নিউইয়র্ক ০৯:১৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

আওয়ামী লীগ করলে ৭ খুন মাফ : সাক্ষাৎকারে নায়ক হেলাল খান

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৫৩:৫৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ অক্টোবর ২০১৫
  • / ২২৭০ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: ‘বাংলাদেশ যে কতটা ক্রান্ত্রিকাল অতিক্রম করছে তা আর ভাষায় বলা যাবে না। যেখানে দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদ, সামাজিক সাংষ্কৃতিক কর্মী, নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক, অভিনেতা-অভিনেত্রী, কণ্ঠশিল্পী কেউ রেহায় পায়নি এই সরকারের দু:শাসন থেকে। ওরা ১১ জন খ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক চাষি নজরুল ইসলাম (আমাদের চাষি ভাই), জয় বাংলা, বাংলার গানের রচিয়তা গাজী মাজহারুল আনোয়ার ভাই’র মত লিজেন্ডরাও দেশ-প্রেমিক মুক্তিযোদ্ধা হয়ে আজকে রাজাকার।’ আক্ষেপের সূরে এমন কথাগুলো বলছেন হাছন রাজা খ্যাত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’সহ বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কারপ্রাপ্ত জনপ্রিয় সিনেমার নায়ক হেলাল খান। সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৩ মাসেরও বেশী সময় ধরে কারাভোগ করে নিউইয়র্ক সফরে এসে মুখিমুখি হন টাইম টেলিভিশন ও বাংলা পত্রিকা’র। খোলা-মেলা কথা বলেন, দেশের রাজনীতি, সমাজনীতি শিল্প ও সাংস্কৃতিক আগ্রাসন বিষয়ে। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্র পূণ:রুদ্ধারে আমাদের নেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া যখন আন্দলন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন, ঠিক তখনই ক্ষমতালোভী সরকারের মাথা নষ্ট হয়ে গেছে। বিনা-বিচারে হত্যা, খুন-গুম’সহ দলের শীর্ষ নেতা ও সাধারণ নেতাকর্মীদের আটক করে নির্যাতন করেছে যা অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে।’
আক্ষেপ করে এই অভিনেতা বলেন, ‘দেখুন ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস। আমাদের নেত্রী ও বাংলাদেশের ৩ তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রেখে টেলিফোন লাইন ও ইন্টারনেট, পানি, বিদ্যুৎ এবং গ্যাস লাইন সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার মত ন্যাক্কারজনক ঘটনার নজির স্থাপন করেছে। বাংলাদেশের জনপ্রিয় কোকিলা কণ্ঠের কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীনকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। তাকে ছাড়িয়ে আনার পরদিনই আমাকে আটক করে।’
Helal Khan Intervew'2015হেলাল খান বলেন, ‘অত্যান্ত লজ্জাস্কর বিষয় হচ্ছে; সরকার ২০ দলের আন্দোলনকে ভন্ডুল করতে পুলিশের সহায়তায় দলীয় কর্মী দিয়ে সাধারণ মানুষের ওপর পেট্রোল বোমা মেরে তার দায় চাপানো হয়েছে; বিএনপির মত এত বড় দলের শীর্ষ ও সিনিয়র নেতাদের ওপর। আটক করে বিষ্ফোরক মামলায় রিমান্ডে নির্যাতনও করেছে। আমি অবাক হয়েছি আমাকেও একই মামলায় আটক করে রিমান্ডে নিয়েছে। আপনার কাছেই আমার প্রশ্ন দীর্ঘ এতটা বছর আমি অভিনয় করে আসছি; কোন গাড়ীতে কী আমি পেট্রোল বোমা মারতে পারি? আপনি কী তা বিশ্বাস করেন? দেশের মানুষও করবে না।’ তিনি বলেন, ‘যখন সকল নেতাদের কারাগারে আটক করে রাখা হয়েছে। নেত্রী আমাদের ডেকে বললেন, তোমরা সাংষ্কৃতিক কর্মীরা সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলো। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে তোমাদের সাথে দেশের সাধারণ জনগণকে সম্পৃক্ত করো। কিন্তু সরকার আমাদেরও রেহাই দেয়নি। বিষ্ফোরক দ্রব্যের মত নীচক মিথ্যা মামলায় আটক করে নিয়ে যায়।’
