নিউইয়র্ক ০৬:১৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

ভূমিকম্প : নেপালে নিহত ৯ শতাধিক ভারতে ৩৪ : পাকিস্তান ও বাংলাদেশে বহুতল ভবন হেলে পড়েছে, ভূমিকম্পের আতংকে তাড়াহুড়ার সময় বহু নর-নারী আহত

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ১০:২২:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৫
  • / ১৬৬৬ বার পঠিত

ঢাকা: নেপালে-ভারত-পাকিস্তান ও বাংলাদেশে ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। ২৫ এপ্রিল শনিবার দুপুরে ৭ দশমিক ৯ মাত্রার এই ভূমিকম্পে নেপাল ছাড়াও বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের বিস্তীর্ণ এলাকা কেঁপে উঠে। ভূমিকম্পের পর নিহতের সংখ্যা খুব দ্রুত বাড়ছে। নেপালে ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা ৯ শতাধিক ছাড়িয়েছে। বহু ভবন ধসে গেছে। নেপালের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সন্ধ্যায় ৭৫৮ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে। তবে এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভূমিকম্পের কারণে মাউন্ট এভারেস্টেও ভয়ঙ্কর তুষার ধসের সৃষ্টি হয়েছে এবং বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল নেপালের পোখরাতে এর তীব্রতা ছিল ৭ দশমিক ৯। নেপাল সরকার দেশে জরুরী অবস্থা জারী করেছে।
সর্বশেষ প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে ভূমিকম্পে ভারতে ৩৪জনের প্রাণহানি ঘটেছে। অপরদিকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশে বহুতল ভবন হেলে পড়েছে, ভূমিকম্পের আতংকে তাড়াহুড়ার সময় বহু নর-নারী আহত।
কাঠমান্ডু থেকে পুলিশের একজন মুখপাত্র প্রাথমিক ভাবে জানিয়েছেন চার শতাধিক নিহত হয়েছে। তবে তারা এখনো ক্ষয়ক্ষতির পুরো চিত্র তুলে ধরতে পারেননি। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় হেলিকপ্টার টহল দিচ্ছে। অন্যদিকে আল জাজিরা জানিয়েছে, ৭.৯ মাত্রার ভূমিকম্পে প্রায় ৬০০ জন নিহত হয়েছে। নিহতের সখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে গণমাধ্যমগুলো।
নেপালের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লক্ষ্মী প্রসাদ ধাকাল বলেছেন, কাঠমান্ডুতে ৭১ জন মারা গেছে। এছাড়া ভক্তপুর জেলায় ৪৩ জন মারা গেছেন। গত ৮০ বছরের মধ্যে নেপালে এটিই ভয়াবহ ভূমিকম্প। ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রাজধানী কাঠমান্ডু। এখানে ভবন ধসে গেছে, ভূমি ফেটে গেছে ও অনেকে আহত হয়েছেন। কাঠমান্ডুর হাসপাতালে ভাঙা পা ও অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ভাঙ্গা ব্যক্তিরা চিকিৎসা নিতে আসছেন। ঠিক কতোজন আহত হয়েছেন তা সঠিক করে বলা যাচ্ছে না।
পর্বতারোহী অ্যালেক্স গাভান মাউন্ট পুমোরি টুইটারে বলেছেন, কম্পনে এভারেস্টে ধস হয়েছে। পুমোরি এভারেস্ট থেকে আট কিলোমিটার দূরে। বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, প্রথম ভূমিকম্পের ২৬ মিনিট পর নেপালের কোড়ারির ২৮ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ৫ দশমিক ১ মাত্রার, তার ১৪ মিনিট পর লামজুংয়ের ৪৯ কিলোমিটার পূর্বে ৬ দশমিক ৬ মাত্রার, এর ১১ মিনিট পর নেপালের নাগরকোটের ২৫ কিলোমিটার উত্তরপশ্চিমে ৫ দশমিক ৫ মাত্রার, এর ১০ মিনিট পর নেপালের কোড়ারির ২৫ কিলোমিটার দক্ষিণে ৫ মাত্রার এবং এর চার মিনিটের মাথায় নেপালের পানাওতির ৫ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বে ৪ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়।
Earthquock Nepal Tawar_24 April'2015ধসে গেল নেপালের ঐতিহাসিক টাওয়ার: নেপালের রাজধানীতে কাঠমান্ডুতে শনিবারের ভূমিকম্পে ১৯ শতকে নির্মিত একটি ঐতিহাসিক টাওয়ার ধসে গেছে। সেখান থেকে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ১৮৩২ সালে নির্মিত ধারারা টাওয়ারটির আট তলার ব্যালকনি ১০ বছর আগে পরিদর্শনের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। আজকের ভূমিকম্পে টাওয়ারটি ধসে পড়লে এর নিচে থেকে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, টাওয়াটিতে ৫০ জনের মতো আটকা পড়েছেন। পুলিশ এলাকাটি ঘিরে রেখেছে।
Earthquock Bihar_24 April'2015ভূমিকম্পে ভারতে নিহত ৩৪: ভূমিকম্পের কারণে ভারতে ৩৪ জন মারা গেছে। এরমধ্যে বিহারে ২৩, উত্তর প্রদেশে ৮ ও পশ্চিমবঙ্গে ৩ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার রাজ্যের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সচিব এই তথ্য জানিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মতিহারে চারজন, সীতামারীতে চারজন, দারভাঙ্গাতে তিনজন ও ছাপড়াতে একজন মারা গেছেন। বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা রাজীব প্রতাপ রুডি বলেছেন, এদিকে উত্তরাঞ্চলীয় বিহারের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

