নিউইয়র্ক ০৬:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

সাংবাদিক স্বপন হাই আর নেই

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৩:৪৯:৫৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০
  • / ১০৭ বার পঠিত

হককথা রিপোর্ট: বাংলাদেশ ও নিউইয়র্কের জনপ্রিয় ফটো সাংবাদিক এ হাই স্বপন আর নেই (ইন্না নিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)। সোমাবার (৩০ মার্চ) বেলা ১২ টা ৫০ মিনিটে নিউইয়র্কের কুইন্স হাসপাতালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনি রোগে ভূগছিলেনএবং নিয়মিত ডায়ালাইসি করছিলেন। ভারতে তার কিডনি প্রতিস্থাপনের উদ্যোগও নেয়া হয়েছিল। এজন্য গত ৬ মার্চ নিউইয়র্কের সাংবাদিক সমাজের পক্ষ থেকে স্বপন হাই-এর জন্য একটি ফান্ডরেজিং কনসার্ট করা হয়। এই কনসার্ট অনুষ্ঠানে স্বপন হাই দীর্ঘক্ষণ উপস্থিত ছিলেন। গত ২৮ মার্চ তাঁর দেশে চলে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস-এর ফওে বিশ্ব পরিস্থিতি অনকূলে না থাকায় তা হয়ে উঠেনি এবং এর মধ্যে তিনি কিডনি ডায়ালাসিসের জন্য হাসপাতালে ভর্তি হলে তার করোনা পজেটিভ পাওয়া যায় এবং সোমাবার দুপুর ১২ টা ৫০ মিনিটে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যকলে স্ত্রী, এক পুত্র ও এক কন্যা রেখে গেছেন এবং তারা ঢাকায় বসবাস করেন। স্ত্রী ঢাকার একটি স্কুলে চাকুরি করেন। স্বপন হাই নিউইয়র্কের জ্যামাইকায় তার বড় ভাই মতিন-এর বাসায় বসবসাস করছিলেন।

স্বপন হাই বাংলাদেশের দৈনিক বাংলা বাজার পত্রিকা ও দৈনিক মানবজমিনসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কাজ করেছেন। ২০১৪ সাল থেকে তিনি নিউইয়র্কে অবস্থান করছিলেন। এর মধ্যে তার ওপেন হার্ট সার্জারি হয় এবং গত বছর তার কিডনি সমস্যা দেখা দেয়। তিনি নিয়মিত ডায়ালাসিসে ছিলেন।
স্বপন হাই নিউইয়র্কের প্রথম আলো উত্তর আমেরিকা, সাপ্তাহিক আজকাল ও টিবিএন২৪ টেলিভিশনে কাজ করেছেন। তার এক ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে।
বাংলাদেশ সোসাইটির তত্বাবধানে হাসপাতালের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে স্বপন হাইর মরদেহ বুধবার (১এপ্রিল) দুপুর নিউজার্সীর বুধবার দুপুর ১২ টায় নিউজার্সির মালব্যুরো মুসলিম কমিউনিটি সিমিট্রিতে জানাজা শেষে তাঁকে সেখানে দাফন করা হয়। জানাজায় ইমামতি করেন আফ্রিকান বংশোদ্ভুত ইমাম কাবা। জানাজায় বাংলাদেশী কমিউনিটির পক্ষ থেকে অংশ নেন ডেইলি নিউ এইজ পত্রিকার সাবেক প্রধান আলোকচিত্রী ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সদস্য সানাউল হক, দৈনিক সকালের খবরের সিনিয়র ক্যামেরাপারসন খোরশেদ আলম রিংকু ও আবদুল হাই স্বপনের ভাতিজা পিয়াল মাহমুদ। এছাড়াও জানাজায় অন্যান্য কমিউনিটির আরো ১২ জন লোক শরীক হন বলে জানান সাংবাদিক সানাউল হক।
শোক প্রকাশ: এদিকে সাংবাতিক স্বপন হাই’র অকাল ও মর্মান্তিক মৃত্যুতে প্রবাসী বাংলাদেশী সাংবাদিক সমাজের পক্ষ থেকে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করে তার বিদেহী আতœার শন্তি কামনা এবং পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করা হয়েছে। শোক ও সমবেদনা প্রকাশকারীদেও মধ্যে রয়েছেন: নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি ডা. ওয়াজেদ এ খান ও সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ সিরাজু ইসলাম ও সালাহউদ্দিন আহমেদ, আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি দর্পণ কবীর ও সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাগর প্রমুখ।
এছাড়াও গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন, সাপ্তাহিক ঠিকানা’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এম এম শাহীন, সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, সাপ্তাহিক বাঙালী সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, বাংলা পত্রিকা’র সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশন-এর সিইও আবু তাহের, সিনিয়র সাংবাদিক মনির হায়দার, সাপ্তাহিক জন্মভূমি সম্পাদক রতন তালুকার, সপ্তাহিক আজকাল সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ জিকো, প্রধান সম্পাদক মনজুর আহমদ, সাপ্তাহিক প্রবাস সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ, বাংলা পত্রিকা’র বার্তা সম্পাদক হাবিবুর রহমান, টাইম টেলিভিশন-এর হেড ও অব নিউজ আবিদুর রহীম, চ্যানেল টিটি’র সিইও শিবলী চৌধুরী কায়েস, সাংবাদিক ইমরান আনসারী, লেখক-সাংবাদিক মনিজা রহমান, বাংলা ভিশন-এর বিশেষ প্রতিনিধি নিহার সিদ্দিকী, সাংবাদিক বেলাল আহমেদ প্রমুখ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

