নিউইয়র্ক ১১:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

জন্মভূমিতে চিরনিদ্রায় ইমাম আলাউদ্দিন

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৩৩:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৬
  • / ৭৪২ বার পঠিত

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ): হাজার হাজার মানুষের কান্না, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় শেষ বিদায় নিলেন মাওলানা আলাউদ্দিন আখুঞ্জি। উপস্থিত জনতা যুক্তরাষ্ট্র সরকারের কাছে এই হত্যাকান্ডের বিচারের জন্য জানিয়েছেন জোর দাবি। ১৮ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টায় আলাউদ্দিন আখুঞ্জির কফিনবাহী এমিরেটস-এর ফ্লাইটটি হযরত শাহ্জালাল বিমানবন্দরে ল্যান্ডিং করার কথা ছিল। বিমানটি নামে সকাল ১০টায়। লাশ গ্রহণকালে সেখানে সরকারের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী আবদুস সোবহান গোলাপ। বিমানবন্দরের সব আনুষ্ঠানিকতা সেরে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে লাশ নিয়ে তার পরিবারের লোকজন হবিগঞ্জের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন।
হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহে আড়াইটার দিকে লাশ আসে। এর আগেই হয়ে যায় সামান্য বৃষ্টি। এরপরও ঈদগাহে জনতার ঢল নামে। সাড়ে ৩টায় জানাজা শুরু হওয়ার আগে মুসল্লীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আবু জাহির, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সফিউল আলম, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, হবিগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমদুল হক, নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর চৌধুরী, নূরউদ্দিন জংগি, রইছ মিয়া, গোলাম মোস্তফা নবীনগরী, ফুলতলীর পীরজাদা মাওলানা হোসাম উদ্দিন।
জানাজার নামাজ পড়ান আলাউদ্দিন আখুঞ্জি’র ভাই ও সওদাগর মসজিদের খতিব নাছির উদ্দিন আখুঞ্জি। পরে নিহতের কফিনে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আবু জাহির ও জেলা প্রশাসনের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সফিউল আলম।
বিকাল সাড়ে ৫টায় চুনারুঘাট উপজেলার আমু রোড ঈদগাহে দ্বিতীয় জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেও হাজার হাজার মুসল্লি অংশগ্রহণ করেন। উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জামিল আহমেদ মুসল্লিদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন। সেখানে জানাজার নামাজ পড়ান মরহুমের আরেক ছোট ভাই মাওলানা জালাল উদ্দিন আখুঞ্জি। পরে তাকে গোছাপাড়া গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে তার পিতার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।
হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে আ. লীগ নেতারা আকুঞ্জির লাশ গ্রহণ: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি টিম বৃহস্প্রতিবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইমাম আলাউদ্দিন আকুঞ্জির লাশ গ্রহণ করেন। দুবাই হয়ে নিউইয়র্ক থেকে আসা ইকে ৫৮২ ফ্লাইটে বৃহস্প্রতিবার সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে আকুঞ্জির লাশ বিমানবন্দরে পৌঁছায়। টিমের এক সদস্য বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দলের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদল আকুঞ্জির লাশ গ্রহণ করেন।
টিমের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- জতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. আবদুল মোমেন, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন এবং কেন্দ্রীয় সদস্য সুজিত রায় বানী। পরে আকুঞ্জির মরদেহ হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাটে নিজ গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তার দাফন সম্পন্ন হবে।
উল্লেখ্য, নিউইয়র্কের কুইন্স বরোর ওজোন পার্কস্থ আল ফোরকান মসজিদের ইমাম আলাউদ্দিন আকুঞ্জি (৫৫) ও অপর মুসুল্লি তারা মিয়া (৬৪) মসজিদে জোহরের নামাজ আদায় শেষে বাসায় ফেরার পথে দৃর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হন। এই হত্যাকান্ডের দু’দিন পর নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ তাদের ঘাতক অস্কারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।(সূত্র: দৈনিক মানবজমিন)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

