নিউইয়র্ক ১১:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়ালের শীতকালীন বিশেষ সংস্করণ প্রকাশিত

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১২:১২:৪৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৮৬ বার পঠিত

ইউএনএ,নিউইয়র্ক: নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত ইংরেজী সাময়িকী ‘দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়াল’-এর শীতকালীন বিশেষ সংস্করণ এখন পাঠকের হাতে। বৈচিত্র্যময় লেখা, প্রতিবেদন ও নিবন্ধের সমাবেশ ঘটেছে এই সংস্করণে। এতে লিখেছেন, সাক্ষাৎকার প্রকাশিত সুপরিচিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী, চিকিৎসক, আইনজীবী, নীতি বিশেষজ্ঞ, প্রযুক্তি ব্যবস্থাপকসহ অনেকেই। বাংলাদেশী মালিকানাধীন আইজে ভেঞ্চার্স ইনকরপোরেট সাময়িকীটি প্রকাশ করছে। খবর ইউএনএ’র।

দ্য নিউইয়ক এডিটোরিয়ালের পরিচালক ও সহ প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম বার্তা সংস্থা ইউএনএ’র সাথে আলাপকালে জানান, আমেরিকান সাময়িকগুলোর আদলে এটি প্রতি মাসে নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে। পাঠকের চাহিদা বুঝে বিশ্লেষণধর্মী প্রতিবেদন, সাক্ষাৎকার, নিবন্ধ দিয়ে সাজানো হচ্ছে প্রতিটা সংস্করণ। এবারের সংস্করণে কোভিড-১৯ মহামারী পরবর্তী পরিস্থিতি ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে আমেরিকানদের মানসিক স্বাস্থ্য প্রাধান্য পেয়েছে। এতে স্থান পেয়েছে আমেরিকান ফাউন্ডেশন ফর সুইসাইড প্রিভেনশনের প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ক্রিস্টিন ইউ মুটিয়ের, স্ট্যাটেন আইল্যান্ড ইউনিভার্সিটি হসপিটালের সাইকিয়াট্রি রেসিডেন্স ট্রেইনিংয়ের পরিচালক আনা কে কোস্টাকিস, ইউনিভার্সিটি অব নট্রেডেমের সাইকোলজি ডিপার্টমেন্টের অ্যাসোসিয়েট ক্লিনিক্যাল প্রফেসর জেনিফার হ্যামস, লুসেট সিইও শানা হফম্যানসহ সাতজন বিশেষজ্ঞের অভিমত।

চলতি সংস্করণে অভিবাসী ইস্যু নিয়ে নিবন্ধ লিখেছেন আমেরিকান ইমিগ্রেশন কাউন্সিলের সিনিয়র ফেলো অ্যারন রিচলিন-মেলনিক। গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করা হয়েছে নিউইয়র্কের অভিবাসী সংকট ইস্যুর হালনাগাদ পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিবেদন।

মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম বলেন, দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়াল-এর শীতকালীন বিশেষ এই সংস্করণকে সার্বিকভাবে পাঠক চাহিদার ভিত্তিতে সাজানোর চেষ্টা করা হয়েছে। তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি এবং সামগ্রিকভাবে বৈশ্বিক পরিস্থিতি। চলতি সংখ্যায় স্বাস্থ্যসেবায় ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় প্রযুক্তি ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ভূমিকা নিয়ে লিখেছেন ড. দীলিপ নাথ, হোমকেয়ার প্রসঙ্গে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন স্যার ড. আবু জাফর মাহমুদ। আরো রয়েছে জনপ্রিয় বাংলাদেশী-আমেরিকান অ্যাটর্নি মঈন চৌধুরী ও বিশিষ্ট সমাজসেবী ও ব্যবসায়ী এবং সাপ্তাহিক আজকাল সম্পাদক লায়ন শাহ নেওয়াজ এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাসুদুল হাসানের সাক্ষাৎকার।