হেলাল খান আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের অতি জনপ্রিয় ও মুক্তিযোদ্ধা চাষী নজরুল ইসলামের মত একজন শীর্ষ চলচ্চিত্র পরিচালক মারা যাওয়ার পর তাকেও যথাযথ সম্মান দেয়নি সরকার। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করতে পারতো। তিনি ছিলেন একমাত্র মুক্তিযুদ্ধের ওপর নির্মিত জনপ্রিয় ছবি ওরা ১১ জন’র সফল নির্মাতা। বস্তুত আওয়ামী লীগ করলে সাত খুন মাফ। আর আওয়ামী লীগের বাইরে কোন দেশপ্রেমিক কিংবা মুক্তিযোদ্ধা হয়ে যায় রাজাকার কিংবা দেশোদ্রোহী। যা সত্যিই আমাদের দেশের শিল্প, সংষ্কৃতি কিংবা ইতিহাস ঐতিহ্যের ওপর আঘাত। এভাবে দেশ চলতে পারে না।’
তবে, আমি আশাবাদি অতীতের স্বৈরাচারী কোন সরকার জোরপূর্বক বেশীদিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি। এই ফ্যাসিস আওয়ামী লীগ সরকারও পারবে না। এমন দাবি করেন হেলার খান তার নিউইয়র্ক সফরে সম্পর্কে বলেন, ‘আমার পরিবারের সদস্যরা এখানে বসবাস করছেন। তাই অগণতান্ত্রিক সরকারের কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে পরিজনদের সাথে দেখা করতে ও বেড়াতে এসেছি। দীর্ঘদিন আমিও এখানে ছিলাম। তবে, খুব শিগগিরই দেশে ফিরে যাবো। আমাদের আন্দোলন দমিয়ে রাখা যাবে না। চলছে চলবে।’
চিত্রনায়ক হেলাল খান অভিনয়ের গুনে ২০০৭ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। বিখ্যাত ও প্রয়াত চলচ্চিত্র পরিচালক চাষী নজরুল ইসলামের পরিচালিত হাছন রাজা সিনেমায় অভিয়নয় করে একালের ‘হাছন রাজা’ বণে যান তিনি।
উল্লেখ্য, চলচ্চিত্র অভিনেতা ও জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস)-এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নেতা হেলাল খানকে পুরান ঢাকার জনসন রোড এলাকা থেকে গত ১৬ ফেব্রুয়ারী সোমবার বিকেল ৪টার দিকে আটক করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পরে ১৭ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার দুপুরে বাড্ডা থানার একটি মামলায় (নম্বর ৩(২)১৫) গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাবরিনা আলীর আদালত।
রিমান্ডে নেয়ার পর গণমাধ্যমকে পুলিশ জানায়, গাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগে হেলাল খানের বিরুদ্ধে ২ ফেব্রুয়ারি বাড্ডা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি করেন বাড্ডা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাবিব। তার দায়েরকৃত মামলার সূত্র ধরেই ১৭ ফেব্রুয়ারি হেলাল খানের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ আমলে নিয়েই দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকা মহানগর হাকিম সাবরিনা আলীর আদালত। দীর্ঘ ৩ মাস কারাভোগের পর জামিনে মুক্ত হয়ে সম্প্রতি নিউইয়র্ক সফরে আসেন তিনি।
আরো উল্লেখ্য, এরআগে গেল ১৫ ফেব্রুয়ারী রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের সামনে থেকে দেশের আরেক খ্যাতিম্যান সঙ্গীতশিল্পী ও জাসাস নেত্রী এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বেবী নাজনীনকে পুলিশ আটক করেছিল। যদিও আটকের পর ওইদিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে গুলশান থানা পুলিশ বেবী নাজনীনকে ছেড়ে দেয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

