নিউইয়র্ক ০৭:১৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

করোনা আতংক : নিউইয়র্ক সিটির স্কুল বন্ধ ঘোষণা

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৮:১০:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ মার্চ ২০২০
  • / ২০২ বার পঠিত

Bill de Blasio, mayor of New York, holds up a press release from the Service Employees International Union (SEIU) while speaking during a news conference on COVID-19 in New York, U.S., on Friday, March 13, 2020. On Thursday, Mayor de Blasio declared a state of emergency for New York City, saying the city would work with the state to enforce its decree against gatherings of more than 500 people to combat the new coronavirus outbreak. Photographer: Mark Kauzlarich/Bloomberg via Getty Images

হককথা ডেস্ক: নিউইয়র্ক সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাজিও সিটির সকল স্কুল আগামী ২০ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছেন। সোমবার (১৬ মার্চ)  থেকে এই ঘোষণা কার্যকর হবে। বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের বিস্তৃতি এবং ব্যাপক উদ্বেগ উৎকন্ঠার প্রেক্ষিতে রোববার (১৫ মার্চ) এক জরুরী সাংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মেয়র বিল ডি ব্লাজিও স্কুল বন্ধের ঘোষণা দেন। মেয়র বিল ব্লাজিও বলেন, এই সিদ্ধান্তে আসতে আমাদের অনেক সময় নিতে হয়েছে। এটা অত্যন্তু দুরুহ এবং জটিল একটি বিষয়। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণ হচ্ছে নিউইয়র্ক সিটিতে এ পর্যন্ত ৫ জনের মুত্যু ৩২৯ জনের করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে।
মেয়র ব্লাজিও সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এটা এমনও হতে পারে যে আমাদের পরবর্তী পুরো বছরই স্কুল বন্ধ রাখতে হতে পারে। এটা পুরোপুরি নির্ভর করবে পরিস্থিতির উপর। মেয়র বলেন, আগামী ২৩ মার্চ থেকে শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাশ শুরু হবে। এর আগে শিক্ষকদের এই অবস্থায় কিভাবে শিক্ষা প্রদান করা হবে সে বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। তিনি বলেন, ১৬ মার্চ সোমবার থেকে আগামী ৫দিন স্কুল খোলা থাকবে শুধুমাত্র সে সব শিক্ষার্থীদের জন্য যাদের ব্রেকফাস্ট ও লাঞ্চের জন্য স্কুলের উপর নির্ভরশীল। তবে এই সপ্তাহ পরে এটা আর চালু থাকবে না।

বিল ডি ব্লাজিও বলেন, এটা নিশ্চিত যে, পরিস্থিতি গুরুতর আঁকার ধারণ করছে। তিনি বলেন, আমি খুশিমনে এই সিদ্ধান্ত নিচ্ছি না। আমার মনে হয় না গত মিলিয়ন বছরেও আমাদের এমন সিদ্ধান্ত এবং পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়েছে। ইতিহাসের এক অপ্রত্যাশিত অভিজ্ঞতার সাক্ষী হচ্ছি আমরা।
সাংবাদ সম্মেলনে স্কুল চ্যান্সেলর রিচার্ড কারানজা বলেন, আমাদের সবার জন্য আজকের দিনটি অত্যন্ত বেদনাবহ দিন। কোন ধরনের বিকল্প না থাকায় শেষ পর্যন্ত আমাদের এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। শিক্ষার্থী অভিবাবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মনে করেন আগামীকাল তুষারপাতের দিন। যাতে সবাইকে ঘরে থাকতে হবে।
তিনি বলেন, ফ্রী ব্রেকফার্স্ট ও লাঞ্চের সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীরা শুধুমাত্র স্কুলে গিয়ে খাবার সংগ্রহ করেই ঘরে ফিরে আসবে। স্কুলের ক্লাশে যেতে পারবে না। তিনি বলেন, শিক্ষকরা মঙ্গল ও বুধবার নিরাপদ দুরত্ব রক্ষা করে স্কুলে আসবেন। এ সময় ভার্চুয়াল ক্লাশ বিষয়ে তাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। যাতে অন লাইনে প্রতিটি শিক্ষার্থী ক্লাশ নিতে পারে।
এদিকে নিউইয়র্ক সিটি স্পীকার করি জনসন বলেছেন, আমরা স্টেট অব ইমাজেন্সীর মধ্যে রয়েছি। এজন্য অপ্রয়োজনী বা জরুরী নয়, এমন সব দোকানপাট বন্ধ রাখা উচিৎ। এক্ষেত্রে তিনি গ্রোসারী, স্টোরস, ফার্মেসী সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের জন্য সব দোকান খোলা রাখার আহ্বান জানান। (বাংলা পত্রিকা)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