About Author Information

সাংবাদিক স্বপন হাই আর নেই

প্রকাশের সময় : ০৩:৪৯:৫৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০

হককথা রিপোর্ট: বাংলাদেশ ও নিউইয়র্কের জনপ্রিয় ফটো সাংবাদিক এ হাই স্বপন আর নেই (ইন্না নিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)। সোমাবার (৩০ মার্চ) বেলা ১২ টা ৫০ মিনিটে নিউইয়র্কের কুইন্স হাসপাতালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনি রোগে ভূগছিলেনএবং নিয়মিত ডায়ালাইসি করছিলেন। ভারতে তার কিডনি প্রতিস্থাপনের উদ্যোগও নেয়া হয়েছিল। এজন্য গত ৬ মার্চ নিউইয়র্কের সাংবাদিক সমাজের পক্ষ থেকে স্বপন হাই-এর জন্য একটি ফান্ডরেজিং কনসার্ট করা হয়। এই কনসার্ট অনুষ্ঠানে স্বপন হাই দীর্ঘক্ষণ উপস্থিত ছিলেন। গত ২৮ মার্চ তাঁর দেশে চলে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস-এর ফওে বিশ্ব পরিস্থিতি অনকূলে না থাকায় তা হয়ে উঠেনি এবং এর মধ্যে তিনি কিডনি ডায়ালাসিসের জন্য হাসপাতালে ভর্তি হলে তার করোনা পজেটিভ পাওয়া যায় এবং সোমাবার দুপুর ১২ টা ৫০ মিনিটে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যকলে স্ত্রী, এক পুত্র ও এক কন্যা রেখে গেছেন এবং তারা ঢাকায় বসবাস করেন। স্ত্রী ঢাকার একটি স্কুলে চাকুরি করেন। স্বপন হাই নিউইয়র্কের জ্যামাইকায় তার বড় ভাই মতিন-এর বাসায় বসবসাস করছিলেন।

স্বপন হাই বাংলাদেশের দৈনিক বাংলা বাজার পত্রিকা ও দৈনিক মানবজমিনসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কাজ করেছেন। ২০১৪ সাল থেকে তিনি নিউইয়র্কে অবস্থান করছিলেন। এর মধ্যে তার ওপেন হার্ট সার্জারি হয় এবং গত বছর তার কিডনি সমস্যা দেখা দেয়। তিনি নিয়মিত ডায়ালাসিসে ছিলেন।
স্বপন হাই নিউইয়র্কের প্রথম আলো উত্তর আমেরিকা, সাপ্তাহিক আজকাল ও টিবিএন২৪ টেলিভিশনে কাজ করেছেন। তার এক ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে।
বাংলাদেশ সোসাইটির তত্বাবধানে হাসপাতালের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে স্বপন হাইর মরদেহ বুধবার (১এপ্রিল) দুপুর নিউজার্সীর বুধবার দুপুর ১২ টায় নিউজার্সির মালব্যুরো মুসলিম কমিউনিটি সিমিট্রিতে জানাজা শেষে তাঁকে সেখানে দাফন করা হয়। জানাজায় ইমামতি করেন আফ্রিকান বংশোদ্ভুত ইমাম কাবা। জানাজায় বাংলাদেশী কমিউনিটির পক্ষ থেকে অংশ নেন ডেইলি নিউ এইজ পত্রিকার সাবেক প্রধান আলোকচিত্রী ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সদস্য সানাউল হক, দৈনিক সকালের খবরের সিনিয়র ক্যামেরাপারসন খোরশেদ আলম রিংকু ও আবদুল হাই স্বপনের ভাতিজা পিয়াল মাহমুদ। এছাড়াও জানাজায় অন্যান্য কমিউনিটির আরো ১২ জন লোক শরীক হন বলে জানান সাংবাদিক সানাউল হক।
শোক প্রকাশ: এদিকে সাংবাতিক স্বপন হাই’র অকাল ও মর্মান্তিক মৃত্যুতে প্রবাসী বাংলাদেশী সাংবাদিক সমাজের পক্ষ থেকে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করে তার বিদেহী আতœার শন্তি কামনা এবং পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করা হয়েছে। শোক ও সমবেদনা প্রকাশকারীদেও মধ্যে রয়েছেন: নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি ডা. ওয়াজেদ এ খান ও সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ সিরাজু ইসলাম ও সালাহউদ্দিন আহমেদ, আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি দর্পণ কবীর ও সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাগর প্রমুখ।
এছাড়াও গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন, সাপ্তাহিক ঠিকানা’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এম এম শাহীন, সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, সাপ্তাহিক বাঙালী সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, বাংলা পত্রিকা’র সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশন-এর সিইও আবু তাহের, সিনিয়র সাংবাদিক মনির হায়দার, সাপ্তাহিক জন্মভূমি সম্পাদক রতন তালুকার, সপ্তাহিক আজকাল সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ জিকো, প্রধান সম্পাদক মনজুর আহমদ, সাপ্তাহিক প্রবাস সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ, বাংলা পত্রিকা’র বার্তা সম্পাদক হাবিবুর রহমান, টাইম টেলিভিশন-এর হেড ও অব নিউজ আবিদুর রহীম, চ্যানেল টিটি’র সিইও শিবলী চৌধুরী কায়েস, সাংবাদিক ইমরান আনসারী, লেখক-সাংবাদিক মনিজা রহমান, বাংলা ভিশন-এর বিশেষ প্রতিনিধি নিহার সিদ্দিকী, সাংবাদিক বেলাল আহমেদ প্রমুখ।