সাময়িকীটির পরিচালক ও সহ প্রতিষ্ঠাতা সালমা জাহান বলেন, এক ঝাঁক তরুণ কর্মীদের নিয়ে পরিচালিত হচ্ছে দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়াল। এই সাময়িকী সবসময়ই পাঠক চাহিদাকে প্রাধান্য দেয়। এবারের সংস্করণেও তার ব্যত্যয় ঘটেনি। বলেন, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্লেষণধর্মী প্রতিবেদন পাঠকের জন্য স্থানীয় ও বৈশ্বিক পরিস্থিতি আরও ভালোভাবে অনুধাবনে সহায়ক হবে। লোহিত সাগর সংকট কীভাবে বৈশ্বিক অর্থনীতিকে খাদের কিনারে নিয়ে যাচ্ছে, তা নিয়েও রয়েছে একটি প্রতিবেদন।

তিনি বলেন, ২০২৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অবস্থা কেমন হতে পারে, তারও ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে এই সংস্করণে। শ্রীলঙ্কা কীভাবে সংকট কাটিয়ে আবার উঠে দাঁড়াচ্ছে, তারও একটি চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে এবারের সংস্করণে।

দ্য নিউইয়ক এডিটোরিয়ালের পরিচালক ও সহ প্রতিষ্ঠাতা কামরুল ইসলাম সনি বলেন, সাময়িকীটি নিউইয়র্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিত্ব করে। মূলধারার রাজনীতির সাথে কমিউনিটির সেতু বন্ধনে ভূমিকা রাখতে চায়। পাশাপাশি বৈশ্বিক পরিস্থিতিও তুলে ধরার চেষ্টা করছে সামায়িকীটি। সে হিসাবে এই সাময়িকী কোনো আঞ্চলিক সাময়িকী নয়। সারা বিশ্বের পাঠকের কথা মাথায় রেখেই এই সাময়িকী সাজানো হয়। শীতকালীন এই বিশেষ সংস্করণ সার্বিকভাবেই বৈশ্বিক। কারণ, এই সংস্করণ থেকে পাঠক পুরো বিশ্বের পরিস্থিতি সম্পর্কেই হালনাগাদ তথ্য পাবেন। সাথে থাকছে ব্যবসায়িক নেতা, আইনজীবী, চিকিৎসকসহ বিশেষজ্ঞদের অভিমত, সাক্ষাৎকার ও নিবন্ধ।

সাময়িকীটির ডিজিটাল ভার্সন পড়া যাবে:https://online.fliphtml5.com/xfccv/zjjo/#p=64 ঠিকানায়।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়ালের শীতকালীন বিশেষ সংস্করণ প্রকাশিত

প্রকাশের সময় : ১২:১২:৪৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ইউএনএ,নিউইয়র্ক: নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত ইংরেজী সাময়িকী ‘দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়াল’-এর শীতকালীন বিশেষ সংস্করণ এখন পাঠকের হাতে। বৈচিত্র্যময় লেখা, প্রতিবেদন ও নিবন্ধের সমাবেশ ঘটেছে এই সংস্করণে। এতে লিখেছেন, সাক্ষাৎকার প্রকাশিত সুপরিচিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী, চিকিৎসক, আইনজীবী, নীতি বিশেষজ্ঞ, প্রযুক্তি ব্যবস্থাপকসহ অনেকেই। বাংলাদেশী মালিকানাধীন আইজে ভেঞ্চার্স ইনকরপোরেট সাময়িকীটি প্রকাশ করছে। খবর ইউএনএ’র।

দ্য নিউইয়ক এডিটোরিয়ালের পরিচালক ও সহ প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম বার্তা সংস্থা ইউএনএ’র সাথে আলাপকালে জানান, আমেরিকান সাময়িকগুলোর আদলে এটি প্রতি মাসে নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে। পাঠকের চাহিদা বুঝে বিশ্লেষণধর্মী প্রতিবেদন, সাক্ষাৎকার, নিবন্ধ দিয়ে সাজানো হচ্ছে প্রতিটা সংস্করণ। এবারের সংস্করণে কোভিড-১৯ মহামারী পরবর্তী পরিস্থিতি ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে আমেরিকানদের মানসিক স্বাস্থ্য প্রাধান্য পেয়েছে। এতে স্থান পেয়েছে আমেরিকান ফাউন্ডেশন ফর সুইসাইড প্রিভেনশনের প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ক্রিস্টিন ইউ মুটিয়ের, স্ট্যাটেন আইল্যান্ড ইউনিভার্সিটি হসপিটালের সাইকিয়াট্রি রেসিডেন্স ট্রেইনিংয়ের পরিচালক আনা কে কোস্টাকিস, ইউনিভার্সিটি অব নট্রেডেমের সাইকোলজি ডিপার্টমেন্টের অ্যাসোসিয়েট ক্লিনিক্যাল প্রফেসর জেনিফার হ্যামস, লুসেট সিইও শানা হফম্যানসহ সাতজন বিশেষজ্ঞের অভিমত।

