নিউইয়র্ক ১১:৪২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

শেখ হাসিনা জনগণের আর খালেদা জিয়া সন্ত্রাসীদের নেতা : যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের সভায় শিল্প মন্ত্রী আমু

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১২:৫৩:১৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০১৫
  • / ৭২৫ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্র সফররত শিল্প মন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর অন্যতম সদস্য, প্রবীণ রাজনীতিক আমীর হোসেন আমু বলেছেন, দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে সুশীল সমাজ সংলাপের কথা বলছেন। কিন্তু সরকার কার সাথে কি নিয়ে আলোচনা করবে। যারা আগুণে পড়িয়ে মানুষ মারছে, দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কয়েক করেছে, তাদের সাথে তো আলোচনা হতে পারে না। সংলাপ বা আলোচনার জন্য পরিবেশ দরকার। তিনি বলেন, সঙ্কট সমাধানের পথে। বিএনপি সহ দেশের মানুষ সিটি নির্বাচনমুখী হয়েছে। আমু বলেন, দেশের মানুষ বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র বুঝে গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের নেতা হিসেবে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠিত করেছেন। সন্ত্রাস-নৈরাজ্য দূর করেছেন। অপরদিকে সন্ত্রাস, নৈরাজ্য আর অবরোধের মধ্য দিয়ে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া নিজেকে সন্ত্রাসীদের নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। খবর ইউএনএ’র।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্প মন্ত্রী আমির হোসেন আমু উপরোক্ত কথা বলেন। সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ পালকী পার্টি সেন্টারে গত ৪ এপ্রিল শনিবার সন্ধ্যায় এই সভার আয়োজন করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মন্ত্রীকে স্বাগতম জানিয়ে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ। মঞ্জে উপবিষ্ট ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ডা. মাসুদুল হাসান, সহ সভাপতি সৈয়দ বসারত আলী, আবুল কাশেম, সামসুদ্দীন আজাদ ও লুৎফুর কবীর, যুগ্ম সম্পাদক আইরীন পারভিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহীম বাদশা ও চন্দন দত্ত। এছাড়াও বিশেষ অতিথি ছিলেন জার্মান আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম সাইকুল আলম চৌধুরী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।
সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি হাফেজ মওলানা বজলুর রহমান খান এবং গীতা থেকে পাঠ করেন যুবলীগ নেতা গণেশ কীর্তনীয়া। এরপর শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মন্ত্রী আমীর হোসেন আমুকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান কার্যকরী পরিষদের সদস্য শাহানারা রহমান ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শিরিণ আক্তার দিবা।
সভায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপ প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সভাপতি মিসবাহ আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সাখাওয়াত বিশ্বাস, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদ সদস্য আনোয়ার হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা টিটু রহমান প্রমুখ।
সভায় সাংবাদিক শরীফ শাহাবুদ্দিন সহ উল্লেখযোগ্য দলীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম, জনসংযোগ সম্পাদক কাজী কয়েস, প্রবাসী বিষয়ক সম্পাদক সোলায়মান আলী, তথ্য ও গবেষাণা জালাল আহমেদ রুমী, ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, ক্রীড়া ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান টুকু, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান মিয়া, সহ সভাাপতি মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, নিউইয়র্ক সিটি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদ চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদ সদস্য জহিরুল ইসলাম, ব্রুকলীন আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুর ইসলাম নজরুল, আওয়ামী লীগ নেতা ছমির মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় শিল্প মন্ত্রী আমীর হোসেন আমু আরো বলেন, আওয়ামী লীগ ২১ বছর ক্ষমতার বাইরে ছিলো। তাই বলে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য বা ক্ষমতায় থাকার জন্য আওয়ামী লীগ বিএনপির মতো ধর্মকে ব্যবহার করেনি, জামাতের সাথে আতাঁত করেনি। আওয়ামী লীগ ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে না। ধর্ম সবার জন্যই। কিন্তু বিএনপি বিশ্ব এস্তেমার সময় অবরোধ ডেকেছে। বিএনপি-জামায়াত দেশে-বিদেশে নানা ষড়যন্ত্র করে চলেছে। ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করা হবে।
শিল্প মন্ত্রী আমু মহাজোট সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। এজন্য দরকার দেশবাসী আর প্রবাসীদের সহযোগিতা।
সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী হাসিনার নেতৃত্ব আর সিদ্ধান্তের প্রতি দেশবাসীর মতো প্রবাসীরাও আস্থাশীল। দেশবাসী সরকারের সাথে রয়েছে বলেই সন্ত্রাস পরাজিত হয়েছে। তিনি বলেন, দেশের আইন-কানুন মেনেই এই প্রবাসেও যুদ্ধাপরাধীদের প্রতিহত করা হবে। স্বাধীনতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের সাথে কোন আপোষ নেই।
সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ বলেন, দেশর জনগণ বিএনপি-জামায়াতকে প্রত্যাখ্যান করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসের হাত থেকে দেশ-জাতিকে রক্ষা করেছেন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে। সবাই সহযোগিতা করলে অবশ্যই বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে, বাংলাদেশ সোনার বাংলা হবে।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