আওয়ামী লীগ করলে ৭ খুন মাফ : সাক্ষাৎকারে নায়ক হেলাল খান

প্রকাশের সময় : ০৯:৫৩:৫৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ অক্টোবর ২০১৫

নিউইয়র্ক: ‘বাংলাদেশ যে কতটা ক্রান্ত্রিকাল অতিক্রম করছে তা আর ভাষায় বলা যাবে না। যেখানে দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদ, সামাজিক সাংষ্কৃতিক কর্মী, নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক, অভিনেতা-অভিনেত্রী, কণ্ঠশিল্পী কেউ রেহায় পায়নি এই সরকারের দু:শাসন থেকে। ওরা ১১ জন খ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক চাষি নজরুল ইসলাম (আমাদের চাষি ভাই), জয় বাংলা, বাংলার গানের রচিয়তা গাজী মাজহারুল আনোয়ার ভাই’র মত লিজেন্ডরাও দেশ-প্রেমিক মুক্তিযোদ্ধা হয়ে আজকে রাজাকার।’ আক্ষেপের সূরে এমন কথাগুলো বলছেন হাছন রাজা খ্যাত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’সহ বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কারপ্রাপ্ত জনপ্রিয় সিনেমার নায়ক হেলাল খান। সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৩ মাসেরও বেশী সময় ধরে কারাভোগ করে নিউইয়র্ক সফরে এসে মুখিমুখি হন টাইম টেলিভিশন ও বাংলা পত্রিকা’র। খোলা-মেলা কথা বলেন, দেশের রাজনীতি, সমাজনীতি শিল্প ও সাংস্কৃতিক আগ্রাসন বিষয়ে। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্র পূণ:রুদ্ধারে আমাদের নেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া যখন আন্দলন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন, ঠিক তখনই ক্ষমতালোভী সরকারের মাথা নষ্ট হয়ে গেছে। বিনা-বিচারে হত্যা, খুন-গুম’সহ দলের শীর্ষ নেতা ও সাধারণ নেতাকর্মীদের আটক করে নির্যাতন করেছে যা অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে।’
আক্ষেপ করে এই অভিনেতা বলেন, ‘দেখুন ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস। আমাদের নেত্রী ও বাংলাদেশের ৩ তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রেখে টেলিফোন লাইন ও ইন্টারনেট, পানি, বিদ্যুৎ এবং গ্যাস লাইন সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার মত ন্যাক্কারজনক ঘটনার নজির স্থাপন করেছে। বাংলাদেশের জনপ্রিয় কোকিলা কণ্ঠের কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীনকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। তাকে ছাড়িয়ে আনার পরদিনই আমাকে আটক করে।’
Helal Khan Intervew'2015হেলাল খান বলেন, ‘অত্যান্ত লজ্জাস্কর বিষয় হচ্ছে; সরকার ২০ দলের আন্দোলনকে ভন্ডুল করতে পুলিশের সহায়তায় দলীয় কর্মী দিয়ে সাধারণ মানুষের ওপর পেট্রোল বোমা মেরে তার দায় চাপানো হয়েছে; বিএনপির মত এত বড় দলের শীর্ষ ও সিনিয়র নেতাদের ওপর। আটক করে বিষ্ফোরক মামলায় রিমান্ডে নির্যাতনও করেছে। আমি অবাক হয়েছি আমাকেও একই মামলায় আটক করে রিমান্ডে নিয়েছে। আপনার কাছেই আমার প্রশ্ন দীর্ঘ এতটা বছর আমি অভিনয় করে আসছি; কোন গাড়ীতে কী আমি পেট্রোল বোমা মারতে পারি? আপনি কী তা বিশ্বাস করেন? দেশের মানুষও করবে না।’ তিনি বলেন, ‘যখন সকল নেতাদের কারাগারে আটক করে রাখা হয়েছে। নেত্রী আমাদের ডেকে বললেন, তোমরা সাংষ্কৃতিক কর্মীরা সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলো। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে তোমাদের সাথে দেশের সাধারণ জনগণকে সম্পৃক্ত করো। কিন্তু সরকার আমাদেরও রেহাই দেয়নি। বিষ্ফোরক দ্রব্যের মত নীচক মিথ্যা মামলায় আটক করে নিয়ে যায়।’
