নিউইয়র্ক ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

স্বজনদের সাক্ষাৎ : ধৈর্য ধরতে বললেন কামারুজ্জামান

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:২২:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • / ৭১১ বার পঠিত

ঢাকা: মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহম্মদ কামারুজ্জামানের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন পরিবারের সদস্যরা। এ সময় তিনি তার পরিবারের সদস্যদের ধৈর্য ধরতে বলেছেন। দেশবাসীর কাছে দোয়াও চেয়েছেন তিনি। ২৮ ফেব্রুয়ারী শনিবার সকালে তার স্ত্রী নূরুন্নাহারসহ পরিবারের ৮ সদস্য তার সাথে দেখা করেন।
কারাগারে কামারুজ্জামানের সাথে সাক্ষাৎকারী পরিবারের অন্যরা হলেন- কামারুজ্জামানের মেয়ে আফিয়া নূর, পুত্রবধূ শামীম আরা, শ্যালক আবুল কালাম আজাদ, ভাগ্নে সানোয়ার হোসেন এবং তিন ভাগ্নি রোকসানা জেবিন, শাহানা জেবিন ও আফরোজা জাহান। শনিবার বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে কারাগার থেকে বেরিয়ে পরিবারের সদস্যরা আইনজীবীদের সাথে কথা বলেন। এরপর কামারুজ্জামানের আইনজীবী শিশির মনির সাংবাদিকদের বলেন, কামারুজ্জামানের পরিবারের আটজন কারাগারের ভেতরে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করেছেন। আজকের এই নিয়মিত সাক্ষাতে কামারুজ্জামান জানিয়েছেন, তাকে যে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়েছে সেই রায়ে তিনি মোটেও বিচলিত নন। তিনি মনে করেন, সম্পূর্ণরূপে তিনি নির্দোষ। যে অভিযোগে তাকে মৃত্যু দেওয়া হয়েছে সেই ঘটনার সঙ্গে তিনি কোনোভাবেই যুক্ত ছিলেন না।
কামারুজ্জামান আরো বলেছেন, তিনি মোটেও বিচলিত নন। এই পরিস্থিতিতে তিনি যেন সাহসের সঙ্গে ধৈর্য ধারণ করতে পারেন সে জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
শিশির মনির আরো বলেন, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী কামারুজ্জামানের পরিবারের সদস্যদের পুলিশ বেআইনিভাবে হয়রানি করেছে। কোনো প্রকার ওয়ারেন্ট ছাড়াই তার বাসা তল্লাশী চালিয়েছে। ফলে আজ তারা পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। তিনি বলেন, কামারুজ্জামান মনে করেন, যে কারণে তাকে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়েছে এ দেশের তরুণ সমাজ একদিন সত্য উদঘাটিত করবে।(দৈনিক নয়া দিগন্ত)

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

স্বজনদের সাক্ষাৎ : ধৈর্য ধরতে বললেন কামারুজ্জামান

প্রকাশের সময় : ০৯:২২:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

ঢাকা: মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহম্মদ কামারুজ্জামানের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন পরিবারের সদস্যরা। এ সময় তিনি তার পরিবারের সদস্যদের ধৈর্য ধরতে বলেছেন। দেশবাসীর কাছে দোয়াও চেয়েছেন তিনি। ২৮ ফেব্রুয়ারী শনিবার সকালে তার স্ত্রী নূরুন্নাহারসহ পরিবারের ৮ সদস্য তার সাথে দেখা করেন।
কারাগারে কামারুজ্জামানের সাথে সাক্ষাৎকারী পরিবারের অন্যরা হলেন- কামারুজ্জামানের মেয়ে আফিয়া নূর, পুত্রবধূ শামীম আরা, শ্যালক আবুল কালাম আজাদ, ভাগ্নে সানোয়ার হোসেন এবং তিন ভাগ্নি রোকসানা জেবিন, শাহানা জেবিন ও আফরোজা জাহান। শনিবার বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে কারাগার থেকে বেরিয়ে পরিবারের সদস্যরা আইনজীবীদের সাথে কথা বলেন। এরপর কামারুজ্জামানের আইনজীবী শিশির মনির সাংবাদিকদের বলেন, কামারুজ্জামানের পরিবারের আটজন কারাগারের ভেতরে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করেছেন। আজকের এই নিয়মিত সাক্ষাতে কামারুজ্জামান জানিয়েছেন, তাকে যে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়েছে সেই রায়ে তিনি মোটেও বিচলিত নন। তিনি মনে করেন, সম্পূর্ণরূপে তিনি নির্দোষ। যে অভিযোগে তাকে মৃত্যু দেওয়া হয়েছে সেই ঘটনার সঙ্গে তিনি কোনোভাবেই যুক্ত ছিলেন না।
কামারুজ্জামান আরো বলেছেন, তিনি মোটেও বিচলিত নন। এই পরিস্থিতিতে তিনি যেন সাহসের সঙ্গে ধৈর্য ধারণ করতে পারেন সে জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
শিশির মনির আরো বলেন, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী কামারুজ্জামানের পরিবারের সদস্যদের পুলিশ বেআইনিভাবে হয়রানি করেছে। কোনো প্রকার ওয়ারেন্ট ছাড়াই তার বাসা তল্লাশী চালিয়েছে। ফলে আজ তারা পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। তিনি বলেন, কামারুজ্জামান মনে করেন, যে কারণে তাকে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়েছে এ দেশের তরুণ সমাজ একদিন সত্য উদঘাটিত করবে।(দৈনিক নয়া দিগন্ত)