নিউইয়র্ক ০১:২০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

বাংলাদেশের গণমাধ্যম চাপের মধ্যে-মনিকা শী

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১১:৫০:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৫
  • / ৬১০ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: বাংলাদেশের গণমাধ্যম পুরোপুরি স্বাধীন নয় বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের ফরেন প্রেস সেন্টারের সাউথ এশিয়ান অঞ্চলের দায়িত্ব পাওয়া মনিকা শী। তিনি বলেছেন, ‘অনেক গণমাধ্যম চাপের মধ্যে সংবাদ পরিবেশন করছে। তার পরও সাংবাদিকরা সাহসিকতার সঙ্গে তাদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।’
নিউইয়র্ক ফরেন প্রেস সেন্টার মিলনায়তনে ২১ আগস্ট বিকেল তিনটায় এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি। ফরেন প্রেস সেন্টারের নিবন্ধিত বাংলাদেশী সাংবাদিকদের সঙ্গে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। এ সময় বাংলাদেশী সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে কীভাবে সহযোগিতা করা যায় সে বিষয়ে পরামর্শ চান মনিকা শী।
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে গণমাধ্যমের অনেক উন্নতি হয়েছে। বিশেষ করে ২৬টি টেলিভিশন চ্যানেল প্রতিযোগিতামূলক সংবাদ প্রচার করছে। তবে বড় প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে বেশ কিছু সো কল্ড অনলাইন পত্রিকা।’
নিউইয়র্ক ফরেন প্রেস সেন্টারে বাংলাদেশী সাংবাদিকের সদস্য সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের পাবলিক রিলেশন ডিপার্টমেন্ট থেকে সরিয়ে এনে ফরেন প্রেস সেন্টারের সাউথ এশিয়ান অঞ্চলের দায়িত্ব দেওয়া হয় মনিকা শী’কে।
তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন আমি বাংলাদেশে কাজ করেছি। এখন স্টেট ডিপার্টমেন্টের ফরেন প্রেসের এই দায়িত্ব আমাকে আরও অনুপ্রাণীত করেছে। আমি আপনাদের পেশার কাজে সব ধরনের সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত রয়েছি।’
মনিকা বলেন, ‘বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তবে একজন ভাল লিডারের অভাব রয়েছে। যিনি হবেন স্বচ্ছ (ট্রান্সফারেন্ট), দেশপ্রেমিক এবং গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাহলেই বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে।’
F.Press Center-2আলোচনায় আরও অংশ নেন ফরেন প্রেস সেন্টারের পরিচালক প্রিন্স ড্যাল, দৈনিক প্রথম আলোর ইউএসএ ব্যুরো চিফ ও লেখক-কলামিস্ট হাসান ফেরদৌস, সময় টেলিভিশনের ইউএসএ ব্যুরো চিফ শিহাব উদ্দিন কিসলু, একুশে টিভির ইউএসএ প্রতিনিধি ইমরান আনসারি, দ্য রিপোর্টের নিউইয়র্ক প্রতিনিধি শিবলী চৌধুরী কায়েস, সাংবাদিক আবদুর রীহম দীপু প্রমুখ।
গত ২৫ জুলাই ঢাকার আমেরিকান দূতাবাস থেকে ফেয়ারওয়েল (আনুষ্ঠানিক বিদায়) নেন মনিকা। চলতি সপ্তাহে যোগদান করে প্রথমেই নিউইয়র্কের বাংলাদেশী সাংবাদিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। (দ্যরিপোর্ট২৪.কম)

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

বাংলাদেশের গণমাধ্যম চাপের মধ্যে-মনিকা শী

প্রকাশের সময় : ১১:৫০:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৫

নিউইয়র্ক: বাংলাদেশের গণমাধ্যম পুরোপুরি স্বাধীন নয় বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের ফরেন প্রেস সেন্টারের সাউথ এশিয়ান অঞ্চলের দায়িত্ব পাওয়া মনিকা শী। তিনি বলেছেন, ‘অনেক গণমাধ্যম চাপের মধ্যে সংবাদ পরিবেশন করছে। তার পরও সাংবাদিকরা সাহসিকতার সঙ্গে তাদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।’
নিউইয়র্ক ফরেন প্রেস সেন্টার মিলনায়তনে ২১ আগস্ট বিকেল তিনটায় এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি। ফরেন প্রেস সেন্টারের নিবন্ধিত বাংলাদেশী সাংবাদিকদের সঙ্গে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। এ সময় বাংলাদেশী সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে কীভাবে সহযোগিতা করা যায় সে বিষয়ে পরামর্শ চান মনিকা শী।
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে গণমাধ্যমের অনেক উন্নতি হয়েছে। বিশেষ করে ২৬টি টেলিভিশন চ্যানেল প্রতিযোগিতামূলক সংবাদ প্রচার করছে। তবে বড় প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে বেশ কিছু সো কল্ড অনলাইন পত্রিকা।’
নিউইয়র্ক ফরেন প্রেস সেন্টারে বাংলাদেশী সাংবাদিকের সদস্য সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের পাবলিক রিলেশন ডিপার্টমেন্ট থেকে সরিয়ে এনে ফরেন প্রেস সেন্টারের সাউথ এশিয়ান অঞ্চলের দায়িত্ব দেওয়া হয় মনিকা শী’কে।
তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন আমি বাংলাদেশে কাজ করেছি। এখন স্টেট ডিপার্টমেন্টের ফরেন প্রেসের এই দায়িত্ব আমাকে আরও অনুপ্রাণীত করেছে। আমি আপনাদের পেশার কাজে সব ধরনের সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত রয়েছি।’
মনিকা বলেন, ‘বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তবে একজন ভাল লিডারের অভাব রয়েছে। যিনি হবেন স্বচ্ছ (ট্রান্সফারেন্ট), দেশপ্রেমিক এবং গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাহলেই বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে।’
F.Press Center-2আলোচনায় আরও অংশ নেন ফরেন প্রেস সেন্টারের পরিচালক প্রিন্স ড্যাল, দৈনিক প্রথম আলোর ইউএসএ ব্যুরো চিফ ও লেখক-কলামিস্ট হাসান ফেরদৌস, সময় টেলিভিশনের ইউএসএ ব্যুরো চিফ শিহাব উদ্দিন কিসলু, একুশে টিভির ইউএসএ প্রতিনিধি ইমরান আনসারি, দ্য রিপোর্টের নিউইয়র্ক প্রতিনিধি শিবলী চৌধুরী কায়েস, সাংবাদিক আবদুর রীহম দীপু প্রমুখ।
গত ২৫ জুলাই ঢাকার আমেরিকান দূতাবাস থেকে ফেয়ারওয়েল (আনুষ্ঠানিক বিদায়) নেন মনিকা। চলতি সপ্তাহে যোগদান করে প্রথমেই নিউইয়র্কের বাংলাদেশী সাংবাদিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। (দ্যরিপোর্ট২৪.কম)