নিউইয়র্ক ১১:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

বাংলাদেশ প্রতিদিন’র নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবকে অব্যাহতি

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৫১:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • / ১০৭০ বার পঠিত

ঢাকা: দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন-এর নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমানকে চাকুরী থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে। ১ ফেব্রুয়ারী রোববার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অব্যাহতি পত্রটি তার হাতে পৌঁছে দেয়। বসুন্ধরা গ্রুপের অন্যতম উপদেষ্টা (মিডিয়া) মোহাম্মদ আবু তৈয়ব জানিয়েছেন, ‘পীর হাবিবুর রহমানকে চাকরি থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে’।
বৃহত্তর সিলেটের সুনামগঞ্জ জেলার সন্তান পীর হাবিবের সাংবাদিকতা শুরু ১৯৯১ সাল থেকে। ১৯৯২ সালে দৈনিক বাংলা বাজার পত্রিকা’য় সাংবাদিকতার মধ্যদিয়ে মূলত তার সাংবাদিকতা পেশা শুরু। তারপর দৈনিক যুগান্তর-এর সাথে সম্পৃক্ত হন। পরবর্তীতে দৈনিক আমাদের সময়, আমাদের অর্থনীতি পেরিয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিন-এ উপ সম্পাদক হিসেবে কাজ শুরু করেন। সর্বশেষ তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিন-এর নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছিলেন।
পীর হাবিরের চাকরি থেকে অব্যহতির কারণ হিসেবে বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন তথ্য জানা যায়। কেউ বলছেন সম্প্রতি বিভিন্ন বিষয়ে সমালোচনমূলক লেখালেখির কারণে তিনি পত্রিকা কর্তৃপক্ষের রোশানলের শিকার হয়েছেন। কেউ বলছেন, তার ৫০তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারের একাধিক প্রভাবশালী মন্ত্রীর উপস্থিতি আর ‘জনপ্রিয়তা’র কারনে তিনি পত্রিকা কর্তৃপক্ষের ‘ব্যাড’ বুকের শিকার হন। আবার কেউ বলছেন ব্যক্তিগত ফেসবুকে বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখির কারণে তিনি প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন। আবার কেউ বলছেন ‘সরকার ও বসুন্ধরা গ্রুপ’ বা ‘বসুন্ধরা গ্রুপ ও সরকার’-এর মধ্যকার স্বার্থ-সংশ্লিস্ট বিষয়ের ‘বলির পাঠা’ হয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিন থেকে চাকুরিচুত্য বা অব্যাহতির শিকার হন পীর হাবিব।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

বাংলাদেশ প্রতিদিন’র নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবকে অব্যাহতি

প্রকাশের সময় : ০৮:৫১:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

ঢাকা: দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন-এর নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমানকে চাকুরী থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে। ১ ফেব্রুয়ারী রোববার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অব্যাহতি পত্রটি তার হাতে পৌঁছে দেয়। বসুন্ধরা গ্রুপের অন্যতম উপদেষ্টা (মিডিয়া) মোহাম্মদ আবু তৈয়ব জানিয়েছেন, ‘পীর হাবিবুর রহমানকে চাকরি থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে’।
বৃহত্তর সিলেটের সুনামগঞ্জ জেলার সন্তান পীর হাবিবের সাংবাদিকতা শুরু ১৯৯১ সাল থেকে। ১৯৯২ সালে দৈনিক বাংলা বাজার পত্রিকা’য় সাংবাদিকতার মধ্যদিয়ে মূলত তার সাংবাদিকতা পেশা শুরু। তারপর দৈনিক যুগান্তর-এর সাথে সম্পৃক্ত হন। পরবর্তীতে দৈনিক আমাদের সময়, আমাদের অর্থনীতি পেরিয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিন-এ উপ সম্পাদক হিসেবে কাজ শুরু করেন। সর্বশেষ তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিন-এর নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছিলেন।
পীর হাবিরের চাকরি থেকে অব্যহতির কারণ হিসেবে বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন তথ্য জানা যায়। কেউ বলছেন সম্প্রতি বিভিন্ন বিষয়ে সমালোচনমূলক লেখালেখির কারণে তিনি পত্রিকা কর্তৃপক্ষের রোশানলের শিকার হয়েছেন। কেউ বলছেন, তার ৫০তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারের একাধিক প্রভাবশালী মন্ত্রীর উপস্থিতি আর ‘জনপ্রিয়তা’র কারনে তিনি পত্রিকা কর্তৃপক্ষের ‘ব্যাড’ বুকের শিকার হন। আবার কেউ বলছেন ব্যক্তিগত ফেসবুকে বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখির কারণে তিনি প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন। আবার কেউ বলছেন ‘সরকার ও বসুন্ধরা গ্রুপ’ বা ‘বসুন্ধরা গ্রুপ ও সরকার’-এর মধ্যকার স্বার্থ-সংশ্লিস্ট বিষয়ের ‘বলির পাঠা’ হয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিন থেকে চাকুরিচুত্য বা অব্যাহতির শিকার হন পীর হাবিব।