নিউইয়র্ক ১১:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

নিউইয়র্কে বেকার অসীম পালের আত্মহত্যা

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৬:১৮:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই ২০১৫
  • / ৬৬৩ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: ৫ তলায় নিজ এপার্টমেন্টের রান্না ঘরের জানালা থেকে লাফ দিয়ে বেকারত্বের যন্ত্রণা লাঘব করলেন নোয়াখালীর সুধারামপুরের সন্তান অসীম পাল (৪১)। নিউইয়র্ক সিটির বাংলাদেশী অধ্যুষিত ব্রুকলীনে চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড এলাকার অসীম পাল ৮ জুলাই বুধবার ভোর রাতে নিকটস্থ কিংস কাউন্টি হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন বলে তার স্ত্রী বিথি পাল জানান। এর কয়েক ঘন্টা আগে তিনি ৪৪৫, ইস্ট ফাইভ স্ট্রীটে নিজ বাসার রান্না ঘরের জানালা দিয়ে লাফ দেন। স্ত্রী-সন্তানদের আর্ত-চিৎকারে সকলে দৌড়ে নীচে থেকে তার নিথর দেহ উদ্ধার করে ঐ হাসপাতালে নেয়া হয়। জরুরী বিভাগের চিকিৎসকরা শত চেষ্টা করেও দুই শিশু সন্তানের জনক অসীম পালকে বাঁচাতে পারেনি।
বিথি পাল বলেন, ‘১৯৯৭ সালে ডিভি লটারি জিতে আমেরিকা এসেছিলেন অসীম পাল। এরপর দেশে গিয়ে আমাকে বিয়ে করেন। স্বামীর স্পন্সরে আমি আমেরিকায় এসেছি ২০০৫ সালে। আমাদের বড় সন্তান বিজয় সপ্তম গ্রেডে যাবে আসছে সেপ্টেম্বরে। অপর সন্তান পূর্ণতার বয়স ৪ বছর।’ বিথি পাল বলেন, ‘এ বছরের জানুয়ারী থেকেই আমার স্বামী বেকার। শত চেষ্টা করেও কাজ জুটাতে পারেননি। এরই মাঝে গত ফেব্রুয়ারীতে দেশে তার বড় ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। আমি কবীর’স বেকারিতে কাজ করে সংসারের ঘানি টানছি।’ ‘বেকার জীবন তার সহ্য হচ্ছিল না। মানসিকভাবে একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছিলেন। এখন আমি দুই শিশু সন্তান নিয়ে কীভাবে সংসার চালাবো সে দুশ্চিন্তায় পড়লাম।’
অসীম পালের মরদেহ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে। ময়না তদন্তের পর শুক্রবার মরদেহ পেলে তার শেষ কৃত্যানুষ্ঠানের প্রস্তুতি হিসেবে এলাকার হিন্দু সম্প্রদায় যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। একইসাথে নোয়াখালী সোসাইটির পক্ষ থেকেও তার দু:স্থ পরিবারের সহায়তায় কিছু করার চেষ্টা চলছে বলে সর্বশেষ সংবাদে জানা গেছে।- এনআরবি নিউজ

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

নিউইয়র্কে বেকার অসীম পালের আত্মহত্যা

প্রকাশের সময় : ০৬:১৮:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই ২০১৫

নিউইয়র্ক: ৫ তলায় নিজ এপার্টমেন্টের রান্না ঘরের জানালা থেকে লাফ দিয়ে বেকারত্বের যন্ত্রণা লাঘব করলেন নোয়াখালীর সুধারামপুরের সন্তান অসীম পাল (৪১)। নিউইয়র্ক সিটির বাংলাদেশী অধ্যুষিত ব্রুকলীনে চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড এলাকার অসীম পাল ৮ জুলাই বুধবার ভোর রাতে নিকটস্থ কিংস কাউন্টি হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন বলে তার স্ত্রী বিথি পাল জানান। এর কয়েক ঘন্টা আগে তিনি ৪৪৫, ইস্ট ফাইভ স্ট্রীটে নিজ বাসার রান্না ঘরের জানালা দিয়ে লাফ দেন। স্ত্রী-সন্তানদের আর্ত-চিৎকারে সকলে দৌড়ে নীচে থেকে তার নিথর দেহ উদ্ধার করে ঐ হাসপাতালে নেয়া হয়। জরুরী বিভাগের চিকিৎসকরা শত চেষ্টা করেও দুই শিশু সন্তানের জনক অসীম পালকে বাঁচাতে পারেনি।
বিথি পাল বলেন, ‘১৯৯৭ সালে ডিভি লটারি জিতে আমেরিকা এসেছিলেন অসীম পাল। এরপর দেশে গিয়ে আমাকে বিয়ে করেন। স্বামীর স্পন্সরে আমি আমেরিকায় এসেছি ২০০৫ সালে। আমাদের বড় সন্তান বিজয় সপ্তম গ্রেডে যাবে আসছে সেপ্টেম্বরে। অপর সন্তান পূর্ণতার বয়স ৪ বছর।’ বিথি পাল বলেন, ‘এ বছরের জানুয়ারী থেকেই আমার স্বামী বেকার। শত চেষ্টা করেও কাজ জুটাতে পারেননি। এরই মাঝে গত ফেব্রুয়ারীতে দেশে তার বড় ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। আমি কবীর’স বেকারিতে কাজ করে সংসারের ঘানি টানছি।’ ‘বেকার জীবন তার সহ্য হচ্ছিল না। মানসিকভাবে একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছিলেন। এখন আমি দুই শিশু সন্তান নিয়ে কীভাবে সংসার চালাবো সে দুশ্চিন্তায় পড়লাম।’
অসীম পালের মরদেহ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে। ময়না তদন্তের পর শুক্রবার মরদেহ পেলে তার শেষ কৃত্যানুষ্ঠানের প্রস্তুতি হিসেবে এলাকার হিন্দু সম্প্রদায় যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। একইসাথে নোয়াখালী সোসাইটির পক্ষ থেকেও তার দু:স্থ পরিবারের সহায়তায় কিছু করার চেষ্টা চলছে বলে সর্বশেষ সংবাদে জানা গেছে।- এনআরবি নিউজ