চলতি সংস্করণে অভিবাসী ইস্যু নিয়ে নিবন্ধ লিখেছেন আমেরিকান ইমিগ্রেশন কাউন্সিলের সিনিয়র ফেলো অ্যারন রিচলিন-মেলনিক। গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করা হয়েছে নিউইয়র্কের অভিবাসী সংকট ইস্যুর হালনাগাদ পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিবেদন।

মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম বলেন, দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়াল-এর শীতকালীন বিশেষ এই সংস্করণকে সার্বিকভাবে পাঠক চাহিদার ভিত্তিতে সাজানোর চেষ্টা করা হয়েছে। তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি এবং সামগ্রিকভাবে বৈশ্বিক পরিস্থিতি। চলতি সংখ্যায় স্বাস্থ্যসেবায় ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় প্রযুক্তি ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ভূমিকা নিয়ে লিখেছেন ড. দীলিপ নাথ, হোমকেয়ার প্রসঙ্গে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন স্যার ড. আবু জাফর মাহমুদ। আরো রয়েছে জনপ্রিয় বাংলাদেশী-আমেরিকান অ্যাটর্নি মঈন চৌধুরী ও বিশিষ্ট সমাজসেবী ও ব্যবসায়ী এবং সাপ্তাহিক আজকাল সম্পাদক লায়ন শাহ নেওয়াজ এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাসুদুল হাসানের সাক্ষাৎকার।

সাময়িকীটির পরিচালক ও সহ প্রতিষ্ঠাতা সালমা জাহান বলেন, এক ঝাঁক তরুণ কর্মীদের নিয়ে পরিচালিত হচ্ছে দ্য নিউইয়র্ক এডিটোরিয়াল। এই সাময়িকী সবসময়ই পাঠক চাহিদাকে প্রাধান্য দেয়। এবারের সংস্করণেও তার ব্যত্যয় ঘটেনি। বলেন, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্লেষণধর্মী প্রতিবেদন পাঠকের জন্য স্থানীয় ও বৈশ্বিক পরিস্থিতি আরও ভালোভাবে অনুধাবনে সহায়ক হবে। লোহিত সাগর সংকট কীভাবে বৈশ্বিক অর্থনীতিকে খাদের কিনারে নিয়ে যাচ্ছে, তা নিয়েও রয়েছে একটি প্রতিবেদন।

তিনি বলেন, ২০২৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অবস্থা কেমন হতে পারে, তারও ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে এই সংস্করণে। শ্রীলঙ্কা কীভাবে সংকট কাটিয়ে আবার উঠে দাঁড়াচ্ছে, তারও একটি চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে এবারের সংস্করণে।

দ্য নিউইয়ক এডিটোরিয়ালের পরিচালক ও সহ প্রতিষ্ঠাতা কামরুল ইসলাম সনি বলেন, সাময়িকীটি নিউইয়র্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিত্ব করে। মূলধারার রাজনীতির সাথে কমিউনিটির সেতু বন্ধনে ভূমিকা রাখতে চায়। পাশাপাশি বৈশ্বিক পরিস্থিতিও তুলে ধরার চেষ্টা করছে সামায়িকীটি। সে হিসাবে এই সাময়িকী কোনো আঞ্চলিক সাময়িকী নয়। সারা বিশ্বের পাঠকের কথা মাথায় রেখেই এই সাময়িকী সাজানো হয়। শীতকালীন এই বিশেষ সংস্করণ সার্বিকভাবেই বৈশ্বিক। কারণ, এই সংস্করণ থেকে পাঠক পুরো বিশ্বের পরিস্থিতি সম্পর্কেই হালনাগাদ তথ্য পাবেন। সাথে থাকছে ব্যবসায়িক নেতা, আইনজীবী, চিকিৎসকসহ বিশেষজ্ঞদের অভিমত, সাক্ষাৎকার ও নিবন্ধ।

সাময়িকীটির ডিজিটাল ভার্সন পড়া যাবে:https://online.fliphtml5.com/xfccv/zjjo/#p=64 ঠিকানায়।