছাড়াও আরো ৭টি আকর্ষণীয় পুরষ্কার সহ মোট ১২টি পুষ্কার ছিলো র‌্যাফল ড্র-তে। বিশেষ পৃষ্ঠপোষকতঅয ছিলেন কর্ণফুলী হোম কেয়ার এন্ড ট্যাক্স সার্ভিসেস-এর কর্ণধার হোম্মদ হাসেম, দেওয়ান মেহেদী হাসান ও দেওয়ান আলী ইমাম, মিতালী সার্ভিসেস এক হক’স ইন্টেগ্রেটিভ ওয়েলনেস সেন্টার, আনোয়ার শাহিদ ও মোহাম্মদ জাকির হোসেন।

‘টাঙ্গাইল সোসাইটি ইউএসএ ইনক’র বার্ষিক বনভোজন সফল করায় সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ শামসুজ্জামান খান ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ এ ভূইয়া টনি আরিফ সকল প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসী সহ অতিথিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

পাঁচ শতাধিক প্রবাসীর অংশগ্রহণ : সৌহার্দ-সম্প্রীতির বন্ধনকে আরো জোরার করার উপর গুরুত্বারোপ

উৎসবমুখর পরিবেশে ‘টাঙ্গাইল সোসাইটি’র বনভোজন অনুষ্ঠিত

প্রকাশের সময় : ০৩:২২:৩২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী টাঙ্গাইল জেলাবাসীদের সামাজিক সংগঠন ‘টাঙ্গাইল সোসাইটি ইউএসএ ইনক’র বার্ষিক বনভোজন উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গাছ-গাছালিতে ঘেরা সবুজ চত্ত্বর আর বিশাল লেকের ধারে নিউইয়র্কের কিংসল্যান্ড পয়েন্ট পার্কে গত ৭ জুলাই রোববার এই বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজকদের দাবী এতে আমন্ত্রিত অতিথিসহ পাঁচ শতাধিক প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসী সপরিবারে অংশ নেন। ফলে বনভোজনস্থল হয়ে উঠে এক টুকরো ‘টাঙ্গাইল জেলা’। টাঙ্গাইলের আঞ্চলিক ভাষায় আড্ডা, শুভেচ্ছা বিনিময়, সুখ-দু:খের আলাপ, বিভিন্ন খেলাধুলা, মধ্যাহ্ন ভোজ, সঙ্গীত প্রভৃতি কর্মকান্ডে মুখরিত হয়ে উঠে ‘টাঙ্গাইল সোসাইটি’র বনভোজন। এতে অংশগ্রহণকারীরা প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসীদের সৌহার্দ-সম্প্রীতির বন্ধনকে আরো জোরার করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। উল্লেখ্য, এই বনভোজন অনুষ্ঠানে প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসী ছাড়াও শেরপুর, বরিশাল, ফেনী, নোয়াখালী প্রভৃতি জেলার প্রবাসীরাও সপরিবারে অংশ নেন এবং বনভোজন অনুষ্ঠানের প্রশংসা করেন। খবর ইউএনএ’র।

নিউইয়র্ক সিটির অদূরে জ্যামাইকা থেকে এক ঘন্টার ড্রাইভিং দূরত্বে স্লিপি হলো এলাকার কিংসল্যান্ড পয়েন্ট পার্কে সকাল ৯টা থেকেই প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসীরা প্রাইভেট কারযোগে সমবেত হতে থাকেন। আগতদের স্বাগত জানান আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ শামসুজ্জামান খান ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ এ ভূইয়া টনি ও কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক সহ কার্যকরী কমিটির কর্মকর্তাগণ। বেলা ১১টার দিকে লাইনে দাঁড়িয়ে পরিবেশন করা হয় সকালের নাস্তা। দুপুরে প্রচন্ড গরমে মিষ্টি তরমুজ খেতে ভীড় ছিলো খাবার স্থলে। অপরাহ্নে আনুষ্ঠানিকভাবে বনভোজন ও র‌্যাফল ড্র’র টিকিট বিক্রি উদ্বোধন করেন সভাপতি মোহাম্মদ শামসুজ্জামান খান। এসময় সংগঠনের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

