নিউইয়র্ক ০৪:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

রানী মুখার্জির মেয়ে বললো, ‘এই ভাইয়ারা খুব খারাপ’

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৫৩:২১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৩ মার্চ ২০২২
  • / ১০ বার পঠিত

বিনোদন ডেস্ক : স্টারকিড মানেই পাপারাজ্জিদের বাড়তি কৌতূহল, বাড়তি খবরের আয়োজন। মাঝেমধ্যে এ বাড়তি আগ্রহটা স্টারকেই ছাপিয়ে যায়। সংবাদমাধ্যমে আসে স্টারকিডের নানা ঢঙের ছবি ও তাকে নিয়ে মুখরোচক সব খবর।
কিন্তু অনেক স্টারকিড বা তারকাসন্তান পাপারাজ্জিদের এই আগ্রহটা পছন্দ করে না, তার চারপাশে ঘুরঘুর করা বা তার ছবি তোলার বিষয়টি পছন্দ করে না।
বলিউড অভিনেত্রী রানী মুখার্জির ৬ বছরের মেয়ে আদিরাও ঠিক এমনই। পাপারাজ্জিদের ছবি তোলা নিয়ে ভীষণ বিরক্ত সে।
কোনো পাপারাজ্জি তার ছবি তুললে তাকে খুব খারাপ মানুষ মনে করে সে।
সম্প্রতি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম মিড-ডেতে পাপারাজ্জিদের নিয়ে মেয়ে আদিরার এমন নেতিবাচক মনোভাবের কথাই জানালেন রানী।
একটি ঘটনার বর্ণনা দিয়ে রানী বলেন—‘আমি একদিন এয়ারপোর্ট থেকে ফিরছি। সেদিন বাইরে পাপারাজ্জিরা দাঁড়িয়ে। উনারা বরাবরই আমার সাথে খুব ভালো ব্যবহার করেন। আমি বেবির ফটো না তুলতে বললেই ওরা আগে আদিরাকে যেতে দেয়। তারপর তারা আমার একার ছবি তোলেন। এবার আমি ছবি তোলার পার্ট শেষ করে গাড়িতে যেতেই আদিরা বলে—‘এই ভাইয়ারা খুব খারাপ না আম্মু, সবসময় তোমার ছবি তুলে নেয়।’
জবাবে আমি বলি, ‘হ্যাঁ এই ভাইয়ারা সত্যিই খারাপ। সবসময় আমার ফটো নেয়।’
পাল্টা প্রশ্ন করে আদিরা , ‘আচ্ছা আম্মু, ওরা কেন ছবি তুলে তোমার?’ আমি তখন বলি, ‘আমি জানি না মা, কেন ওরা এমনটা করে।’
এরপর রানী মুখার্জি বলেন, আদিরা পুরোপুরি তার বাবা আদিত্য চোপড়ার মতো হয়েছে। তার ‘হ্যাঁ’ মানে হ্যাঁ আর ‘না’ মানে না। কথার নড়চড় হবে না। আরেকটা মিল হলো, দু’জনেই ছবি তুলতে একদম পছন্দ করে না। আসলে ছোট্ট আদিরা বুঝতে পারে না, যখনই সে বাড়ির বাইরে আসে তখনই কেন সবাই তার ছবি তুলতে শুরু করে। রানীকে আদিরা সবসময়ই বলে, ‘মাম্মা নো ফটো।’তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া টুডে
হককথা/এমউএ

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

রানী মুখার্জির মেয়ে বললো, ‘এই ভাইয়ারা খুব খারাপ’

প্রকাশের সময় : ০৭:৫৩:২১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৩ মার্চ ২০২২

বিনোদন ডেস্ক : স্টারকিড মানেই পাপারাজ্জিদের বাড়তি কৌতূহল, বাড়তি খবরের আয়োজন। মাঝেমধ্যে এ বাড়তি আগ্রহটা স্টারকেই ছাপিয়ে যায়। সংবাদমাধ্যমে আসে স্টারকিডের নানা ঢঙের ছবি ও তাকে নিয়ে মুখরোচক সব খবর।
কিন্তু অনেক স্টারকিড বা তারকাসন্তান পাপারাজ্জিদের এই আগ্রহটা পছন্দ করে না, তার চারপাশে ঘুরঘুর করা বা তার ছবি তোলার বিষয়টি পছন্দ করে না।
বলিউড অভিনেত্রী রানী মুখার্জির ৬ বছরের মেয়ে আদিরাও ঠিক এমনই। পাপারাজ্জিদের ছবি তোলা নিয়ে ভীষণ বিরক্ত সে।
কোনো পাপারাজ্জি তার ছবি তুললে তাকে খুব খারাপ মানুষ মনে করে সে।
সম্প্রতি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম মিড-ডেতে পাপারাজ্জিদের নিয়ে মেয়ে আদিরার এমন নেতিবাচক মনোভাবের কথাই জানালেন রানী।
একটি ঘটনার বর্ণনা দিয়ে রানী বলেন—‘আমি একদিন এয়ারপোর্ট থেকে ফিরছি। সেদিন বাইরে পাপারাজ্জিরা দাঁড়িয়ে। উনারা বরাবরই আমার সাথে খুব ভালো ব্যবহার করেন। আমি বেবির ফটো না তুলতে বললেই ওরা আগে আদিরাকে যেতে দেয়। তারপর তারা আমার একার ছবি তোলেন। এবার আমি ছবি তোলার পার্ট শেষ করে গাড়িতে যেতেই আদিরা বলে—‘এই ভাইয়ারা খুব খারাপ না আম্মু, সবসময় তোমার ছবি তুলে নেয়।’
জবাবে আমি বলি, ‘হ্যাঁ এই ভাইয়ারা সত্যিই খারাপ। সবসময় আমার ফটো নেয়।’
পাল্টা প্রশ্ন করে আদিরা , ‘আচ্ছা আম্মু, ওরা কেন ছবি তুলে তোমার?’ আমি তখন বলি, ‘আমি জানি না মা, কেন ওরা এমনটা করে।’
এরপর রানী মুখার্জি বলেন, আদিরা পুরোপুরি তার বাবা আদিত্য চোপড়ার মতো হয়েছে। তার ‘হ্যাঁ’ মানে হ্যাঁ আর ‘না’ মানে না। কথার নড়চড় হবে না। আরেকটা মিল হলো, দু’জনেই ছবি তুলতে একদম পছন্দ করে না। আসলে ছোট্ট আদিরা বুঝতে পারে না, যখনই সে বাড়ির বাইরে আসে তখনই কেন সবাই তার ছবি তুলতে শুরু করে। রানীকে আদিরা সবসময়ই বলে, ‘মাম্মা নো ফটো।’তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া টুডে
হককথা/এমউএ