ভূমিকম্প : নেপালে নিহত ৯ শতাধিক ভারতে ৩৪ : পাকিস্তান ও বাংলাদেশে বহুতল ভবন হেলে পড়েছে, ভূমিকম্পের আতংকে তাড়াহুড়ার সময় বহু নর-নারী আহত

প্রকাশের সময় : ১০:২২:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৫

ঢাকা: নেপালে-ভারত-পাকিস্তান ও বাংলাদেশে ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। ২৫ এপ্রিল শনিবার দুপুরে ৭ দশমিক ৯ মাত্রার এই ভূমিকম্পে নেপাল ছাড়াও বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের বিস্তীর্ণ এলাকা কেঁপে উঠে। ভূমিকম্পের পর নিহতের সংখ্যা খুব দ্রুত বাড়ছে। নেপালে ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা ৯ শতাধিক ছাড়িয়েছে। বহু ভবন ধসে গেছে। নেপালের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সন্ধ্যায় ৭৫৮ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে। তবে এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভূমিকম্পের কারণে মাউন্ট এভারেস্টেও ভয়ঙ্কর তুষার ধসের সৃষ্টি হয়েছে এবং বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল নেপালের পোখরাতে এর তীব্রতা ছিল ৭ দশমিক ৯। নেপাল সরকার দেশে জরুরী অবস্থা জারী করেছে।
সর্বশেষ প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে ভূমিকম্পে ভারতে ৩৪জনের প্রাণহানি ঘটেছে। অপরদিকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশে বহুতল ভবন হেলে পড়েছে, ভূমিকম্পের আতংকে তাড়াহুড়ার সময় বহু নর-নারী আহত।
কাঠমান্ডু থেকে পুলিশের একজন মুখপাত্র প্রাথমিক ভাবে জানিয়েছেন চার শতাধিক নিহত হয়েছে। তবে তারা এখনো ক্ষয়ক্ষতির পুরো চিত্র তুলে ধরতে পারেননি। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় হেলিকপ্টার টহল দিচ্ছে। অন্যদিকে আল জাজিরা জানিয়েছে, ৭.৯ মাত্রার ভূমিকম্পে প্রায় ৬০০ জন নিহত হয়েছে। নিহতের সখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে গণমাধ্যমগুলো।
নেপালের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লক্ষ্মী প্রসাদ ধাকাল বলেছেন, কাঠমান্ডুতে ৭১ জন মারা গেছে। এছাড়া ভক্তপুর জেলায় ৪৩ জন মারা গেছেন। গত ৮০ বছরের মধ্যে নেপালে এটিই ভয়াবহ ভূমিকম্প। ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রাজধানী কাঠমান্ডু। এখানে ভবন ধসে গেছে, ভূমি ফেটে গেছে ও অনেকে আহত হয়েছেন। কাঠমান্ডুর হাসপাতালে ভাঙা পা ও অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ভাঙ্গা ব্যক্তিরা চিকিৎসা নিতে আসছেন। ঠিক কতোজন আহত হয়েছেন তা সঠিক করে বলা যাচ্ছে না।
পর্বতারোহী অ্যালেক্স গাভান মাউন্ট পুমোরি টুইটারে বলেছেন, কম্পনে এভারেস্টে ধস হয়েছে। পুমোরি এভারেস্ট থেকে আট কিলোমিটার দূরে। বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, প্রথম ভূমিকম্পের ২৬ মিনিট পর নেপালের কোড়ারির ২৮ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ৫ দশমিক ১ মাত্রার, তার ১৪ মিনিট পর লামজুংয়ের ৪৯ কিলোমিটার পূর্বে ৬ দশমিক ৬ মাত্রার, এর ১১ মিনিট পর নেপালের নাগরকোটের ২৫ কিলোমিটার উত্তরপশ্চিমে ৫ দশমিক ৫ মাত্রার, এর ১০ মিনিট পর নেপালের কোড়ারির ২৫ কিলোমিটার দক্ষিণে ৫ মাত্রার এবং এর চার মিনিটের মাথায় নেপালের পানাওতির ৫ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বে ৪ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়।
Earthquock Nepal Tawar_24 April'2015ধসে গেল নেপালের ঐতিহাসিক টাওয়ার: নেপালের রাজধানীতে কাঠমান্ডুতে শনিবারের ভূমিকম্পে ১৯ শতকে নির্মিত একটি ঐতিহাসিক টাওয়ার ধসে গেছে। সেখান থেকে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ১৮৩২ সালে নির্মিত ধারারা টাওয়ারটির আট তলার ব্যালকনি ১০ বছর আগে পরিদর্শনের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। আজকের ভূমিকম্পে টাওয়ারটি ধসে পড়লে এর নিচে থেকে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, টাওয়াটিতে ৫০ জনের মতো আটকা পড়েছেন। পুলিশ এলাকাটি ঘিরে রেখেছে।
Earthquock Bihar_24 April'2015ভূমিকম্পে ভারতে নিহত ৩৪: ভূমিকম্পের কারণে ভারতে ৩৪ জন মারা গেছে। এরমধ্যে বিহারে ২৩, উত্তর প্রদেশে ৮ ও পশ্চিমবঙ্গে ৩ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার রাজ্যের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সচিব এই তথ্য জানিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মতিহারে চারজন, সীতামারীতে চারজন, দারভাঙ্গাতে তিনজন ও ছাপড়াতে একজন মারা গেছেন। বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা রাজীব প্রতাপ রুডি বলেছেন, এদিকে উত্তরাঞ্চলীয় বিহারের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।