হেলাল খান আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের অতি জনপ্রিয় ও মুক্তিযোদ্ধা চাষী নজরুল ইসলামের মত একজন শীর্ষ চলচ্চিত্র পরিচালক মারা যাওয়ার পর তাকেও যথাযথ সম্মান দেয়নি সরকার। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করতে পারতো। তিনি ছিলেন একমাত্র মুক্তিযুদ্ধের ওপর নির্মিত জনপ্রিয় ছবি ওরা ১১ জন’র সফল নির্মাতা। বস্তুত আওয়ামী লীগ করলে সাত খুন মাফ। আর আওয়ামী লীগের বাইরে কোন দেশপ্রেমিক কিংবা মুক্তিযোদ্ধা হয়ে যায় রাজাকার কিংবা দেশোদ্রোহী। যা সত্যিই আমাদের দেশের শিল্প, সংষ্কৃতি কিংবা ইতিহাস ঐতিহ্যের ওপর আঘাত। এভাবে দেশ চলতে পারে না।’
তবে, আমি আশাবাদি অতীতের স্বৈরাচারী কোন সরকার জোরপূর্বক বেশীদিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি। এই ফ্যাসিস আওয়ামী লীগ সরকারও পারবে না। এমন দাবি করেন হেলার খান তার নিউইয়র্ক সফরে সম্পর্কে বলেন, ‘আমার পরিবারের সদস্যরা এখানে বসবাস করছেন। তাই অগণতান্ত্রিক সরকারের কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে পরিজনদের সাথে দেখা করতে ও বেড়াতে এসেছি। দীর্ঘদিন আমিও এখানে ছিলাম। তবে, খুব শিগগিরই দেশে ফিরে যাবো। আমাদের আন্দোলন দমিয়ে রাখা যাবে না। চলছে চলবে।’
চিত্রনায়ক হেলাল খান অভিনয়ের গুনে ২০০৭ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। বিখ্যাত ও প্রয়াত চলচ্চিত্র পরিচালক চাষী নজরুল ইসলামের পরিচালিত হাছন রাজা সিনেমায় অভিয়নয় করে একালের ‘হাছন রাজা’ বণে যান তিনি।
উল্লেখ্য, চলচ্চিত্র অভিনেতা ও জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস)-এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নেতা হেলাল খানকে পুরান ঢাকার জনসন রোড এলাকা থেকে গত ১৬ ফেব্রুয়ারী সোমবার বিকেল ৪টার দিকে আটক করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পরে ১৭ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার দুপুরে বাড্ডা থানার একটি মামলায় (নম্বর ৩(২)১৫) গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাবরিনা আলীর আদালত।
রিমান্ডে নেয়ার পর গণমাধ্যমকে পুলিশ জানায়, গাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগে হেলাল খানের বিরুদ্ধে ২ ফেব্রুয়ারি বাড্ডা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি করেন বাড্ডা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাবিব। তার দায়েরকৃত মামলার সূত্র ধরেই ১৭ ফেব্রুয়ারি হেলাল খানের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ আমলে নিয়েই দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকা মহানগর হাকিম সাবরিনা আলীর আদালত। দীর্ঘ ৩ মাস কারাভোগের পর জামিনে মুক্ত হয়ে সম্প্রতি নিউইয়র্ক সফরে আসেন তিনি।
আরো উল্লেখ্য, এরআগে গেল ১৫ ফেব্রুয়ারী রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের সামনে থেকে দেশের আরেক খ্যাতিম্যান সঙ্গীতশিল্পী ও জাসাস নেত্রী এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বেবী নাজনীনকে পুলিশ আটক করেছিল। যদিও আটকের পর ওইদিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে গুলশান থানা পুলিশ বেবী নাজনীনকে ছেড়ে দেয়।