নিউইয়র্ক ১১:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

জনপ্রিয় অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায় প্রয়াত

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০৬:২৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ মার্চ ২০২২
  • / ৩ বার পঠিত

বিনোদন ডেস্ক : টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায় আর নেই। গতকাল বুধবার (২৩ মার্চ) রাত ১টা ১০ মিনিটে ভারতের কলকাতার প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ৫৭ বছর বয়সী এই অভিনেতা।
গত দুই-তিনদিন ধরে পেটের সমস্যা ভুগছিলেন তিনি। গতকাল এক রিয়েলিটি শো’তে তিনি অংশও নিয়েছিলেন। সেখানেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। অভিনেতার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই শোকস্তব্ধ টলিউড।
অভিষেকের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন টলিউডের আরেক অভিনেতা ভরত কৌল।
তিনি বলেন, মঙ্গলবার খাদ্যের বিষক্রিয়ায় প্রথমে অসুস্থ হয়ে পড়েন অভিষেক। ওই অবস্থাতেই কিছুক্ষণ শ্যুটিংয়ের পর তাকে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়। বুধবারও তিনি স্টার জলসার ‘ইসমার্ট জোড়ি’ রিয়্যালিটি শো’তে শ্যুট করতে আসেন। সেখানেই আচমকা প্রেসার নেমে আসে ৮০-তে। সাথে সাথে কালো কফি দেওয়া হয় তাকে। দুপুর আড়াইটা নাগাদ বাড়িও পাঠিয়ে দেওয়া হয়। সেই শেষ দেখা আমাদের।
অভিনয় ছিল তার প্রাণ। লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশন নিয়ে বাঁচতেন তিনি। শ্যুট করতে করতেই চলে গেলেন অভিষেক। নব্বইয়ের দশকে বাংলা চলচ্চিত্র জগতের অন্যতম ব্যস্ত অভিনেতা ছিলেন অভিষেক। এক সময় প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, তাপস পালদের সাথে একসারিতে নাম উঠে আসতো তার।
একাধিক হিট বাংলা ছবিতে অভিনয় করেছেন এই অভিনেতা। ১৯৮৬ সালে তরুণ মজুমদারের ছবি ‘পথভোলা’ দিয়ে বড় পর্দায় আত্মপ্রকাশ তার। প্রাণের চেয়েও প্রিয়, গীত সংগীত, তুফান, সুজন সখী, অমর প্রেমের মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। একক নায়ক হিসেবে বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। কিন্তু পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন। সম্প্রতি একাধিক ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা যায় তাকে।
হককথা/এমউএ

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

জনপ্রিয় অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায় প্রয়াত

প্রকাশের সময় : ০৬:২৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ মার্চ ২০২২

বিনোদন ডেস্ক : টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায় আর নেই। গতকাল বুধবার (২৩ মার্চ) রাত ১টা ১০ মিনিটে ভারতের কলকাতার প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ৫৭ বছর বয়সী এই অভিনেতা।
গত দুই-তিনদিন ধরে পেটের সমস্যা ভুগছিলেন তিনি। গতকাল এক রিয়েলিটি শো’তে তিনি অংশও নিয়েছিলেন। সেখানেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। অভিনেতার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই শোকস্তব্ধ টলিউড।
অভিষেকের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন টলিউডের আরেক অভিনেতা ভরত কৌল।
তিনি বলেন, মঙ্গলবার খাদ্যের বিষক্রিয়ায় প্রথমে অসুস্থ হয়ে পড়েন অভিষেক। ওই অবস্থাতেই কিছুক্ষণ শ্যুটিংয়ের পর তাকে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়। বুধবারও তিনি স্টার জলসার ‘ইসমার্ট জোড়ি’ রিয়্যালিটি শো’তে শ্যুট করতে আসেন। সেখানেই আচমকা প্রেসার নেমে আসে ৮০-তে। সাথে সাথে কালো কফি দেওয়া হয় তাকে। দুপুর আড়াইটা নাগাদ বাড়িও পাঠিয়ে দেওয়া হয়। সেই শেষ দেখা আমাদের।
অভিনয় ছিল তার প্রাণ। লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশন নিয়ে বাঁচতেন তিনি। শ্যুট করতে করতেই চলে গেলেন অভিষেক। নব্বইয়ের দশকে বাংলা চলচ্চিত্র জগতের অন্যতম ব্যস্ত অভিনেতা ছিলেন অভিষেক। এক সময় প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, তাপস পালদের সাথে একসারিতে নাম উঠে আসতো তার।
একাধিক হিট বাংলা ছবিতে অভিনয় করেছেন এই অভিনেতা। ১৯৮৬ সালে তরুণ মজুমদারের ছবি ‘পথভোলা’ দিয়ে বড় পর্দায় আত্মপ্রকাশ তার। প্রাণের চেয়েও প্রিয়, গীত সংগীত, তুফান, সুজন সখী, অমর প্রেমের মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। একক নায়ক হিসেবে বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। কিন্তু পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন। সম্প্রতি একাধিক ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা যায় তাকে।
হককথা/এমউএ