শেখ হাসিনা জনগণের আর খালেদা জিয়া সন্ত্রাসীদের নেতা : যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের সভায় শিল্প মন্ত্রী আমু

প্রকাশের সময় : ১২:৫৩:১৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০১৫

নিউইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্র সফররত শিল্প মন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর অন্যতম সদস্য, প্রবীণ রাজনীতিক আমীর হোসেন আমু বলেছেন, দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে সুশীল সমাজ সংলাপের কথা বলছেন। কিন্তু সরকার কার সাথে কি নিয়ে আলোচনা করবে। যারা আগুণে পড়িয়ে মানুষ মারছে, দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কয়েক করেছে, তাদের সাথে তো আলোচনা হতে পারে না। সংলাপ বা আলোচনার জন্য পরিবেশ দরকার। তিনি বলেন, সঙ্কট সমাধানের পথে। বিএনপি সহ দেশের মানুষ সিটি নির্বাচনমুখী হয়েছে। আমু বলেন, দেশের মানুষ বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র বুঝে গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের নেতা হিসেবে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠিত করেছেন। সন্ত্রাস-নৈরাজ্য দূর করেছেন। অপরদিকে সন্ত্রাস, নৈরাজ্য আর অবরোধের মধ্য দিয়ে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া নিজেকে সন্ত্রাসীদের নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। খবর ইউএনএ’র।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্প মন্ত্রী আমির হোসেন আমু উপরোক্ত কথা বলেন। সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ পালকী পার্টি সেন্টারে গত ৪ এপ্রিল শনিবার সন্ধ্যায় এই সভার আয়োজন করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মন্ত্রীকে স্বাগতম জানিয়ে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ। মঞ্জে উপবিষ্ট ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ডা. মাসুদুল হাসান, সহ সভাপতি সৈয়দ বসারত আলী, আবুল কাশেম, সামসুদ্দীন আজাদ ও লুৎফুর কবীর, যুগ্ম সম্পাদক আইরীন পারভিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহীম বাদশা ও চন্দন দত্ত। এছাড়াও বিশেষ অতিথি ছিলেন জার্মান আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম সাইকুল আলম চৌধুরী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।
সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি হাফেজ মওলানা বজলুর রহমান খান এবং গীতা থেকে পাঠ করেন যুবলীগ নেতা গণেশ কীর্তনীয়া। এরপর শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মন্ত্রী আমীর হোসেন আমুকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান কার্যকরী পরিষদের সদস্য শাহানারা রহমান ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শিরিণ আক্তার দিবা।
সভায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপ প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সভাপতি মিসবাহ আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সাখাওয়াত বিশ্বাস, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদ সদস্য আনোয়ার হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা টিটু রহমান প্রমুখ।
সভায় সাংবাদিক শরীফ শাহাবুদ্দিন সহ উল্লেখযোগ্য দলীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম, জনসংযোগ সম্পাদক কাজী কয়েস, প্রবাসী বিষয়ক সম্পাদক সোলায়মান আলী, তথ্য ও গবেষাণা জালাল আহমেদ রুমী, ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, ক্রীড়া ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান টুকু, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান মিয়া, সহ সভাাপতি মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, নিউইয়র্ক সিটি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদ চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদ সদস্য জহিরুল ইসলাম, ব্রুকলীন আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুর ইসলাম নজরুল, আওয়ামী লীগ নেতা ছমির মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় শিল্প মন্ত্রী আমীর হোসেন আমু আরো বলেন, আওয়ামী লীগ ২১ বছর ক্ষমতার বাইরে ছিলো। তাই বলে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য বা ক্ষমতায় থাকার জন্য আওয়ামী লীগ বিএনপির মতো ধর্মকে ব্যবহার করেনি, জামাতের সাথে আতাঁত করেনি। আওয়ামী লীগ ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে না। ধর্ম সবার জন্যই। কিন্তু বিএনপি বিশ্ব এস্তেমার সময় অবরোধ ডেকেছে। বিএনপি-জামায়াত দেশে-বিদেশে নানা ষড়যন্ত্র করে চলেছে। ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করা হবে।
শিল্প মন্ত্রী আমু মহাজোট সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। এজন্য দরকার দেশবাসী আর প্রবাসীদের সহযোগিতা।
সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী হাসিনার নেতৃত্ব আর সিদ্ধান্তের প্রতি দেশবাসীর মতো প্রবাসীরাও আস্থাশীল। দেশবাসী সরকারের সাথে রয়েছে বলেই সন্ত্রাস পরাজিত হয়েছে। তিনি বলেন, দেশের আইন-কানুন মেনেই এই প্রবাসেও যুদ্ধাপরাধীদের প্রতিহত করা হবে। স্বাধীনতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের সাথে কোন আপোষ নেই।
সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ বলেন, দেশর জনগণ বিএনপি-জামায়াতকে প্রত্যাখ্যান করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসের হাত থেকে দেশ-জাতিকে রক্ষা করেছেন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে। সবাই সহযোগিতা করলে অবশ্যই বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে, বাংলাদেশ সোনার বাংলা হবে।