দুপুরে জোহরের নামাজের পর অনুষ্ঠিত হয় শিশু-কিশোর-কিশোরীদের দৌড়, পদ্মা আর যমুনা দলের ফুটবল আর এবং মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতীর পর অনুষ্ঠিত হয় মহিলাদের মিউজিক্যাল পিলো। আরো ছিলো যেমন খুশী তেমন সাজ। এছাড়াও কেউ কেউ ক্রিকেট আর ব্যাটমিন্টন খেলে আনন্দ উপভোগ করেন। বিকেলে ছিলো দই-রসগোল্লার পর চা-পানের পাশাপাশি প্রবাসের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী কৃষ্ণা তিথি সহ প্রবাসের শিল্পীদের সঙ্গীত। মধ্যহ্ন ভোজে ছিলো জ্যামাইকার সুপরিচিত সাগর রেষ্টুরেন্টের মজাদার খাবার।

বিকেলে মনোজ্ঞ র‌্যাফল ড্র’র আগে আমন্ত্রিত অতিথিগণ শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে টাঙ্গাইলের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে পৌরসভার জনপ্রিয় চেয়ারম্যান মরহুম শওকত আলীর স্ত্রী, এনওয়াইপিডি’র অফিসার মোহাম্মদ গোলাম কিবরীয়া খান, সাপ্তাহিক হককথা ও আজকের টেলিগ্রাম সম্পাদক এবিএম সালাহউদ্দিন আহমেদ, প্রফেসর গোলাম মোস্তফা, প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সমগ্র অনুষ্ঠান উপস্থাপনা ও পরিচালনায় ছিলেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন।

অনুষ্ঠানে সংগঠনের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুস সালাম, দেওয়ান আমিনুর রহমান ও মিজানুর রহমান খান আপেল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মজিবর রহমান, মির্জা নূর-এ আলম ও খন্দকার মনিরুজ্জামান আরিফ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বনভোজন অনুষ্ঠান আয়োজনে বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন শহীদুল ইসলাম শহীদ, ইমরুল আলম শাহেদ, আজাদ আলী খান, মোহাম্মদ আলী, মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, ইউনুস আলী মাস্টার, মোহাম্মদ সোহেল রানা রিপন প্রমুখ।

র‌্যাফল ড্র’র উল্লেখযোগ্য পুরষ্কারের মধ্যে রাইট কেয়ার ফার্মেসীর স্বত্তাধিকারী ইকবাল রশীদ রানার সৌজন্যে প্রথম পুরষ্কার ছিলো নগদ দেড় হাজার ডলার। এটি জিতে নেন জহিরুল ইসলাম। ল অফিস অব মাইকেল গাসি ইএসকিউ এন্ড এসোসিয়েটস পিসি’র কাজী জামান ও জিয়া হক-এর সৌজন্যে দ্বিতীয় পুরষ্কার ছিলো নগদ এক হাজার ডলার। ইয়েলো ট্যাক্সি রেন্টাল উইকলী এন্ড ডেইলী অ্যাভেইল্যাবেল-এর জাহিদুল ইসলাম বাসেদ-এর সৌজন্যে তৃতীয় পুরষ্কার ছিলো নগদ ৫০০ ডলার। এছাড়াও তৃতীয় পুষ্কার ছিলো ৫৫ ইঞ্চি স্যামসং কালার টিভি (আলম মোহাম্মদ), চতুর্থ পুরষ্কার ছিলো ল্যাপটপ (মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, ডালাস), পঞ্চম পুরষ্কার ছিলো ৫০ ইঞ্চি লীড স্মার্ট টিভি (সাঈদ আলম)। এছাড়াও আরো ৭টি আকর্ষণীয় পুরষ্কার সহ মোট ১২টি পুষ্কার ছিলো র‌্যাফল ড্র-তে। বিশেষ পৃষ্ঠপোষকতঅয ছিলেন কর্ণফুলী হোম কেয়ার এন্ড ট্যাক্স সার্ভিসেস-এর কর্ণধার হোম্মদ হাসেম, দেওয়ান মেহেদী হাসান ও দেওয়ান আলী ইমাম, মিতালী সার্ভিসেস এক হক’স ইন্টেগ্রেটিভ ওয়েলনেস সেন্টার, আনোয়ার শাহিদ ও মোহাম্মদ জাকির হোসেন।

‘টাঙ্গাইল সোসাইটি ইউএসএ ইনক’র বার্ষিক বনভোজন সফল করায় সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ শামসুজ্জামান খান ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ এ ভূইয়া টনি আরিফ সকল প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসী সহ অতিথিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।