নিউইয়র্ক ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

কাইয়্যুম চৌধুরী’র মত অনুকরণীয় চিত্রশিল্পীর মৃত্যু নেই

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৬:১৩:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ নভেম্বর ২০১৪
  • / ৭৪৪ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি ড.এ.কে আব্দুল মোমেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী, একুশে পদক ও স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত কাইয়্যুম চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, কাইয়্যুম চৌধুরী বাংলাদেশ সময় রোববার (৩০ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের উৎসবে বক্তৃতা রাখতে গিয়ে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে তাকে ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে দেখে মৃত ঘোষণা করেন (ইন্নালিল্লাহে ……রাজেউন)।
ড.এ.কে আব্দুল মোমেন তার শোক বানীতে বলেন, কাইয়্যুম চৌধুরী ছিলেন বাংলাদেশের বাঙালী সংস্কৃতিসহ দেশের চারুকলা অঙ্গণের একজন অনুকরণীয় আদর্শ ব্যক্তিত্ব। দেশের শিল্প চর্চায় তিনি যে অবদান রেখেছেন তা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। মুক্তিযুদ্ধ ও প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তিনি যে অবদান রেখেছেন জাতি তার প্রতি চির কৃতজ্ঞ থাকবে।
ড. মোমেন আরো বলেন, মরহুম কাইয়্যুম চৌধুরী বাঙালী সংস্কৃতিকে তুলে ধরার জন্য বইয়ের প্রচ্ছদ ও অঙ্গসজ্জার পাশাপাশি তেল ও জল রঙে বাংলার লোকজ উপাদানগুলোকে চিত্রে আধুনিক ফর্মে ফুটিয়ে তুলতেন। তাঁর অনুপস্থিতি আমাদের জন্য অপুরনীয় ক্ষতি হয়ে গেল। তবে সংকটে, প্রয়োজনের মুহুর্তে তাঁর রেখে যাওয়া আদর্শিক চিত্রকর্ম আগামী দিনেও আমাদের সঠিক পথ দেখাবে। ড.মোমেন বলেন, এই মহৎ ব্যক্তির চিত্রকর্মের দিকে তাকালে তার দেশাত্ববোধ আমার হৃদয়ের গভীরে সার্বক্ষনিক অনুরণনের জন্ম দেয়। জাতি কৃতজ্ঞতার সঙ্গে তাঁর অবদানের কথা আজীবন স্মরণ করবে।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

কাইয়্যুম চৌধুরী’র মত অনুকরণীয় চিত্রশিল্পীর মৃত্যু নেই

প্রকাশের সময় : ০৬:১৩:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ নভেম্বর ২০১৪

নিউইয়র্ক: জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি ড.এ.কে আব্দুল মোমেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী, একুশে পদক ও স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত কাইয়্যুম চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, কাইয়্যুম চৌধুরী বাংলাদেশ সময় রোববার (৩০ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের উৎসবে বক্তৃতা রাখতে গিয়ে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে তাকে ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে দেখে মৃত ঘোষণা করেন (ইন্নালিল্লাহে ……রাজেউন)।
ড.এ.কে আব্দুল মোমেন তার শোক বানীতে বলেন, কাইয়্যুম চৌধুরী ছিলেন বাংলাদেশের বাঙালী সংস্কৃতিসহ দেশের চারুকলা অঙ্গণের একজন অনুকরণীয় আদর্শ ব্যক্তিত্ব। দেশের শিল্প চর্চায় তিনি যে অবদান রেখেছেন তা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। মুক্তিযুদ্ধ ও প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তিনি যে অবদান রেখেছেন জাতি তার প্রতি চির কৃতজ্ঞ থাকবে।
ড. মোমেন আরো বলেন, মরহুম কাইয়্যুম চৌধুরী বাঙালী সংস্কৃতিকে তুলে ধরার জন্য বইয়ের প্রচ্ছদ ও অঙ্গসজ্জার পাশাপাশি তেল ও জল রঙে বাংলার লোকজ উপাদানগুলোকে চিত্রে আধুনিক ফর্মে ফুটিয়ে তুলতেন। তাঁর অনুপস্থিতি আমাদের জন্য অপুরনীয় ক্ষতি হয়ে গেল। তবে সংকটে, প্রয়োজনের মুহুর্তে তাঁর রেখে যাওয়া আদর্শিক চিত্রকর্ম আগামী দিনেও আমাদের সঠিক পথ দেখাবে। ড.মোমেন বলেন, এই মহৎ ব্যক্তির চিত্রকর্মের দিকে তাকালে তার দেশাত্ববোধ আমার হৃদয়ের গভীরে সার্বক্ষনিক অনুরণনের জন্ম দেয়। জাতি কৃতজ্ঞতার সঙ্গে তাঁর অবদানের কথা আজীবন স্মরণ করবে।