নিউইয়র্ক ১২:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

যুক্তরাষ্ট্র বিএনপিতে আবার মেরুকরণ : ডা.মুজিব-জিল্লু সমঝোতা বৈঠক!

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১২:১২:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • / ৮৩৪ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কমিটিবিহীন ত্রিধা বিভক্ত যুক্তরাষ্ট্র বিএনপিতে আবার নতুন করে মেরুকরণ চলছে। এই মেরুকরণে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. মুজিবুর রহমান মজুমদার ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু গ্রুপের মধ্যে সমঝোতার লক্ষ্যে সম্প্রতি নেতা পর্যায়ে গোপন বৈঠক হয়েছে। এদিকে নেতৃত্বের দাবীদার সংগঠনের সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি গিয়াস আহমেদ ও শরাফত হোসেন বাবু, সাবেক সহ সভাপতি সামসুল ইসলাম মজনু, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক হেলাল উদ্দিন ও আকতার হোসেন বাদল আর সাবেক কোষাধ্যক্ষ জসিম ভূঁইয়া নিজ নিজ অবস্থানের বাইরে গ্রুপ পর্যায়ে নানা সভা-সমাবেশের নামে শোডাউন অব্যাহত রেখেছেন।
সূত্র মতে, গত মাসে সিটির জ্যাকসন হাইটস এলাকার একটি রেষ্টুরেন্টে ডা. মুজিবুর রহমান মজুমদার ও জিল্লুর রহমান জিল্লুর মধ্যে সমঝোতার লক্ষ্যে প্রাথমিক বৈঠক হয়েছে। বৈঠকটি গোপনে হলেও তাদের ঘনিষ্ঠ কয়েকজন ছাড়া অন্য কোন দলীয় নেতা-কর্মী বিষয়টি জানেন না। বাংলাদেশে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের আন্দোলনের স্বপক্ষে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের ছয়জন সদস্যের নামে প্রদত্ত ভূয়া বিবৃতির ঘটনায় কোনঠাসা ও বিব্রত ডা. মুজিবুর রহমান মজুমদার (ঐ ভুয়া বিবৃতির সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই বলে ডা. মুজিব দাবী করেন) সম্পর্কে দলের অনেক নেতা-কর্মীর বিরূপ ধারণার সৃষ্টি হলেও অতি সম্প্রতি দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অন্যতম উপদেষ্টা, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ড. ওসমান ফারুক ও কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী ও সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকাসহ দলীয় অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে ডা. মুজিবের একই মঞ্চে অবস্থান আবার ভিন্ন চোখে দেখছেন। ফলে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র রাজনীতিতে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন ডা. মুজিব নেতৃত্বাধীন গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। উল্লেখ্য, ডা. মুজিব ক্যান্সারে আক্রান্ত এবং নিউইয়র্কে চিকিৎসাধীন খোকার ব্যক্তিগত চিকিৎসকও বটে। আরো উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেস সদস্যদের নামে ভূয়া’র বিবৃতির খবর প্রকাশের পর বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও দলের বৈদেশিক দূতের পদ থেকে ডা. মুজিব ও সরদার এফ সাদীকে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। কেন্দ্রীয় বিএনপি’র পক্ষে নিউইয়র্কে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে সাদেক হোসেন খোকা একথা জানান। সূত্র মতে ডা. মুজিব-জিল্লুর বৈঠকে ঐ দু’গ্রুপের মধ্যে চুড়ান্ত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে দলের বৃহত্তর স্বার্থে এবং ঐক্যের প্রশ্নে যেকোন গ্রুপেরই ঐক্য প্রত্যাশী দলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।
সূত্র মতে, বিগত প্রায় চার বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র কমিটি নেই। এই চার বছর ধরে কমিটির দাবীতে নানা লবিং-গ্রুপিং চললেও দেশের চলমান পরিস্থিতি আর কেন্দ্রের ‘বিপর্যস্ত অবস্থায়’ সহসাই যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র কমিটি না হলেও নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে উল্লেখিত ব্যক্তিবর্গ নানাভাবে শোডাউন অব্যাহত রেখেছেন। আর এজন্য গ্রুপিংগুলোর মধ্যে নেতৃস্থানীয় পর্যায়ে ভাংচুরও হচ্ছে। কখনো কখনো বিভক্ত নেতারা এক মঞ্চে বসলেও রাত পোহাতে না পোহাতেই আবার বিভক্ত হয়ে পড়ছেন। দৃশ্যতঃ যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতৃত্ব প্রত্যাশী নেতাদের মধ্যে ভানুমতির খেল চলছে। ফলে বিব্রত, বিভক্ত, হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন দলের মাঠ পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা। অনেকে বিএনপির রাজনীতি থেকে স্বেচ্ছাবসরে চলে যাচ্ছেন।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

যুক্তরাষ্ট্র বিএনপিতে আবার মেরুকরণ : ডা.মুজিব-জিল্লু সমঝোতা বৈঠক!