About Author Information

করোনা আতংক : নিউইয়র্ক সিটির স্কুল বন্ধ ঘোষণা

প্রকাশের সময় : ০৮:১০:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ মার্চ ২০২০

হককথা ডেস্ক: নিউইয়র্ক সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাজিও সিটির সকল স্কুল আগামী ২০ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছেন। সোমবার (১৬ মার্চ)  থেকে এই ঘোষণা কার্যকর হবে। বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের বিস্তৃতি এবং ব্যাপক উদ্বেগ উৎকন্ঠার প্রেক্ষিতে রোববার (১৫ মার্চ) এক জরুরী সাংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মেয়র বিল ডি ব্লাজিও স্কুল বন্ধের ঘোষণা দেন। মেয়র বিল ব্লাজিও বলেন, এই সিদ্ধান্তে আসতে আমাদের অনেক সময় নিতে হয়েছে। এটা অত্যন্তু দুরুহ এবং জটিল একটি বিষয়। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণ হচ্ছে নিউইয়র্ক সিটিতে এ পর্যন্ত ৫ জনের মুত্যু ৩২৯ জনের করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে।
মেয়র ব্লাজিও সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এটা এমনও হতে পারে যে আমাদের পরবর্তী পুরো বছরই স্কুল বন্ধ রাখতে হতে পারে। এটা পুরোপুরি নির্ভর করবে পরিস্থিতির উপর। মেয়র বলেন, আগামী ২৩ মার্চ থেকে শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাশ শুরু হবে। এর আগে শিক্ষকদের এই অবস্থায় কিভাবে শিক্ষা প্রদান করা হবে সে বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। তিনি বলেন, ১৬ মার্চ সোমবার থেকে আগামী ৫দিন স্কুল খোলা থাকবে শুধুমাত্র সে সব শিক্ষার্থীদের জন্য যাদের ব্রেকফাস্ট ও লাঞ্চের জন্য স্কুলের উপর নির্ভরশীল। তবে এই সপ্তাহ পরে এটা আর চালু থাকবে না।

বিল ডি ব্লাজিও বলেন, এটা নিশ্চিত যে, পরিস্থিতি গুরুতর আঁকার ধারণ করছে। তিনি বলেন, আমি খুশিমনে এই সিদ্ধান্ত নিচ্ছি না। আমার মনে হয় না গত মিলিয়ন বছরেও আমাদের এমন সিদ্ধান্ত এবং পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়েছে। ইতিহাসের এক অপ্রত্যাশিত অভিজ্ঞতার সাক্ষী হচ্ছি আমরা।
সাংবাদ সম্মেলনে স্কুল চ্যান্সেলর রিচার্ড কারানজা বলেন, আমাদের সবার জন্য আজকের দিনটি অত্যন্ত বেদনাবহ দিন। কোন ধরনের বিকল্প না থাকায় শেষ পর্যন্ত আমাদের এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। শিক্ষার্থী অভিবাবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মনে করেন আগামীকাল তুষারপাতের দিন। যাতে সবাইকে ঘরে থাকতে হবে।
তিনি বলেন, ফ্রী ব্রেকফার্স্ট ও লাঞ্চের সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীরা শুধুমাত্র স্কুলে গিয়ে খাবার সংগ্রহ করেই ঘরে ফিরে আসবে। স্কুলের ক্লাশে যেতে পারবে না। তিনি বলেন, শিক্ষকরা মঙ্গল ও বুধবার নিরাপদ দুরত্ব রক্ষা করে স্কুলে আসবেন। এ সময় ভার্চুয়াল ক্লাশ বিষয়ে তাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। যাতে অন লাইনে প্রতিটি শিক্ষার্থী ক্লাশ নিতে পারে।
এদিকে নিউইয়র্ক সিটি স্পীকার করি জনসন বলেছেন, আমরা স্টেট অব ইমাজেন্সীর মধ্যে রয়েছি। এজন্য অপ্রয়োজনী বা জরুরী নয়, এমন সব দোকানপাট বন্ধ রাখা উচিৎ। এক্ষেত্রে তিনি গ্রোসারী, স্টোরস, ফার্মেসী সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের জন্য সব দোকান খোলা রাখার আহ্বান জানান। (বাংলা পত্রিকা)