নিউইয়র্ক ০৯:১৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

খোশ আমদেদ মাহে রমজান

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৮:২১:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০১৫
  • / ১৪৭৮ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: চাঁদ দেখা সাপেক্ষে পবিত্র রমজান শুরু হচ্ছে। সিয়াম সাধনার মাস রমজান। খোশ আমদেদ মাহে রমজান। নিউইয়র্কসহ উত্তর আমেরিকায় ১৮ জুন বৃহসস্প্রতিবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু হলো। বাংলাদেশে রোজা শুরু হচ্ছে ১৯ জুন শুক্রবাবর থেকে। রমজান উপলক্ষ্যে উত্তর আমেরিকার মসজিদে শুরু হয়েছে তারাবীর নামাজ। সেই সাথে সমগ্র মুসলিম কমিউনিটিতে বিরাজ করছে রমজান মাসের আবহ।
এদিকে বাংলাদেশের আকাশে কোথাও বুধবার রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই দেশে মুসলমানদের রোজা রাখার মাস পবিত্র মাহে রমজান শুরু হচ্ছে শুক্রবার (১৯ জুন) থেকে। আর পবিত্র লাইলাতুল কদর পালিত হবে আগামী ১৪ জুলাই দিবাগত রাতে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে বুধবার (১৭ জুন) সন্ধ্যায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি ও ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা বিল্লাল বিন কাশেমের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সভায় ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান জানান, সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, আবহাওয়া অধিদফতর, মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী বাংলাদেশের কোথাও হিজরি ১৪৩৬ সনের রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই ১৮ জুন বৃহস্পতিবার শাবান মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হচ্ছে। ১৯ জুন শুক্রবার থেকে রমজান মাস শুরু হবে। আগামী ১৪ জুলাই মঙ্গলবার রাতে (রমজানের ২৭তম রাত) পবিত্র লাইলাতুল কদর পালিত হবে। সভায় ধর্ম সচিব চৌধুরী মোহাম্মদ বাবুল হাসান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা তছির আহাম্মদ, আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক মো. শাহ আলমসহ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, স্পারসো, ঢাকা জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের কাছে রমজান সংযম, আত্মশুদ্ধি ও ত্যাগের মাস। মাহে রমজান রহমত (আল্লাহর অনুগ্রহ), মাগফিরাত (ক্ষমা) ও নাজাত (দোজখের আগুন থেকে মুক্তি)- এ তিন অংশে বিভক্ত। এ মাসের শেষ অংশে রয়েছে হাজার মাসের এবাদতের চেয়েও উত্তম লাইলাতুল কদরের রাত। ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী এ মাসে প্রতিটি নেক আমলের সওয়াব আল্লাহ ৭০ গুণ বাড়িয়ে দেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

খোশ আমদেদ মাহে রমজান

প্রকাশের সময় : ০৮:২১:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০১৫

নিউইয়র্ক: চাঁদ দেখা সাপেক্ষে পবিত্র রমজান শুরু হচ্ছে। সিয়াম সাধনার মাস রমজান। খোশ আমদেদ মাহে রমজান। নিউইয়র্কসহ উত্তর আমেরিকায় ১৮ জুন বৃহসস্প্রতিবার থেকে পবিত্র রমজান শুরু হলো। বাংলাদেশে রোজা শুরু হচ্ছে ১৯ জুন শুক্রবাবর থেকে। রমজান উপলক্ষ্যে উত্তর আমেরিকার মসজিদে শুরু হয়েছে তারাবীর নামাজ। সেই সাথে সমগ্র মুসলিম কমিউনিটিতে বিরাজ করছে রমজান মাসের আবহ।
এদিকে বাংলাদেশের আকাশে কোথাও বুধবার রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই দেশে মুসলমানদের রোজা রাখার মাস পবিত্র মাহে রমজান শুরু হচ্ছে শুক্রবার (১৯ জুন) থেকে। আর পবিত্র লাইলাতুল কদর পালিত হবে আগামী ১৪ জুলাই দিবাগত রাতে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে বুধবার (১৭ জুন) সন্ধ্যায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি ও ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা বিল্লাল বিন কাশেমের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সভায় ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান জানান, সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, আবহাওয়া অধিদফতর, মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী বাংলাদেশের কোথাও হিজরি ১৪৩৬ সনের রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই ১৮ জুন বৃহস্পতিবার শাবান মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হচ্ছে। ১৯ জুন শুক্রবার থেকে রমজান মাস শুরু হবে। আগামী ১৪ জুলাই মঙ্গলবার রাতে (রমজানের ২৭তম রাত) পবিত্র লাইলাতুল কদর পালিত হবে। সভায় ধর্ম সচিব চৌধুরী মোহাম্মদ বাবুল হাসান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা তছির আহাম্মদ, আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক মো. শাহ আলমসহ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, স্পারসো, ঢাকা জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের কাছে রমজান সংযম, আত্মশুদ্ধি ও ত্যাগের মাস। মাহে রমজান রহমত (আল্লাহর অনুগ্রহ), মাগফিরাত (ক্ষমা) ও নাজাত (দোজখের আগুন থেকে মুক্তি)- এ তিন অংশে বিভক্ত। এ মাসের শেষ অংশে রয়েছে হাজার মাসের এবাদতের চেয়েও উত্তম লাইলাতুল কদরের রাত। ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী এ মাসে প্রতিটি নেক আমলের সওয়াব আল্লাহ ৭০ গুণ বাড়িয়ে দেন।