নিউইয়র্ক ১১:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

নিউইর্য়কে বন্দুকধারীর গুলিতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৩:২৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ ডিসেম্বর ২০১৪
  • / ৪৩৯ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরে ২০ ডিসেম্বর শনিবার  বিকালে ব্রুকলীনের বেডফোর্ড-স্টুভিসেন্ট এলাকায় পুলিশের এক টহল গাড়িকে লক্ষ্য করে অজ্ঞাতনামা বন্দুকধারী গুলি চালালে গুলিতে গুরুতর আহত হন গাড়িতে বসে থাকা দুই পুলিশ কর্মকর্তা লু ওয়েনজিন এবং রাফেইল র‌্যামস। সাথে সাথে তাদেরকে হাসপাতালে নেয়ার পর তারা মারা যান।
আত্মঘাতী ওই বন্দুকধারীর নাম ইসমাইল ব্রিনসলে। তার বয়স ২৮। ঘটনার সময় গাড়িতে বসা দুই পুলিশ অফিসারকে লক্ষ্য করে বন্দুক উঁচিয়ে গুলি করে ইসমাইল। পরে সে দৌড় দেয় সেখানকার নিকটবর্তী পাতাল সড়কের দিকে। যেখানে সে আত্মহত্যা করে। পুলিশ কমিশনার সূত্রে এ কথা বলা হয়।
পুলিশ আরও জানায়, এর আগে ইসমাইল তার বান্ধবীকে গুলি করে আহত করে। বাল্টিমোরে এ ঘটনা ঘটে। এরপর সে পুলিশ বিরোধী একটি বার্তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে। সেটি পুলিশের হাতে এসেছে। তাতে সে এরিখ গানার হত্যার জবাবে এ ঘটনা ঘটাবে বলে জানিয়েছিল।
উল্লেখ্য, বেশ কয়েক সপ্তাহ আগে এরিখ গানার নামের এক কৃষ্ণাঙ্গকে গলা চেপে হত্যা করে পুলিশ। এ ঘটনা কৃষ্ণাঙ্গদের মনে পুলিশের প্রতি নেতিবাচক ধারণা তৈরি করে। যার ফল স্বরূপ পুলিশের ওপর এ ধরনের আঘাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

নিউইর্য়কে বন্দুকধারীর গুলিতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

প্রকাশের সময় : ০৩:২৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ ডিসেম্বর ২০১৪

নিউইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরে ২০ ডিসেম্বর শনিবার  বিকালে ব্রুকলীনের বেডফোর্ড-স্টুভিসেন্ট এলাকায় পুলিশের এক টহল গাড়িকে লক্ষ্য করে অজ্ঞাতনামা বন্দুকধারী গুলি চালালে গুলিতে গুরুতর আহত হন গাড়িতে বসে থাকা দুই পুলিশ কর্মকর্তা লু ওয়েনজিন এবং রাফেইল র‌্যামস। সাথে সাথে তাদেরকে হাসপাতালে নেয়ার পর তারা মারা যান।
আত্মঘাতী ওই বন্দুকধারীর নাম ইসমাইল ব্রিনসলে। তার বয়স ২৮। ঘটনার সময় গাড়িতে বসা দুই পুলিশ অফিসারকে লক্ষ্য করে বন্দুক উঁচিয়ে গুলি করে ইসমাইল। পরে সে দৌড় দেয় সেখানকার নিকটবর্তী পাতাল সড়কের দিকে। যেখানে সে আত্মহত্যা করে। পুলিশ কমিশনার সূত্রে এ কথা বলা হয়।
পুলিশ আরও জানায়, এর আগে ইসমাইল তার বান্ধবীকে গুলি করে আহত করে। বাল্টিমোরে এ ঘটনা ঘটে। এরপর সে পুলিশ বিরোধী একটি বার্তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে। সেটি পুলিশের হাতে এসেছে। তাতে সে এরিখ গানার হত্যার জবাবে এ ঘটনা ঘটাবে বলে জানিয়েছিল।
উল্লেখ্য, বেশ কয়েক সপ্তাহ আগে এরিখ গানার নামের এক কৃষ্ণাঙ্গকে গলা চেপে হত্যা করে পুলিশ। এ ঘটনা কৃষ্ণাঙ্গদের মনে পুলিশের প্রতি নেতিবাচক ধারণা তৈরি করে। যার ফল স্বরূপ পুলিশের ওপর এ ধরনের আঘাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।