নিউইয়র্ক ০৬:২৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

ফরিদপুরে গাছের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কা : নিহত ২৫

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৪৪:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০১৫
  • / ৫৯৪ বার পঠিত

ভাঙ্গা (ফরিদপুর): ফরিদপুর-বরিশাল মহাসড়কের ভাঙ্গা পৌর সদরের কৈডুবী নামক স্থানে গত বুধবার (৮ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১টায় যাত্রীবাহী সোনার তরী পরিবহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কায় লাগে। এতে বাসটির চালক, সুপারভ্ইাজার, হেলপার, শিশু, মহিলাসহ ২৫ যাত্রী নিহত ও ২০ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা লওন এরশাদ ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া।
ঘটনার পরপরই স্থানীয় জনতা, ভাঙ্গা হাই-ওয়ে থানা পুলিশ ও ভাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ৩ ঘন্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে ভাঙ্গা ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। হাই-ওয়ে থানার ওসি হোসেইন সরকার জানান, ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা সোনার তরীপরিবহন দুর্ঘটনাস্থলে আসলে চালক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা দেয়। এসময় বাসটির মাঝখান হতে দুইভাগে ভাগ হয়ে যায়। স্থানীয়রা প্রথমে এগিয়ে এসে উদ্ধার কাজ শুরু করে। এরপর খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারীরা বাসটির ভেতর থেকে ১৯টি মৃতদেহ উদ্ধার করে। এছাড়া গুরুত্বর আহত ২০ জনকে হাসপাতালে পাঠায়। আহতদের মধ্যে ভাঙ্গা হাসপাতালে ৩ জন ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন মারা যায়। নিহতদের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
এদিকে নিহতদের পরিচয় পাওয়ার জন্য তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ব্যবহার করে সঠিক ঠিকানা বের করার চেষ্টা চলছে। নিহতদের কয়েকজনের আতœীয়স্বজন ঘটনাস্থলে এসেছেন। নিহতদের মধ্য থেকে ২টি লাশ তাদের আতœীয় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
দুর্ঘটনাস্থলে ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, জেলা প্রশাসক সরদার সরাফত আলী, পুলিশ সুপার জামিল হাসান, পরিদর্শন করে নিহতদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা ও আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থার দায়িত্ব নেন।
এছাড়া দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।(দৈনিক যুগান্তর)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

ফরিদপুরে গাছের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কা : নিহত ২৫

প্রকাশের সময় : ০৯:৪৪:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০১৫

ভাঙ্গা (ফরিদপুর): ফরিদপুর-বরিশাল মহাসড়কের ভাঙ্গা পৌর সদরের কৈডুবী নামক স্থানে গত বুধবার (৮ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১টায় যাত্রীবাহী সোনার তরী পরিবহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কায় লাগে। এতে বাসটির চালক, সুপারভ্ইাজার, হেলপার, শিশু, মহিলাসহ ২৫ যাত্রী নিহত ও ২০ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা লওন এরশাদ ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া।
ঘটনার পরপরই স্থানীয় জনতা, ভাঙ্গা হাই-ওয়ে থানা পুলিশ ও ভাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ৩ ঘন্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে ভাঙ্গা ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। হাই-ওয়ে থানার ওসি হোসেইন সরকার জানান, ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা সোনার তরীপরিবহন দুর্ঘটনাস্থলে আসলে চালক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা দেয়। এসময় বাসটির মাঝখান হতে দুইভাগে ভাগ হয়ে যায়। স্থানীয়রা প্রথমে এগিয়ে এসে উদ্ধার কাজ শুরু করে। এরপর খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারীরা বাসটির ভেতর থেকে ১৯টি মৃতদেহ উদ্ধার করে। এছাড়া গুরুত্বর আহত ২০ জনকে হাসপাতালে পাঠায়। আহতদের মধ্যে ভাঙ্গা হাসপাতালে ৩ জন ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন মারা যায়। নিহতদের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
এদিকে নিহতদের পরিচয় পাওয়ার জন্য তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ব্যবহার করে সঠিক ঠিকানা বের করার চেষ্টা চলছে। নিহতদের কয়েকজনের আতœীয়স্বজন ঘটনাস্থলে এসেছেন। নিহতদের মধ্য থেকে ২টি লাশ তাদের আতœীয় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
দুর্ঘটনাস্থলে ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, জেলা প্রশাসক সরদার সরাফত আলী, পুলিশ সুপার জামিল হাসান, পরিদর্শন করে নিহতদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা ও আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থার দায়িত্ব নেন।
এছাড়া দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।(দৈনিক যুগান্তর)