নিউইয়র্ক ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে বসানো হলো পেসমেকার

হককথা ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : ০৮:০৩:১৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
  • / ৫৯ বার পঠিত

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে ‘পেসমেকার’ লাগিয়েছে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক টিম।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক প্রফেসর ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন একথা জানান।

তিনি বলেন, ম্যাডামের হৃদরোগের সমস্যা পূর্ব থেকেই ছিলো। সেজন্য হার্টে ব্লক ছিলো, একটা স্টেনটিংও (রিং) করা ছিলো। সব কিছু পর্যালোচনা করে এখন মেডিকেলে বোর্ড ম্যাডামের হার্টে পেসমেকার বসানোর সিদ্ধান্ত নেয়। পেসমেকার লাগানো সম্পন্ন হয়েছে। তাকে এখন ৭২ ঘণ্টা নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। ডা. জাহিদ জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পরিবার ও বিএনপি এজন্য দেশবাসীর কাছে দোয়ার চেয়েছেন।

পেসমেকার হৃদযন্ত্রের নিয়মিত ছন্দে চলতে সাহায্য করে। যখন হৃদযন্ত্রের স্পন্দন ঠিকমতো চলছে কি না সেটাও এই যন্ত্র তদারকি করে। চিকিৎসকরা জানান, হৃৎপিন্ডের ডান অ্যাট্রিয়াম প্রাচীরে উপর দিকে অবস্থিত বিশেষায়িত কার্ডিয়াক পেশিগুচ্ছে গঠিত ও স্বয়ংক্রিয় স্নায়ুতন্ত্রে নিয়ন্ত্রিত একটি ছোট অংশ যা বৈদ্যুতিক তরঙ্গ প্রবাহ ছড়িয়ে দিয়ে হৃৎস্পন্দন সৃষ্টি করে এবং স্পন্দনের ছন্দময়তা বজায় রাখে এই পেসমেকার।

জানা গেছে, দুপুর থেকে খালেদা জিয়ার হৃদপিন্ডে পেসমেকার লাগানোর কাজ শুরু করে এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

হঠাৎ অসুস্থতার কারণে শুক্রবার গভীর রাতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অ্যাম্বুলেন্সে করে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে চিকিৎসাধীন আছেন। শনিবার থেকে কয়েক দফা মেডিকেল বোর্ড বৈঠকে বসে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর হৃদপিন্ডে পেসমেকার লাগানোর সিদ্ধান্ত দেন।

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে বিশেষজ্ঞ চিকিসকদের নিয়ে মেডিকেল বোর্ড বেগম জিয়া চিকিৎসাধীন আছেন।

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক প্রফেসর শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে প্রফেসর ডা. এফএম সিদ্দিকী, প্রফেসর ডা. শামসুল আরেফিন, প্রফেসর ডা. একিউএম মহসিনসহ মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা কয়েক দফা বৈঠকে বসে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সর্বশেষ অবস্থা পর্যালোচনা করেছেন। মেডিকেল বোর্ডের এসব সভায় লন্ডন থেকে ডা. জোবায়েদা রহমানসহ যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়ার কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ভার্চুয়ালি যুক্ত থাকেন।

৭৯ বছর বয়সী খালেদা জিয়া ডায়াবেটিস, আর্থারাইটিস ছাড়াও হৃদরোগ, ফুসফুস, লিভার, কিডনি, বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছেন। সূত্র: ইনিকলাব।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে বসানো হলো পেসমেকার

প্রকাশের সময় : ০৮:০৩:১৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার হৃদযন্ত্রে ‘পেসমেকার’ লাগিয়েছে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক টিম।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক প্রফেসর ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন একথা জানান।

তিনি বলেন, ম্যাডামের হৃদরোগের সমস্যা পূর্ব থেকেই ছিলো। সেজন্য হার্টে ব্লক ছিলো, একটা স্টেনটিংও (রিং) করা ছিলো। সব কিছু পর্যালোচনা করে এখন মেডিকেলে বোর্ড ম্যাডামের হার্টে পেসমেকার বসানোর সিদ্ধান্ত নেয়। পেসমেকার লাগানো সম্পন্ন হয়েছে। তাকে এখন ৭২ ঘণ্টা নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। ডা. জাহিদ জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পরিবার ও বিএনপি এজন্য দেশবাসীর কাছে দোয়ার চেয়েছেন।

পেসমেকার হৃদযন্ত্রের নিয়মিত ছন্দে চলতে সাহায্য করে। যখন হৃদযন্ত্রের স্পন্দন ঠিকমতো চলছে কি না সেটাও এই যন্ত্র তদারকি করে। চিকিৎসকরা জানান, হৃৎপিন্ডের ডান অ্যাট্রিয়াম প্রাচীরে উপর দিকে অবস্থিত বিশেষায়িত কার্ডিয়াক পেশিগুচ্ছে গঠিত ও স্বয়ংক্রিয় স্নায়ুতন্ত্রে নিয়ন্ত্রিত একটি ছোট অংশ যা বৈদ্যুতিক তরঙ্গ প্রবাহ ছড়িয়ে দিয়ে হৃৎস্পন্দন সৃষ্টি করে এবং স্পন্দনের ছন্দময়তা বজায় রাখে এই পেসমেকার।

জানা গেছে, দুপুর থেকে খালেদা জিয়ার হৃদপিন্ডে পেসমেকার লাগানোর কাজ শুরু করে এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

হঠাৎ অসুস্থতার কারণে শুক্রবার গভীর রাতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অ্যাম্বুলেন্সে করে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে চিকিৎসাধীন আছেন। শনিবার থেকে কয়েক দফা মেডিকেল বোর্ড বৈঠকে বসে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর হৃদপিন্ডে পেসমেকার লাগানোর সিদ্ধান্ত দেন।

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে বিশেষজ্ঞ চিকিসকদের নিয়ে মেডিকেল বোর্ড বেগম জিয়া চিকিৎসাধীন আছেন।

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক প্রফেসর শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে প্রফেসর ডা. এফএম সিদ্দিকী, প্রফেসর ডা. শামসুল আরেফিন, প্রফেসর ডা. একিউএম মহসিনসহ মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা কয়েক দফা বৈঠকে বসে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সর্বশেষ অবস্থা পর্যালোচনা করেছেন। মেডিকেল বোর্ডের এসব সভায় লন্ডন থেকে ডা. জোবায়েদা রহমানসহ যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়ার কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ভার্চুয়ালি যুক্ত থাকেন।

৭৯ বছর বয়সী খালেদা জিয়া ডায়াবেটিস, আর্থারাইটিস ছাড়াও হৃদরোগ, ফুসফুস, লিভার, কিডনি, বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছেন। সূত্র: ইনিকলাব।