নিউইয়র্ক ১১:১২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

এক স্লিপ

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১০:৫৬:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৫
  • / ৭৮৫ বার পঠিত

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্ক তথা উত্তর আমেরিকার বাংলাদেশী কমিউনিটিতে ডাক্তার বা ড. (পিএইচডি) ডিগ্রীধারী ব্যক্তিবর্গ কম নয়। তাদের অনেকেই কমিউনিটির বিভিন্ন কর্মকান্ডে জড়িত। ব্যক্তিগতভাবে অনেকেরই কমিনিটির সবার সাথে বিশেষ করে মিডিয়ার সাখে পয়-পরিচয় নেই। ফলে মিডিয়া কর্মীদের মধ্যে অনেকেই ভালোবাবে তাদের চেনেন না বা জানেন না। এতে কারোরই তেমন দোষের কিছু নেই। কিন্তু সমস্যাটা হচ্ছে কোন কোন অনুষ্ঠানে তাদের পরিচিতি নিয়ে। ঔ অনুষ্ঠানগুলোর অনেক আয়োজকই হয়তো জানেন না বা জেনেও উচ্চারণে অনেক ডাক্তারকে ড. বলে সম্বাধন করেন আবার অনেক ড.-কে ড. হিসেবে উচ্চারণ করেন। ফলে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়। কেননা, ডাক্তার আর ড. এক নয়। অনুষ্ঠান পরিচালনক বা উপস্থাপকের উচ্চারণের কারণে অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে ‘ডা. হচ্ছেন ড. আবার ড. হচ্ছেন ডা.’। এমন পরিস্থিতিতে অন্যান্যদের মতো আমিও বিব্রত না হয়ে পারি না। এই সপ্তাহে কমিউনিটির একাধিক অনুষ্ঠান কভার করতে গিয়ে এমনি পরিস্থিতির শিকার হতে হলো। সঙ্গতকারণেই এমন উচ্চারণে সংশ্লিষ্টদের সাবধাণতা অবলম্বন করা উচিৎ। কেননা, এতে হিতে বিপদ হতে পারে! ১৮ অক্টোবর’২০১৫

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

এক স্লিপ

প্রকাশের সময় : ১০:৫৬:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৫

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্ক তথা উত্তর আমেরিকার বাংলাদেশী কমিউনিটিতে ডাক্তার বা ড. (পিএইচডি) ডিগ্রীধারী ব্যক্তিবর্গ কম নয়। তাদের অনেকেই কমিউনিটির বিভিন্ন কর্মকান্ডে জড়িত। ব্যক্তিগতভাবে অনেকেরই কমিনিটির সবার সাথে বিশেষ করে মিডিয়ার সাখে পয়-পরিচয় নেই। ফলে মিডিয়া কর্মীদের মধ্যে অনেকেই ভালোবাবে তাদের চেনেন না বা জানেন না। এতে কারোরই তেমন দোষের কিছু নেই। কিন্তু সমস্যাটা হচ্ছে কোন কোন অনুষ্ঠানে তাদের পরিচিতি নিয়ে। ঔ অনুষ্ঠানগুলোর অনেক আয়োজকই হয়তো জানেন না বা জেনেও উচ্চারণে অনেক ডাক্তারকে ড. বলে সম্বাধন করেন আবার অনেক ড.-কে ড. হিসেবে উচ্চারণ করেন। ফলে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়। কেননা, ডাক্তার আর ড. এক নয়। অনুষ্ঠান পরিচালনক বা উপস্থাপকের উচ্চারণের কারণে অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে ‘ডা. হচ্ছেন ড. আবার ড. হচ্ছেন ডা.’। এমন পরিস্থিতিতে অন্যান্যদের মতো আমিও বিব্রত না হয়ে পারি না। এই সপ্তাহে কমিউনিটির একাধিক অনুষ্ঠান কভার করতে গিয়ে এমনি পরিস্থিতির শিকার হতে হলো। সঙ্গতকারণেই এমন উচ্চারণে সংশ্লিষ্টদের সাবধাণতা অবলম্বন করা উচিৎ। কেননা, এতে হিতে বিপদ হতে পারে! ১৮ অক্টোবর’২০১৫