নিউইয়র্ক ১২:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এনএবিসি কনভেনশন সমাপ্ত : ২০১৬ সালের কনভেনশন টরন্টো, ২০১৭ সালে ফ্লোরিডায়

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৪২:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫
  • / ৭৪০ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: ২০১৬ সালের কনভেনশন টরন্টো আর ২০১৭ সালে ফ্লোরিডায় পরবর্তী কনভেনশন ঘোষণার মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হলো এনএবিসি কনভেনশন। আয়োজকদের ভাষায় এবারের কনভেনশন ২৯তম। ৫-৬ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ শনি ও রোববার দু’দিন এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শনিবার এবারের এনএবিসি কনভেনশনের পর্দা উঠে ম্যানহাটনের পেন প্লাজা প্যাভেলিয়নে। কনভেনশনের শেষ দিনে রোববার প্রবাসী বাংলাদেশীদের ঢল নামে। কনভেনশন পরিণত হয় বাংলাদেশীদের মিলনমেলায়। কনভেনশনে অংশ নেন বাংলাদেশ, ভারত, আমেরিকা ও কানাডা থেকে আগত বিশিষ্টজনেরা। পাশাপাশি মূলধারার রাজনীতিক’সহ প্রবাসী বাংলাদেশীদের মিলন-মেলায় পরিনত হয় এনএবিসি কনভেনশন। সবার মুখে একটাই শ্লোগান বিশ্বদরবারে বাংলাদেশকে মেলে ধরতে তরুণ-সমাজকে নিয়ে আসতে হবে সামনের কাতারে।
সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশী-আমেরিকান প্রজন্মের অংশগ্রহণে পরিবেশিত হয় বাংলাদেশ-আমেরিকা ও কানাডার জাতীয় সঙ্গীত। প্রবাসীদের উপস্থিতিতে প্রবাসে বুকে এক টুকরো বাংলাদেশ হয়ে উঠে এই সম্মেলন। আনুষ্ঠানিকতা ও সাংস্কৃতিক পর্ব শেষে চলে আমন্ত্রিত অতিথিদের শুভেচ্ছা বক্তব্যের পালা। কনভেনশনে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভিসি ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ওয়াকিল আহমদ। ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার তিনি ফিতা কেটে এই সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
সম্মেলনের কনভেনার ডা. রফিক আহমেদের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আবুল ফজল দিদারুল ইসলামের সার্বিক তত্ত্বাবধানে কনভেনশনে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার উপদেষ্টা নীনা আহমেদ, লেখক ও কলামিস্ট শফিক রেহমান এবং কবি ও সাহিত্যিক সথিনাথ মুখোপাধ্যায়’সহ বিশিষ্টজনেরা। সম্শেরন কমিটির উল্লেখযোগ্য কর্মকর্তাদের মধ্যে মঞ্জুর হোসেন চীফ কো-অর্ডিনেটর, হারুন ভূইয়া সিনিয়র কো-অর্ডিনেটর এবং নিজাম উদ্দিন কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্ব পালন করেন। কনভেনশনের কর্মকান্ডের মধ্যে ছিলো দেশী-বিদেশী স্টল, কালচারাল শো, সেমিনার, কাব্য জলসা, ফ্যাশন শো প্রভৃতি। দুপুর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত এই কনভেনশনের কর্মকান্ড চলে।
কনভেনশনের ব্যতিক্রমী আয়োজন ইমিগ্রেশন বিষয়ক উন্মুক্ত সেমিনারে অংশ নেন কংগ্রেসম্যান জোসেফ হোফেল ।
এনএবিসি কনভেনশনে রকমারি পণ্যের দেশী-বিদেশী স্টল, কালচারাল শো, সেমিনার, কাব্য জলশা এবং ফ্যাশন’শো মধ্য দিয়ে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে মেলে ধরার প্রয়াস ঘটানো হয়। যা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে বলে আয়োজকরা জানান।