জন্মভূমিতে চিরনিদ্রায় ইমাম আলাউদ্দিন

প্রকাশের সময় : ০৯:৩৩:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৬

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ): হাজার হাজার মানুষের কান্না, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় শেষ বিদায় নিলেন মাওলানা আলাউদ্দিন আখুঞ্জি। উপস্থিত জনতা যুক্তরাষ্ট্র সরকারের কাছে এই হত্যাকান্ডের বিচারের জন্য জানিয়েছেন জোর দাবি। ১৮ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টায় আলাউদ্দিন আখুঞ্জির কফিনবাহী এমিরেটস-এর ফ্লাইটটি হযরত শাহ্জালাল বিমানবন্দরে ল্যান্ডিং করার কথা ছিল। বিমানটি নামে সকাল ১০টায়। লাশ গ্রহণকালে সেখানে সরকারের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী আবদুস সোবহান গোলাপ। বিমানবন্দরের সব আনুষ্ঠানিকতা সেরে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে লাশ নিয়ে তার পরিবারের লোকজন হবিগঞ্জের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন।
হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহে আড়াইটার দিকে লাশ আসে। এর আগেই হয়ে যায় সামান্য বৃষ্টি। এরপরও ঈদগাহে জনতার ঢল নামে। সাড়ে ৩টায় জানাজা শুরু হওয়ার আগে মুসল্লীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আবু জাহির, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সফিউল আলম, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, হবিগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমদুল হক, নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর চৌধুরী, নূরউদ্দিন জংগি, রইছ মিয়া, গোলাম মোস্তফা নবীনগরী, ফুলতলীর পীরজাদা মাওলানা হোসাম উদ্দিন।
জানাজার নামাজ পড়ান আলাউদ্দিন আখুঞ্জি’র ভাই ও সওদাগর মসজিদের খতিব নাছির উদ্দিন আখুঞ্জি। পরে নিহতের কফিনে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আবু জাহির ও জেলা প্রশাসনের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সফিউল আলম।
বিকাল সাড়ে ৫টায় চুনারুঘাট উপজেলার আমু রোড ঈদগাহে দ্বিতীয় জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেও হাজার হাজার মুসল্লি অংশগ্রহণ করেন। উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জামিল আহমেদ মুসল্লিদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন। সেখানে জানাজার নামাজ পড়ান মরহুমের আরেক ছোট ভাই মাওলানা জালাল উদ্দিন আখুঞ্জি। পরে তাকে গোছাপাড়া গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে তার পিতার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।
হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে আ. লীগ নেতারা আকুঞ্জির লাশ গ্রহণ: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি টিম বৃহস্প্রতিবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইমাম আলাউদ্দিন আকুঞ্জির লাশ গ্রহণ করেন। দুবাই হয়ে নিউইয়র্ক থেকে আসা ইকে ৫৮২ ফ্লাইটে বৃহস্প্রতিবার সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে আকুঞ্জির লাশ বিমানবন্দরে পৌঁছায়। টিমের এক সদস্য বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দলের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদল আকুঞ্জির লাশ গ্রহণ করেন।
টিমের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- জতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. আবদুল মোমেন, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন এবং কেন্দ্রীয় সদস্য সুজিত রায় বানী। পরে আকুঞ্জির মরদেহ হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাটে নিজ গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তার দাফন সম্পন্ন হবে।
উল্লেখ্য, নিউইয়র্কের কুইন্স বরোর ওজোন পার্কস্থ আল ফোরকান মসজিদের ইমাম আলাউদ্দিন আকুঞ্জি (৫৫) ও অপর মুসুল্লি তারা মিয়া (৬৪) মসজিদে জোহরের নামাজ আদায় শেষে বাসায় ফেরার পথে দৃর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হন। এই হত্যাকান্ডের দু’দিন পর নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ তাদের ঘাতক অস্কারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।(সূত্র: দৈনিক মানবজমিন)