নিউইয়র্ক ০৩:২১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

‘ফ্রি প্যালেস্টাইন’-এর দাবীতে জেএমসি প্রাঙ্গন আর হিলসাইড এভিনিউ মুখরিত

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৬:০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২৩
  • / ৩৪ বার পঠিত

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): ইসরাইল-হামাস’র মধ্যকার যুদ্ধ বন্ধসহ ‘ফ্রি প্যালেস্টাইন’-এর দাবীতে নিউইয়র্ক সিটির কুইন্স বরোর জ্যামাইকায় প্রতিবাদ, বিক্ষোভ, জ্যামাইকা কমিউনিটির ব্যানারে সমাবেশ ও শান্তি মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) বাদ জুম্মা জ্যামাইকায় এই কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। জুম্মা’র নামের সময় ব্যতিত বেলা ১২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত এই কর্মসূচী চলে। জেএমসি-তে সমবেত মুসল্লী ছাড়াও ইকনা সহ আশপাশের বিভিন্ন মসজিদের মুসল্লীরা জুম্মার নাম শেষে সমবেত হন এবং সমাবেশ শেষে শান্তি মিছিল বের করেন। এসময় তারা দাবী-দাওয়া সম্বলিত ফেস্টুর, প্লাকার্ড, ব্যানার বহন ও প্রদর্শন করেন। খবর ইউএনএ’র।উল্লেখিত কর্মসূচী আয়োজনে সহযোগিতায় ছিলো জেএমসি, ইকনা, মুনা, কেয়ার-নিউইয়র্ক, মজলিশ শুরা প্রভৃতি প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন। জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার (জেএমসি)-এর সামনে আয়োজিত সমাবেশের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মোস্তফা আবদালরেহেম। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক ষ্টেট অ্যাসেম্বলীম্যান জোহরান মামদানী, জেএমসি পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডা. সিদ্দিকুর রহমান ডিডিএস ও সাবেক সভাপতি ডা. মো: ওয়াহিদুর রহমান ডিডিএস, মুনা’র ন্যাশনাল ডিরেক্টর আরমান চৌধুরী, ইকনা লোকাল চ্যাপ্টারের সভাপতি তারিকুর রহমান, কেয়ার নিউইয়র্ক-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর আফাফ নাসের, ড্রাম-এর অর্গানাইজার কাজী ফৌজিয়া, মজলিস শুরার ইয়ং ভলেন্টিয়ার জাহিদ খান প্রমুখ প্যালেস্টাইনীদের সমর্থনে বক্তব্য রাখেন।জ্যামাইকার ১৬৮ ষ্ট্রীট (জেএমসি স্ট্রীট) ও হাইল্যান্ড এভিনিউ থেকে শান্তি মিছিলটি বের হয়ে হিলসাইড এভিনিউ ধরে ১৭৫ স্ট্রীট ও হিলসাইড এভিনিউ’র কর্ণারের পার্কে এসে মিছিলটি শেষ হয়। এতে সর্বস্তরের শত শত নারী-পুরুষ অংশ নেন।

মিছিল ও সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ‘ফ্রি প্যালেস্টাইন, ফ্রি প্যালেস্টাইন, ফ্রে গাজা, ফ্রি গাজা’ প্রভৃতি শ্লোগান দেয় এবং অবলিম্বে ইসরাইল-হামাস’র মধ্যকার যুদ্ধ বন্ধসহ সিসফায়ার বাস্তবায়নের দাবী জানান।

জ্যামাইক কমিউনিটির কর্মসূচী সফল করতে বিশেষ ভূমিকা রাখেন মোহাম্মদ ওয়াহিদুর রহমান, আফতাব মান্নান, ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, আকতার হোসাইন, আব্দুল আজিজ ভূইয়া প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

‘ফ্রি প্যালেস্টাইন’-এর দাবীতে জেএমসি প্রাঙ্গন আর হিলসাইড এভিনিউ মুখরিত

প্রকাশের সময় : ০৬:০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২৩

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): ইসরাইল-হামাস’র মধ্যকার যুদ্ধ বন্ধসহ ‘ফ্রি প্যালেস্টাইন’-এর দাবীতে নিউইয়র্ক সিটির কুইন্স বরোর জ্যামাইকায় প্রতিবাদ, বিক্ষোভ, জ্যামাইকা কমিউনিটির ব্যানারে সমাবেশ ও শান্তি মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) বাদ জুম্মা জ্যামাইকায় এই কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। জুম্মা’র নামের সময় ব্যতিত বেলা ১২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত এই কর্মসূচী চলে। জেএমসি-তে সমবেত মুসল্লী ছাড়াও ইকনা সহ আশপাশের বিভিন্ন মসজিদের মুসল্লীরা জুম্মার নাম শেষে সমবেত হন এবং সমাবেশ শেষে শান্তি মিছিল বের করেন। এসময় তারা দাবী-দাওয়া সম্বলিত ফেস্টুর, প্লাকার্ড, ব্যানার বহন ও প্রদর্শন করেন। খবর ইউএনএ’র।উল্লেখিত কর্মসূচী আয়োজনে সহযোগিতায় ছিলো জেএমসি, ইকনা, মুনা, কেয়ার-নিউইয়র্ক, মজলিশ শুরা প্রভৃতি প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন। জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার (জেএমসি)-এর সামনে আয়োজিত সমাবেশের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মোস্তফা আবদালরেহেম। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক ষ্টেট অ্যাসেম্বলীম্যান জোহরান মামদানী, জেএমসি পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডা. সিদ্দিকুর রহমান ডিডিএস ও সাবেক সভাপতি ডা. মো: ওয়াহিদুর রহমান ডিডিএস, মুনা’র ন্যাশনাল ডিরেক্টর আরমান চৌধুরী, ইকনা লোকাল চ্যাপ্টারের সভাপতি তারিকুর রহমান, কেয়ার নিউইয়র্ক-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর আফাফ নাসের, ড্রাম-এর অর্গানাইজার কাজী ফৌজিয়া, মজলিস শুরার ইয়ং ভলেন্টিয়ার জাহিদ খান প্রমুখ প্যালেস্টাইনীদের সমর্থনে বক্তব্য রাখেন।জ্যামাইকার ১৬৮ ষ্ট্রীট (জেএমসি স্ট্রীট) ও হাইল্যান্ড এভিনিউ থেকে শান্তি মিছিলটি বের হয়ে হিলসাইড এভিনিউ ধরে ১৭৫ স্ট্রীট ও হিলসাইড এভিনিউ’র কর্ণারের পার্কে এসে মিছিলটি শেষ হয়। এতে সর্বস্তরের শত শত নারী-পুরুষ অংশ নেন।

মিছিল ও সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ‘ফ্রি প্যালেস্টাইন, ফ্রি প্যালেস্টাইন, ফ্রে গাজা, ফ্রি গাজা’ প্রভৃতি শ্লোগান দেয় এবং অবলিম্বে ইসরাইল-হামাস’র মধ্যকার যুদ্ধ বন্ধসহ সিসফায়ার বাস্তবায়নের দাবী জানান।

জ্যামাইক কমিউনিটির কর্মসূচী সফল করতে বিশেষ ভূমিকা রাখেন মোহাম্মদ ওয়াহিদুর রহমান, আফতাব মান্নান, ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, আকতার হোসাইন, আব্দুল আজিজ ভূইয়া প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।