প্রকাশের সময় : ১২:১২:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

নিউইয়র্ক: নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কমিটিবিহীন ত্রিধা বিভক্ত যুক্তরাষ্ট্র বিএনপিতে আবার নতুন করে মেরুকরণ চলছে। এই মেরুকরণে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. মুজিবুর রহমান মজুমদার ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু গ্রুপের মধ্যে সমঝোতার লক্ষ্যে সম্প্রতি নেতা পর্যায়ে গোপন বৈঠক হয়েছে। এদিকে নেতৃত্বের দাবীদার সংগঠনের সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি গিয়াস আহমেদ ও শরাফত হোসেন বাবু, সাবেক সহ সভাপতি সামসুল ইসলাম মজনু, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক হেলাল উদ্দিন ও আকতার হোসেন বাদল আর সাবেক কোষাধ্যক্ষ জসিম ভূঁইয়া নিজ নিজ অবস্থানের বাইরে গ্রুপ পর্যায়ে নানা সভা-সমাবেশের নামে শোডাউন অব্যাহত রেখেছেন।
সূত্র মতে, গত মাসে সিটির জ্যাকসন হাইটস এলাকার একটি রেষ্টুরেন্টে ডা. মুজিবুর রহমান মজুমদার ও জিল্লুর রহমান জিল্লুর মধ্যে সমঝোতার লক্ষ্যে প্রাথমিক বৈঠক হয়েছে। বৈঠকটি গোপনে হলেও তাদের ঘনিষ্ঠ কয়েকজন ছাড়া অন্য কোন দলীয় নেতা-কর্মী বিষয়টি জানেন না। বাংলাদেশে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের আন্দোলনের স্বপক্ষে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের ছয়জন সদস্যের নামে প্রদত্ত ভূয়া বিবৃতির ঘটনায় কোনঠাসা ও বিব্রত ডা. মুজিবুর রহমান মজুমদার (ঐ ভুয়া বিবৃতির সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই বলে ডা. মুজিব দাবী করেন) সম্পর্কে দলের অনেক নেতা-কর্মীর বিরূপ ধারণার সৃষ্টি হলেও অতি সম্প্রতি দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অন্যতম উপদেষ্টা, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ড. ওসমান ফারুক ও কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী ও সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকাসহ দলীয় অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে ডা. মুজিবের একই মঞ্চে অবস্থান আবার ভিন্ন চোখে দেখছেন। ফলে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র রাজনীতিতে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন ডা. মুজিব নেতৃত্বাধীন গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। উল্লেখ্য, ডা. মুজিব ক্যান্সারে আক্রান্ত এবং নিউইয়র্কে চিকিৎসাধীন খোকার ব্যক্তিগত চিকিৎসকও বটে। আরো উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেস সদস্যদের নামে ভূয়া’র বিবৃতির খবর প্রকাশের পর বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও দলের বৈদেশিক দূতের পদ থেকে ডা. মুজিব ও সরদার এফ সাদীকে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। কেন্দ্রীয় বিএনপি’র পক্ষে নিউইয়র্কে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে সাদেক হোসেন খোকা একথা জানান। সূত্র মতে ডা. মুজিব-জিল্লুর বৈঠকে ঐ দু’গ্রুপের মধ্যে চুড়ান্ত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে দলের বৃহত্তর স্বার্থে এবং ঐক্যের প্রশ্নে যেকোন গ্রুপেরই ঐক্য প্রত্যাশী দলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।
সূত্র মতে, বিগত প্রায় চার বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র কমিটি নেই। এই চার বছর ধরে কমিটির দাবীতে নানা লবিং-গ্রুপিং চললেও দেশের চলমান পরিস্থিতি আর কেন্দ্রের ‘বিপর্যস্ত অবস্থায়’ সহসাই যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র কমিটি না হলেও নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে উল্লেখিত ব্যক্তিবর্গ নানাভাবে শোডাউন অব্যাহত রেখেছেন। আর এজন্য গ্রুপিংগুলোর মধ্যে নেতৃস্থানীয় পর্যায়ে ভাংচুরও হচ্ছে। কখনো কখনো বিভক্ত নেতারা এক মঞ্চে বসলেও রাত পোহাতে না পোহাতেই আবার বিভক্ত হয়ে পড়ছেন। দৃশ্যতঃ যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতৃত্ব প্রত্যাশী নেতাদের মধ্যে ভানুমতির খেল চলছে। ফলে বিব্রত, বিভক্ত, হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন দলের মাঠ পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা। অনেকে বিএনপির রাজনীতি থেকে স্বেচ্ছাবসরে চলে যাচ্ছেন।