নিউইয়র্ক ০৬:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৩৫:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৫
  • / ১১০৬ বার পঠিত

গোপালগঞ্জ: ‘জাতির পিতা’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে টুঙ্গিপাড়ায় তার সমাধিতে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১৫ আগষ্ট শনিবার সকাল সোয়া ১০টায় তিনি সমাধি বেদিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে এ শ্রদ্ধা জানান।
প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সমাধির পাশে দাঁড়িয়ে প্রথমে ফাতিহা পাঠ করে বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও বিশেষ মোনাজাত করেন। পরে সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। এ সময় ‘জাতির পিতা’র প্রতি প্রদর্শন করা হয় রাষ্ট্রীয় সালাম। বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর। বেদিমূলে প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় তিনি অশ্রু সজল হয়ে পড়েন। পরে ছোট বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে তিনি ‘জাতির পিতা’র সমাধিতে ফুল দিয়ে গভীর শ্রদ্ধা জানান।
এরপর জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া, চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ জাতির পিতার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, এলজিআরডিমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, মুক্তিযোদ্ধাবিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি, আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি, বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি, বিএম মোজাম্মেল হক এমপি, কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, খ ম জাহাঙ্গীর, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস এমপি, উম্মে রাজিয়া কাজল এমপি, শেখ কবির হোসেন, কাজী আকরাম উদ্দিন আহম্মদ, হাবিবুর রহমান সিরাজ, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মো. সফিউল হক, নৌবাহিনী প্রধান ভাইস এডমিরাল ফরিদ হাবিব, বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল আবু এসরার, পুলিশের আইজিপি একেএম শহিদুল হক, র‌্যাবের ডিজি বেনজীর আহমেদ, বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিদ্যালয়ের ভিসি ড. খন্দকার নাসির উদ্দিন, ঢাকা বিভাগের ডিআইজি এসএম মাহফুজুর রহমান নুরুজ্জামান, এসএম কামাল, বিমল কৃষ্ণ বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক চৌধুরী এমদাদুল হক, জেলা প্রশাসক মো. খলিলুর রহমান, পুলিশ সুপার এসএম এমরান হোসেন, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি মোতাহার হোসেন, সহসভাপতি আশালতা বৈদ্য, শরীফ আশরাফ আলী, সাধারণ সম্পাদিকা স ম সামসুল হক, টিভি ব্যক্তিত্ব পিযুষ বন্দ্যোপধ্যায়, শেখ সালাহউদ্দিন জুয়ের, শেখ নাদির হোসেন লিপু, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলী খান, নাসিমা খানম, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আবদুল হালিম, সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের বাসার, কোটালীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুভাষ চদ্র জয়ধরসহ ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা ও রাজনীতিক নেতা উপস্থিত ছিলেন।
পরে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে সমাধি বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
শ্রদ্ধা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু ভবনে যান এবং সেখানে কিছু সময় অবস্থান করেন। বেলা সাড়ে ১০টায় মাজার কমপ্লেক্স মসজিদে জেলা প্রশাসন আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সফর সঙ্গীরা অংশ নেন। প্রধানমন্ত্রী দুপুর ১২টা ৩৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে টুঙ্গিপাড়া ত্যাগ করেন।
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি শোক দিবসের প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের বলেন, যারা সবসময় মানবতার কথা বলেন, পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে আনতে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, ’৭৫-এর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের রায় কার্যকর করার জন্য সরকারের তরফ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের মাটিতে পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে এনে বিচারের রায় কার্যকর করা হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এরপর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্স সবার জন্য খুলে দেয়া হয়।(দৈনিক যুগান্তর)

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

About Author Information

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

প্রকাশের সময় : ০৭:৩৫:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৫

গোপালগঞ্জ: ‘জাতির পিতা’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে টুঙ্গিপাড়ায় তার সমাধিতে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১৫ আগষ্ট শনিবার সকাল সোয়া ১০টায় তিনি সমাধি বেদিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে এ শ্রদ্ধা জানান।
প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সমাধির পাশে দাঁড়িয়ে প্রথমে ফাতিহা পাঠ করে বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও বিশেষ মোনাজাত করেন। পরে সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। এ সময় ‘জাতির পিতা’র প্রতি প্রদর্শন করা হয় রাষ্ট্রীয় সালাম। বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর। বেদিমূলে প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় তিনি অশ্রু সজল হয়ে পড়েন। পরে ছোট বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে তিনি ‘জাতির পিতা’র সমাধিতে ফুল দিয়ে গভীর শ্রদ্ধা জানান।
এরপর জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া, চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ জাতির পিতার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, এলজিআরডিমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, মুক্তিযোদ্ধাবিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি, আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি, বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি, বিএম মোজাম্মেল হক এমপি, কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, খ ম জাহাঙ্গীর, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস এমপি, উম্মে রাজিয়া কাজল এমপি, শেখ কবির হোসেন, কাজী আকরাম উদ্দিন আহম্মদ, হাবিবুর রহমান সিরাজ, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মো. সফিউল হক, নৌবাহিনী প্রধান ভাইস এডমিরাল ফরিদ হাবিব, বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল আবু এসরার, পুলিশের আইজিপি একেএম শহিদুল হক, র‌্যাবের ডিজি বেনজীর আহমেদ, বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিদ্যালয়ের ভিসি ড. খন্দকার নাসির উদ্দিন, ঢাকা বিভাগের ডিআইজি এসএম মাহফুজুর রহমান নুরুজ্জামান, এসএম কামাল, বিমল কৃষ্ণ বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক চৌধুরী এমদাদুল হক, জেলা প্রশাসক মো. খলিলুর রহমান, পুলিশ সুপার এসএম এমরান হোসেন, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি মোতাহার হোসেন, সহসভাপতি আশালতা বৈদ্য, শরীফ আশরাফ আলী, সাধারণ সম্পাদিকা স ম সামসুল হক, টিভি ব্যক্তিত্ব পিযুষ বন্দ্যোপধ্যায়, শেখ সালাহউদ্দিন জুয়ের, শেখ নাদির হোসেন লিপু, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলী খান, নাসিমা খানম, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আবদুল হালিম, সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের বাসার, কোটালীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুভাষ চদ্র জয়ধরসহ ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা ও রাজনীতিক নেতা উপস্থিত ছিলেন।
পরে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে সমাধি বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
শ্রদ্ধা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু ভবনে যান এবং সেখানে কিছু সময় অবস্থান করেন। বেলা সাড়ে ১০টায় মাজার কমপ্লেক্স মসজিদে জেলা প্রশাসন আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সফর সঙ্গীরা অংশ নেন। প্রধানমন্ত্রী দুপুর ১২টা ৩৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে টুঙ্গিপাড়া ত্যাগ করেন।
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি শোক দিবসের প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের বলেন, যারা সবসময় মানবতার কথা বলেন, পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে আনতে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, ’৭৫-এর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের রায় কার্যকর করার জন্য সরকারের তরফ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের মাটিতে পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে এনে বিচারের রায় কার্যকর করা হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এরপর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্স সবার জন্য খুলে দেয়া হয়।(দৈনিক যুগান্তর)