নিউইয়র্ক ০১:০০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

বান্দরবানে পাহাড়ি সশস্ত্র দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ৩

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৭:২৩:৪৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ মার্চ ২০২২
  • / ৩ বার পঠিত

বাংলাদেশ ডেস্ক : বান্দরবান-রাঙামাটি সীমান্তের নতুনপাড়া এলাকায় পাহাড়ি সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২২ মার্চ) সকাল দুপুরে রাঙামাটির গাইন্দা ইউনিয়নের নতুনপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এতে দু’ জেলার আশেপাশের এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।
বান্দরবান সেনাবাহিনীর সদর জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মাহমুদুল হাসান জানান, খবর পেয়ে বান্দরবান থেকে সেনাবাহিনীর একটি টহল দল ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, সন্তু লারমার দল জনসংহতি সমিতি ও মগ লিবারেশন পার্টির মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে যারা নিহত হয়েছেন তারা কোন দলের তা এখনো জানা যায়নি এবং তাদের নাম ও পাওয়া যায়নি।
গাইন্দা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান পুচি মং মারমা জানিয়েছেন, তার ইউনিয়নের সীমান্তের কাছে কেচি নতুনপাড়া এলাকায় সন্ত্রাসীদের মধ্যে সংঘর্ষে হয়েছে। এতে তিনজনের লাশ সেখানে পড়ে রয়েছে। ঘটনাটি স্থানীয়রা নিরাপত্তাবাহিনীকে জানিয়েছেন।
বান্দরবানের পুলিশ সুপার জেরিন আখতার বলেন, ঘটনাস্থলটি বান্দরবানের সীমান্ত ঘেঁষে রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলার গাইন্দা ইউনিয়নের পড়েছে। তবুও সীমান্ত এলাকায় নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।
উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন থেকে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও চাঁদাবাজি নিয়ে মগ লিবারেশন পার্টি ও জনসংহতি সমিতির মধ্যে দ্বন্দ্ব-সংঘাত চলে আসছে। গত এক বছরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন নিহত হয়েছে। খবর ইনকিলাব
হককথা/এমউএ

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

বান্দরবানে পাহাড়ি সশস্ত্র দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ৩

প্রকাশের সময় : ০৭:২৩:৪৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ মার্চ ২০২২

বাংলাদেশ ডেস্ক : বান্দরবান-রাঙামাটি সীমান্তের নতুনপাড়া এলাকায় পাহাড়ি সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২২ মার্চ) সকাল দুপুরে রাঙামাটির গাইন্দা ইউনিয়নের নতুনপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এতে দু’ জেলার আশেপাশের এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।
বান্দরবান সেনাবাহিনীর সদর জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মাহমুদুল হাসান জানান, খবর পেয়ে বান্দরবান থেকে সেনাবাহিনীর একটি টহল দল ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, সন্তু লারমার দল জনসংহতি সমিতি ও মগ লিবারেশন পার্টির মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে যারা নিহত হয়েছেন তারা কোন দলের তা এখনো জানা যায়নি এবং তাদের নাম ও পাওয়া যায়নি।
গাইন্দা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান পুচি মং মারমা জানিয়েছেন, তার ইউনিয়নের সীমান্তের কাছে কেচি নতুনপাড়া এলাকায় সন্ত্রাসীদের মধ্যে সংঘর্ষে হয়েছে। এতে তিনজনের লাশ সেখানে পড়ে রয়েছে। ঘটনাটি স্থানীয়রা নিরাপত্তাবাহিনীকে জানিয়েছেন।
বান্দরবানের পুলিশ সুপার জেরিন আখতার বলেন, ঘটনাস্থলটি বান্দরবানের সীমান্ত ঘেঁষে রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলার গাইন্দা ইউনিয়নের পড়েছে। তবুও সীমান্ত এলাকায় নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।
উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন থেকে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও চাঁদাবাজি নিয়ে মগ লিবারেশন পার্টি ও জনসংহতি সমিতির মধ্যে দ্বন্দ্ব-সংঘাত চলে আসছে। গত এক বছরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন নিহত হয়েছে। খবর ইনকিলাব
হককথা/এমউএ