নিউইয়র্ক ১২:১৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবী : টাঙ্গাইল ‘স্তব্ধ’ ১০ মিনিট

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:১১:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • / ৭১৫ বার পঠিত

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাকেই রাখার দাবীতে ১০ মিনিট স্তব্ধ ছিলো টাঙ্গাইল। টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবী বাস্তবায়ন পরিষদের উদ্যোগে গত ৭ ফেব্রুয়ারী শনিবার এই কর্মসূচী পালন করা হয়। কর্মসূচী চলাকালে টাঙ্গাইলবাসীরা সবাই নিজ নিজ কাজ ছেড়ে ১০ মিনিট নীরবে দাঁড়িয়ে ছিলেন। থেমে যায় সব যানবাহন। টাঙ্গাইল জেলাকে প্রস্তাবিত ময়মনসিংহ বিভাগে না নিয়ে ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবীতে বেলা ১১টা থেকে এই কর্মসূচী চলে। শহরের প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত নিরালার মোড়ে এ সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সর্বস্তরের টাঙ্গাইলবাসী জমায়েত হয়ে স্তব্ধ কর্মসূচীর সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করা হয়।
কর্মসূচী শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে টাঙ্গাইল-৫ আসনের সাংসদ ছানোয়ার হোসেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক এমপি ফজলুর রহমান খান, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এডভোকেট আবদুস সালাম চাকলাদার, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম, ভাসানী ফাউন্ডেশনের সভাপতি খন্দকার নাজিম উদ্দিন, জেলা ব্যবসায়ী ঐক্যজোটের সভাপতি আবুল কালাম মোস্তফা, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সম্পাদক এবং দাবী বাস্তবায়ন পরিষদের সদস্য সচিব জাফর আহমেদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম, জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল, সাবেক কমিশনার মির্জা রনি আহমেদ রিংকু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
কর্মসূচী চলাকালে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের টাঙ্গাইল শহর বাইপাসের রাবনা মোড়ে জেলা পরিবহন মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে রাস্তায় দাঁড়িয়ে সব ধরনের যানবাহন (বাস, ট্রাক, অটোরিক্সা, রিক্সা, ভ্যান প্রভৃতি) চলাচল আর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বেচাকেনা বন্ধ করে দিয়ে দাবীর প্রতি সমর্থন জানায়। একই দাবিতে মির্জাপুরেও বেলা ১০টা থেকে ১০ মিনিটের জন্য ‘মির্জাপুর স্তব্ধ’ কর্মসূচী পালিত হয়। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ এলাকার সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।
প্রায় দুই লাখ টাঙ্গাইলবাসী ‘স্তব্ধ’ কর্মসূচীতে অংশ নেয় বলে টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবী বাস্তবায়ন পরিষদের নেতৃবৃন্দ দাবী করেন। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন উপজেলা, শহর ও পাড়া-মহল্লায় একই কর্মসূচী পালন করা হয় বলে নেতৃবৃন্দ জানান।
এদিকে একই দাবীতে কালিহাতিতে ‘মানবন্ধন’ কর্মসূচী পালিত হয়। উত্তরবঙ্গের প্রবেশদার এলেঙ্গা প্রেসক্লাবের সামনে টাঙ্গাইলকে ঢাকা বিভাগের রাখার দাবীতে ৩১ জানুয়ারী আলোকিত কালিহাতীর উদ্যোগে মানববন্ধন করেছে কালিহাতীর সর্বস্তরের জনগণ। টাঙ্গাইলের দীর্ঘদিনের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ধরে রেখে আগামী প্রজন্মের কল্যাণার্থে ‘ময়মনসিংহ বিভাগকে না বলুন- ঢাকা বিভাগকে হ্যাঁ বলুন’ এই আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে কালিহাতীবাসীকে আহ্বান জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আলোকিত কালিহাতীর আহ্বায়ক ও গ্লোবাল গ্রুপ বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম, এলেঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান সরকার, সাধারণ সম্পাদক ওয়ারেছুল ইসলাম, আলোকিত কালিহাতীর যুগ্ম-আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম, সাপ্তাহিক যুগধারা’র স্টাফ রিপোর্টার শরিফুল ইসলাম শরিফ, দৈনিক অর্থনীতি কাগজের জেলা প্রতিনিধি শিপন আহমেদ, ভোরের বার্তা’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আল আমিন খান, এলেঙ্গা পৌর ছাত্রদলের আহ্বায়ক মামুন মাহমুদ, ছাত্রলীগ নেতা আতিকুর রহমান লাবু, দৈনিক সরেজমিন-এর জেলা প্রতিনিধি মৃদুল চৌধুরী, দৈনিক প্রগতির আলো’র প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর আলম, নারান্দিয়া অনার্স ক্লাবের সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ, নিউ বন্ধন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরিফ সিদ্দিকীসহ কালিহাতীর ছাত্র-যুবক, শ্রমিক, পেশাজীবী, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ব্যবসায়ী সংগঠনের বিভিন্ন পেশার জনগণ মানববন্ধনে অংশ নেন।
উল্লেখ্য, টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাগের সাথে রাখার দাবীতে সর্বদলীয় কমিটি গঠিত হয়েছে। এ কমিটির উদ্যোগে টাঙ্গাইলে মানববন্ধনসহ গণস্বাক্ষর অভিযান কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে। টাঙ্গাইল শহরের নিরালা মোড়ে প্রতিদিন শত শত মানুষ গণস্বাক্ষরে স্বাক্ষর দিচ্ছেন।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবী : টাঙ্গাইল ‘স্তব্ধ’ ১০ মিনিট

