নিউইয়র্ক ১০:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

কবি শহীদ কাদরী আর নেই

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৩৫:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ অগাস্ট ২০১৬
  • / ৬৯৭ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: বাংলা একাডেমী ও একুশে পদক প্রাপ্ত, নিউইয়র্ক প্রবাসী বাংলা ভাষার অন্যতম প্রধান কবি শহীদ কাদরী আর নেই। ২৮ অগষ্ট রোববার স্থানীয় সময় সকাল সাতটায় তিনি নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডস্থ নর্থ শোর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি … রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনী সমস্যয় ভুগছিলেন। গত সপ্তাহে উচ্চ রক্তচাপ এবং তাপমাত্রাজনিত কারণে গুরুতর অসুস্থ হয়ে তাকে গত ২২ আগষ্ট সোমবার নর্থ শোর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে আইসিইউতে রাখা হয়। কবির একমাত্র ছেলে আদনান কাদরী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তার বাবার জানাজা ও দাফনের বিষয়ে (এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। সবার সঙ্গে পরামর্শ করে তা ঠিক করা হবে।
পঞ্চাশ-উত্তর বাংলা কবিতায় আধুনিক মনন ও জীবনবোধ সৃষ্টিতে যে ক’জন কবি উল্লেখযোগ্য তাদের মধ্য অন্যতম শহীদ কাদরী। আধুনিক নাগরিক জীবনের সুখ-দুঃখ, প্রেম, স্বদেশচেতনার পাশাপাশি বিশ্ব-নাগরিক বোধের সম্মিলন ঘটে তার কবিতায়। ‘উত্তরাধিকার’, ‘তোমাকে অভিবাদন প্রিয়তমা’ এবং ‘কোথাও কোন ক্রন্দন নেই’ এসব কাব্যগ্রন্থের জন্যই বাংলার জনপ্রিয় কবিদের একজন শহীদ কাদরী। ১৯৭৩ সালে বাংলা একাডেমি ও ২০১১ একুশে পদক পান তিনি। ১৯৭৮ সালের পর থেকেই তিনি বাংলাদেশের বাইরে অবস্থান করছেন। জার্মানি, ইংল্যান্ড হয়ে সর্বশেষে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী হন। তিনি স্ত্রী নিরা কাদরী আর পুত্রকে নিয়ে নিউইয়র্কের জ্যামাইকায় বসবাস করতেন। যুক্তরাষ্ট্রের গ্রীনকার্ডধারী কবি শহীদ কাদরী দীর্ঘ প্রবাস জীবনে থাকলেও দেশপ্রেমের কারণে নাকি তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেননি বলে তার ঘনিষ্টরা জানান।
নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের শোক:কবি শহীদ কাদরীর ইন্তেকালে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক এবিএম সালাহউদ্দিন আহমেদ এক বার্তায় গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। শোক বার্তায় তারা কবির বিদেহী আতœার শান্তি কামনা করেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

কবি শহীদ কাদরী আর নেই

প্রকাশের সময় : ০৮:৩৫:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ অগাস্ট ২০১৬

নিউইয়র্ক: বাংলা একাডেমী ও একুশে পদক প্রাপ্ত, নিউইয়র্ক প্রবাসী বাংলা ভাষার অন্যতম প্রধান কবি শহীদ কাদরী আর নেই। ২৮ অগষ্ট রোববার স্থানীয় সময় সকাল সাতটায় তিনি নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডস্থ নর্থ শোর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি … রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনী সমস্যয় ভুগছিলেন। গত সপ্তাহে উচ্চ রক্তচাপ এবং তাপমাত্রাজনিত কারণে গুরুতর অসুস্থ হয়ে তাকে গত ২২ আগষ্ট সোমবার নর্থ শোর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে আইসিইউতে রাখা হয়। কবির একমাত্র ছেলে আদনান কাদরী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তার বাবার জানাজা ও দাফনের বিষয়ে (এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। সবার সঙ্গে পরামর্শ করে তা ঠিক করা হবে।
পঞ্চাশ-উত্তর বাংলা কবিতায় আধুনিক মনন ও জীবনবোধ সৃষ্টিতে যে ক’জন কবি উল্লেখযোগ্য তাদের মধ্য অন্যতম শহীদ কাদরী। আধুনিক নাগরিক জীবনের সুখ-দুঃখ, প্রেম, স্বদেশচেতনার পাশাপাশি বিশ্ব-নাগরিক বোধের সম্মিলন ঘটে তার কবিতায়। ‘উত্তরাধিকার’, ‘তোমাকে অভিবাদন প্রিয়তমা’ এবং ‘কোথাও কোন ক্রন্দন নেই’ এসব কাব্যগ্রন্থের জন্যই বাংলার জনপ্রিয় কবিদের একজন শহীদ কাদরী। ১৯৭৩ সালে বাংলা একাডেমি ও ২০১১ একুশে পদক পান তিনি। ১৯৭৮ সালের পর থেকেই তিনি বাংলাদেশের বাইরে অবস্থান করছেন। জার্মানি, ইংল্যান্ড হয়ে সর্বশেষে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী হন। তিনি স্ত্রী নিরা কাদরী আর পুত্রকে নিয়ে নিউইয়র্কের জ্যামাইকায় বসবাস করতেন। যুক্তরাষ্ট্রের গ্রীনকার্ডধারী কবি শহীদ কাদরী দীর্ঘ প্রবাস জীবনে থাকলেও দেশপ্রেমের কারণে নাকি তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেননি বলে তার ঘনিষ্টরা জানান।
নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের শোক:কবি শহীদ কাদরীর ইন্তেকালে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক এবিএম সালাহউদ্দিন আহমেদ এক বার্তায় গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। শোক বার্তায় তারা কবির বিদেহী আতœার শান্তি কামনা করেন।