নিউইয়র্ক ১২:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

নিউইয়র্ক কনস্যুলেটে অপ্রীতিকর ঘটনা

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১১:৪৫:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৫
  • / ৮২৮ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: বাংলা নতুন বর্ষবরণ উপলক্ষে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ কনস্যুলেট গত শনিবার (২৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় কনস্যুলেট মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আব্দুল মোমেন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে কনসাল জেনারেল শামীম আহসান উপস্থিত সবাইকে বাংলা নববর্ষের শুচ্ছো জানিয়ে বলেন, চলতি বৈশাখ মাসেই নিউইয়র্কের কনসুলেট অফিসে আরও দুটি মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট ইউনিট যোগ হচ্ছে। এতে গ্রাহক সেবার মান যেমন বাড়বে, তেমনি প্রবাসীদের কষ্টও লাঘব হবে।
অনুষ্ঠানে নিউইয়র্কের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট, সাহিত্যিক, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ছাড়াও বিপুল সংখ্যক প্রবাসী অনুষ্ঠানে অংশ নেন। অনুষ্ঠানে কনস্যুলেটের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সমবেত কন্ঠে বৈশাখী গান পরিবেশন করেন। এছাড়া শিশু-কিশোর ও আমন্ত্রিত অতিথি শিল্পিীদের পরিবেশনায় ছিল সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।
এদিকে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের একটি টিভি চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকাকে ‘মিডিয়া ব্যক্তিত্ব’ হিসেবে বিশেষভাবে সম্মানিত করায় এবং সাংবাদিকদের আসন না থাকায় উপস্থিত সাংবাদিকরা এর প্রতিবাদ জানান। এসময় কনসুলেটের কর্মকর্তাদের সাথে একাধিক সাংবাদিকের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। পরে সাংবাদিকরা কনস্যুলেট ভবন ত্যাগ করেন। এছাড়া ঐ অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানকে শুধুমাত্র ‘রাজনৈতিক ব্যক্তি’ হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়ায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়াও ব্যক্ত করেন এবং অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগের হুমকী দেন। এজন্য অবশ্য কনসাল জেনারেল ‘ক্ষমা’ প্রার্থনা করেন বলে ঐ প্রত্যক্ষদর্শী জানান। পরবর্তীতে উপস্থিত দর্শক-শ্রোতা বাংলা বর্ষরণ অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।(সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

নিউইয়র্ক কনস্যুলেটে অপ্রীতিকর ঘটনা

প্রকাশের সময় : ১১:৪৫:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৫

নিউইয়র্ক: বাংলা নতুন বর্ষবরণ উপলক্ষে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ কনস্যুলেট গত শনিবার (২৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় কনস্যুলেট মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আব্দুল মোমেন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে কনসাল জেনারেল শামীম আহসান উপস্থিত সবাইকে বাংলা নববর্ষের শুচ্ছো জানিয়ে বলেন, চলতি বৈশাখ মাসেই নিউইয়র্কের কনসুলেট অফিসে আরও দুটি মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট ইউনিট যোগ হচ্ছে। এতে গ্রাহক সেবার মান যেমন বাড়বে, তেমনি প্রবাসীদের কষ্টও লাঘব হবে।
অনুষ্ঠানে নিউইয়র্কের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট, সাহিত্যিক, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ছাড়াও বিপুল সংখ্যক প্রবাসী অনুষ্ঠানে অংশ নেন। অনুষ্ঠানে কনস্যুলেটের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সমবেত কন্ঠে বৈশাখী গান পরিবেশন করেন। এছাড়া শিশু-কিশোর ও আমন্ত্রিত অতিথি শিল্পিীদের পরিবেশনায় ছিল সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।
এদিকে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের একটি টিভি চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকাকে ‘মিডিয়া ব্যক্তিত্ব’ হিসেবে বিশেষভাবে সম্মানিত করায় এবং সাংবাদিকদের আসন না থাকায় উপস্থিত সাংবাদিকরা এর প্রতিবাদ জানান। এসময় কনসুলেটের কর্মকর্তাদের সাথে একাধিক সাংবাদিকের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। পরে সাংবাদিকরা কনস্যুলেট ভবন ত্যাগ করেন। এছাড়া ঐ অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানকে শুধুমাত্র ‘রাজনৈতিক ব্যক্তি’ হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়ায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়াও ব্যক্ত করেন এবং অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগের হুমকী দেন। এজন্য অবশ্য কনসাল জেনারেল ‘ক্ষমা’ প্রার্থনা করেন বলে ঐ প্রত্যক্ষদর্শী জানান। পরবর্তীতে উপস্থিত দর্শক-শ্রোতা বাংলা বর্ষরণ অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।(সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)