এবারের কনভেনশনের মূল শ্লোগান ছিল ‘নতুন প্রজন্মে বাংলাভাষা ও সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেয়া এবং মূলধারার সাথে কমিউনিটিকে আরো বেশি সম্পৃক্ত করা।’ পুরো আয়োজনে হৃদয় কাঁড়া সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল বেশ লক্ষনীয়। এনএবিসি ২০১৫ কালচারাল কমিটি চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউইয়র্কের সাংষ্কৃতিক সম্পাদিকা মনিকা রায়ের পরিচালনায় নিউইয়র্কের প্রায় সকল কালচারাল সংগঠন ও সসঙ্গীত শিল্পী এবং সঙ্গীত স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা ছিলেন এই আয়োজনের সাথে যুক্ত। কালচারাল স্কুলগুলোর মধ্যে ছিল সদারঙ স্কুল অব মিউজিক, সঙ্গীত পরিষদ, সুরবাহার, হিন্দোল সঙ্গীতালয়, বহ্নিশিখা সঙ্গীত নিকেতন, স্মরলিপি স্কুল অব মিউজিক, প্রিয়া ডান্স স্কুল, নজরুল একাডেমি, শিল্পকলা একাডেমি ইউএসএ, বাংলাদেশী অর্গেনাইজেশন, ম্যানহাটন বাংলা ও সাংস্কৃতিক স্কুল, পন্ডিত কৃষাণ মাহারাজ তাল তরঙ্গ ইনস্টিটিউট, ওস্তাদ খুরশীদ খান ইনস্টিটিউট, হাবিবা এক্সপ্রেস প্রভৃতি।
কনভেনশনে আমন্ত্রিত শিল্পীদের তালিকায় ছিলেন বাংলাদেশের ‘ব্ল্যাক ডায়মন্ড’ খ্যাত জনপ্রিয় শিল্পী বেবী নাজনীন আর মমতাজ, ডলি সায়ন্তনী সহ পড়শী, সুমি, চুমকি, নাজ, রেজওয়ান প্রমুখ। আরো থাকবেন বলিউড তারকা মৌ মূখার্জী ও ঐশ্বরিয়া নিগম সহ প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা। কনভেনশনে প্রবেশাধিকার ছিলো ফ্রি। (সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এনএবিসি কনভেনশন সমাপ্ত : ২০১৬ সালের কনভেনশন টরন্টো, ২০১৭ সালে ফ্লোরিডায়

প্রকাশের সময় : ০৭:৪২:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫

নিউইয়র্ক: ২০১৬ সালের কনভেনশন টরন্টো আর ২০১৭ সালে ফ্লোরিডায় পরবর্তী কনভেনশন ঘোষণার মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হলো এনএবিসি কনভেনশন। আয়োজকদের ভাষায় এবারের কনভেনশন ২৯তম। ৫-৬ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ শনি ও রোববার দু’দিন এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শনিবার এবারের এনএবিসি কনভেনশনের পর্দা উঠে ম্যানহাটনের পেন প্লাজা প্যাভেলিয়নে। কনভেনশনের শেষ দিনে রোববার প্রবাসী বাংলাদেশীদের ঢল নামে। কনভেনশন পরিণত হয় বাংলাদেশীদের মিলনমেলায়। কনভেনশনে অংশ নেন বাংলাদেশ, ভারত, আমেরিকা ও কানাডা থেকে আগত বিশিষ্টজনেরা। পাশাপাশি মূলধারার রাজনীতিক’সহ প্রবাসী বাংলাদেশীদের মিলন-মেলায় পরিনত হয় এনএবিসি কনভেনশন। সবার মুখে একটাই শ্লোগান বিশ্বদরবারে বাংলাদেশকে মেলে ধরতে তরুণ-সমাজকে নিয়ে আসতে হবে সামনের কাতারে।
সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশী-আমেরিকান প্রজন্মের অংশগ্রহণে পরিবেশিত হয় বাংলাদেশ-আমেরিকা ও কানাডার জাতীয় সঙ্গীত। প্রবাসীদের উপস্থিতিতে প্রবাসে বুকে এক টুকরো বাংলাদেশ হয়ে উঠে এই সম্মেলন। আনুষ্ঠানিকতা ও সাংস্কৃতিক পর্ব শেষে চলে আমন্ত্রিত অতিথিদের শুভেচ্ছা বক্তব্যের পালা। কনভেনশনে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভিসি ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ওয়াকিল আহমদ। ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার তিনি ফিতা কেটে এই সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
