নিউইয়র্ক ০৬:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

এক স্লিপ

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১০:৪৮:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৬
  • / ১০৮১ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কের বাংলাদেশী কমিউনিটির পত্রিকাগুলোর প্রকাশনা অব্যাহত রাখা ক্রমশ: জটিল হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে প্রয়োজনের তুলনায় অধিক সংখ্যক পত্রিকা প্রকাশের ফলে বিজ্ঞাপনের হার কমে যাওয়ার পাশাপাশি বিজ্ঞাপনের মূল্যও কমে গেছে। গত সপ্তাহে জ্যামাইকায় এক চায়ের আড্ডায় এমন আশংকার কথাই জানালেন একজন সম্পাদক। তার ভাষায়- মিডিয়াগুলোতে বিজ্ঞাপন প্রকাশের ক্ষেত্রে নতুন নতুন পন্থাও অবলম্বন করা হচ্ছে। বিভিন্ন প্রেস বিজ্ঞপ্তির খবরও নাকি ‘বিজ্ঞাপন’ আকারে প্রকাশ করা হচ্ছে! এক শ্রেণীর মিডিয়া বেঁচে থাকার জন্য ‘অপেশাদার’ পন্থা অবলম্বন করে চলেছে। নিজেদের সুবিধার্থে বিজ্ঞাপনদাতারাও এমন অনৈতিক পথে বেছে নিচ্ছেন বলে সম্পাদক মহোদয় অভিযোগ করে বলেন এই পথ থেকে বাংলা মিডিয়া আর বিজ্ঞাপনদাতারা বেড়িয়ে না আসতে পারলে ‘বিবেকের পেশা’ হিসেবে স্বীকৃত সাংবাদিকতা তার পেশাদারিত্ব আর মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে পারবে না। একজন সংবাদকর্মী হিসেবে সম্পাদক মহোদয়ের এমন আশংকা/অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমি নিজেও নিউইয়র্কের বাংলা মিডিয়ার ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত না হয়ে পরলাম না। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সকল মিডিয়ার ভেবে দেখা দরকার। ১৪ ফেব্রুয়ারী’২০১৬ (সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

এক স্লিপ

প্রকাশের সময় : ১০:৪৮:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কের বাংলাদেশী কমিউনিটির পত্রিকাগুলোর প্রকাশনা অব্যাহত রাখা ক্রমশ: জটিল হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে প্রয়োজনের তুলনায় অধিক সংখ্যক পত্রিকা প্রকাশের ফলে বিজ্ঞাপনের হার কমে যাওয়ার পাশাপাশি বিজ্ঞাপনের মূল্যও কমে গেছে। গত সপ্তাহে জ্যামাইকায় এক চায়ের আড্ডায় এমন আশংকার কথাই জানালেন একজন সম্পাদক। তার ভাষায়- মিডিয়াগুলোতে বিজ্ঞাপন প্রকাশের ক্ষেত্রে নতুন নতুন পন্থাও অবলম্বন করা হচ্ছে। বিভিন্ন প্রেস বিজ্ঞপ্তির খবরও নাকি ‘বিজ্ঞাপন’ আকারে প্রকাশ করা হচ্ছে! এক শ্রেণীর মিডিয়া বেঁচে থাকার জন্য ‘অপেশাদার’ পন্থা অবলম্বন করে চলেছে। নিজেদের সুবিধার্থে বিজ্ঞাপনদাতারাও এমন অনৈতিক পথে বেছে নিচ্ছেন বলে সম্পাদক মহোদয় অভিযোগ করে বলেন এই পথ থেকে বাংলা মিডিয়া আর বিজ্ঞাপনদাতারা বেড়িয়ে না আসতে পারলে ‘বিবেকের পেশা’ হিসেবে স্বীকৃত সাংবাদিকতা তার পেশাদারিত্ব আর মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে পারবে না। একজন সংবাদকর্মী হিসেবে সম্পাদক মহোদয়ের এমন আশংকা/অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমি নিজেও নিউইয়র্কের বাংলা মিডিয়ার ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত না হয়ে পরলাম না। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সকল মিডিয়ার ভেবে দেখা দরকার। ১৪ ফেব্রুয়ারী’২০১৬ (সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)