প্রকাশের সময় : ০৯:১১:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাকেই রাখার দাবীতে ১০ মিনিট স্তব্ধ ছিলো টাঙ্গাইল। টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবী বাস্তবায়ন পরিষদের উদ্যোগে গত ৭ ফেব্রুয়ারী শনিবার এই কর্মসূচী পালন করা হয়। কর্মসূচী চলাকালে টাঙ্গাইলবাসীরা সবাই নিজ নিজ কাজ ছেড়ে ১০ মিনিট নীরবে দাঁড়িয়ে ছিলেন। থেমে যায় সব যানবাহন। টাঙ্গাইল জেলাকে প্রস্তাবিত ময়মনসিংহ বিভাগে না নিয়ে ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবীতে বেলা ১১টা থেকে এই কর্মসূচী চলে। শহরের প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত নিরালার মোড়ে এ সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সর্বস্তরের টাঙ্গাইলবাসী জমায়েত হয়ে স্তব্ধ কর্মসূচীর সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করা হয়।
কর্মসূচী শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে টাঙ্গাইল-৫ আসনের সাংসদ ছানোয়ার হোসেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক এমপি ফজলুর রহমান খান, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এডভোকেট আবদুস সালাম চাকলাদার, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম, ভাসানী ফাউন্ডেশনের সভাপতি খন্দকার নাজিম উদ্দিন, জেলা ব্যবসায়ী ঐক্যজোটের সভাপতি আবুল কালাম মোস্তফা, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সম্পাদক এবং দাবী বাস্তবায়ন পরিষদের সদস্য সচিব জাফর আহমেদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম, জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল, সাবেক কমিশনার মির্জা রনি আহমেদ রিংকু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
কর্মসূচী চলাকালে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের টাঙ্গাইল শহর বাইপাসের রাবনা মোড়ে জেলা পরিবহন মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে রাস্তায় দাঁড়িয়ে সব ধরনের যানবাহন (বাস, ট্রাক, অটোরিক্সা, রিক্সা, ভ্যান প্রভৃতি) চলাচল আর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বেচাকেনা বন্ধ করে দিয়ে দাবীর প্রতি সমর্থন জানায়। একই দাবিতে মির্জাপুরেও বেলা ১০টা থেকে ১০ মিনিটের জন্য ‘মির্জাপুর স্তব্ধ’ কর্মসূচী পালিত হয়। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ এলাকার সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।
প্রায় দুই লাখ টাঙ্গাইলবাসী ‘স্তব্ধ’ কর্মসূচীতে অংশ নেয় বলে টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাগেই রাখার দাবী বাস্তবায়ন পরিষদের নেতৃবৃন্দ দাবী করেন। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন উপজেলা, শহর ও পাড়া-মহল্লায় একই কর্মসূচী পালন করা হয় বলে নেতৃবৃন্দ জানান।
এদিকে একই দাবীতে কালিহাতিতে ‘মানবন্ধন’ কর্মসূচী পালিত হয়। উত্তরবঙ্গের প্রবেশদার এলেঙ্গা প্রেসক্লাবের সামনে টাঙ্গাইলকে ঢাকা বিভাগের রাখার দাবীতে ৩১ জানুয়ারী আলোকিত কালিহাতীর উদ্যোগে মানববন্ধন করেছে কালিহাতীর সর্বস্তরের জনগণ। টাঙ্গাইলের দীর্ঘদিনের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ধরে রেখে আগামী প্রজন্মের কল্যাণার্থে ‘ময়মনসিংহ বিভাগকে না বলুন- ঢাকা বিভাগকে হ্যাঁ বলুন’ এই আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে কালিহাতীবাসীকে আহ্বান জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আলোকিত কালিহাতীর আহ্বায়ক ও গ্লোবাল গ্রুপ বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম, এলেঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান সরকার, সাধারণ সম্পাদক ওয়ারেছুল ইসলাম, আলোকিত কালিহাতীর যুগ্ম-আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম, সাপ্তাহিক যুগধারা’র স্টাফ রিপোর্টার শরিফুল ইসলাম শরিফ, দৈনিক অর্থনীতি কাগজের জেলা প্রতিনিধি শিপন আহমেদ, ভোরের বার্তা’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আল আমিন খান, এলেঙ্গা পৌর ছাত্রদলের আহ্বায়ক মামুন মাহমুদ, ছাত্রলীগ নেতা আতিকুর রহমান লাবু, দৈনিক সরেজমিন-এর জেলা প্রতিনিধি মৃদুল চৌধুরী, দৈনিক প্রগতির আলো’র প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর আলম, নারান্দিয়া অনার্স ক্লাবের সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ, নিউ বন্ধন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরিফ সিদ্দিকীসহ কালিহাতীর ছাত্র-যুবক, শ্রমিক, পেশাজীবী, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ব্যবসায়ী সংগঠনের বিভিন্ন পেশার জনগণ মানববন্ধনে অংশ নেন।
উল্লেখ্য, টাঙ্গাইল জেলাকে ঢাকা বিভাগের সাথে রাখার দাবীতে সর্বদলীয় কমিটি গঠিত হয়েছে। এ কমিটির উদ্যোগে টাঙ্গাইলে মানববন্ধনসহ গণস্বাক্ষর অভিযান কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে। টাঙ্গাইল শহরের নিরালা মোড়ে প্রতিদিন শত শত মানুষ গণস্বাক্ষরে স্বাক্ষর দিচ্ছেন।