সম্মেলনের কনভেনার ডা. রফিক আহমেদের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আবুল ফজল দিদারুল ইসলামের সার্বিক তত্ত্বাবধানে কনভেনশনে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার উপদেষ্টা নীনা আহমেদ, লেখক ও কলামিস্ট শফিক রেহমান এবং কবি ও সাহিত্যিক সথিনাথ মুখোপাধ্যায়’সহ বিশিষ্টজনেরা। সম্শেরন কমিটির উল্লেখযোগ্য কর্মকর্তাদের মধ্যে মঞ্জুর হোসেন চীফ কো-অর্ডিনেটর, হারুন ভূইয়া সিনিয়র কো-অর্ডিনেটর এবং নিজাম উদ্দিন কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্ব পালন করেন। কনভেনশনের কর্মকান্ডের মধ্যে ছিলো দেশী-বিদেশী স্টল, কালচারাল শো, সেমিনার, কাব্য জলসা, ফ্যাশন শো প্রভৃতি। দুপুর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত এই কনভেনশনের কর্মকান্ড চলে।
কনভেনশনের ব্যতিক্রমী আয়োজন ইমিগ্রেশন বিষয়ক উন্মুক্ত সেমিনারে অংশ নেন কংগ্রেসম্যান জোসেফ হোফেল ।
এনএবিসি কনভেনশনে রকমারি পণ্যের দেশী-বিদেশী স্টল, কালচারাল শো, সেমিনার, কাব্য জলশা এবং ফ্যাশন’শো মধ্য দিয়ে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে মেলে ধরার প্রয়াস ঘটানো হয়। যা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে বলে আয়োজকরা জানান।
এবারের কনভেনশনের মূল শ্লোগান ছিল ‘নতুন প্রজন্মে বাংলাভাষা ও সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেয়া এবং মূলধারার সাথে কমিউনিটিকে আরো বেশি সম্পৃক্ত করা।’ পুরো আয়োজনে হৃদয় কাঁড়া সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল বেশ লক্ষনীয়। এনএবিসি ২০১৫ কালচারাল কমিটি চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউইয়র্কের সাংষ্কৃতিক সম্পাদিকা মনিকা রায়ের পরিচালনায় নিউইয়র্কের প্রায় সকল কালচারাল সংগঠন ও সসঙ্গীত শিল্পী এবং সঙ্গীত স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা ছিলেন এই আয়োজনের সাথে যুক্ত। কালচারাল স্কুলগুলোর মধ্যে ছিল সদারঙ স্কুল অব মিউজিক, সঙ্গীত পরিষদ, সুরবাহার, হিন্দোল সঙ্গীতালয়, বহ্নিশিখা সঙ্গীত নিকেতন, স্মরলিপি স্কুল অব মিউজিক, প্রিয়া ডান্স স্কুল, নজরুল একাডেমি, শিল্পকলা একাডেমি ইউএসএ, বাংলাদেশী অর্গেনাইজেশন, ম্যানহাটন বাংলা ও সাংস্কৃতিক স্কুল, পন্ডিত কৃষাণ মাহারাজ তাল তরঙ্গ ইনস্টিটিউট, ওস্তাদ খুরশীদ খান ইনস্টিটিউট, হাবিবা এক্সপ্রেস প্রভৃতি।
কনভেনশনে আমন্ত্রিত শিল্পীদের তালিকায় ছিলেন বাংলাদেশের ‘ব্ল্যাক ডায়মন্ড’ খ্যাত জনপ্রিয় শিল্পী বেবী নাজনীন আর মমতাজ, ডলি সায়ন্তনী সহ পড়শী, সুমি, চুমকি, নাজ, রেজওয়ান প্রমুখ। আরো থাকবেন বলিউড তারকা মৌ মূখার্জী ও ঐশ্বরিয়া নিগম সহ প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা। কনভেনশনে প্রবেশাধিকার ছিলো ফ্রি। (সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)