নিউইয়র্ক ১১:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন :
মঙ্গলবারের পত্রিকা সাপ্তাহিক হককথা ও হককথা.কম এ আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন +1 (347) 848-3834

ভারতের বিপক্ষে জিততে বাংলাদেশের মেয়েদের দরকার ২৩০

রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : ০২:২৩:১৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ মার্চ ২০২২
  • / ৩ বার পঠিত

ক্রীড়া ডেস্ক : হ্যামিল্টনে নারী বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতের মেয়েরা। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২৯ রান করেছেন তারা।
উদ্বোধনী জুটিতে ৭৪ রান যোগ করেন ভারতের দুই ওপেনার শেফালি ভার্মা ও স্মৃতি মান্দানা। মারমুখী শেফালি ভার্মা জাহানারা আলমের এক ওভারেই হাঁকান তিনটি চার। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ যখন ধীরে ধীরে ফসকে যাচ্ছে, তখনই বাংলাদেশকে খেলায় ফেরান নাহিদা আক্তার।
তার শট বল পুল করতে গিয়ে ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে ক্যাচ তুলে দেন স্মৃতি মান্দানা। ৩ চারে ৫১ বলে ৩০ রান করেন তিনি। পরের ওভারের তৃতীয় বলেই ভয়ঙ্কর হতে থাকা শেফালিকে ফেরান রিতু মনি।
এগিয়ে এসে তার বল খেলতে চেয়েছিলেন তিনি। ৪২ বলে ৪২ রান করেন শেফালি। এর পর মিতালি রাজকে একেবারে শূন্যরানেই সাজঘরের পথ দেখান রিতু।
ইয়াশকিতা ভাটিয়ার সঙ্গে এর পর ইনিংস মেরামতের কাজ শুরু করেছিলেন হারমানপ্রিত কার। কিন্তু তাকে দুর্দান্তভাবে রান আউট করেন ফারজানা হক। ৩৩ বলে ১৪ রান করেন তিনি। তার সঙ্গী ভাটিয়া অবশ্য তুলে নেন ফিফটি।
হককথা/এমউএ

Tag :

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবরটি শেয়ার করুন

ভারতের বিপক্ষে জিততে বাংলাদেশের মেয়েদের দরকার ২৩০

প্রকাশের সময় : ০২:২৩:১৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ মার্চ ২০২২

ক্রীড়া ডেস্ক : হ্যামিল্টনে নারী বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতের মেয়েরা। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২৯ রান করেছেন তারা।
উদ্বোধনী জুটিতে ৭৪ রান যোগ করেন ভারতের দুই ওপেনার শেফালি ভার্মা ও স্মৃতি মান্দানা। মারমুখী শেফালি ভার্মা জাহানারা আলমের এক ওভারেই হাঁকান তিনটি চার। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ যখন ধীরে ধীরে ফসকে যাচ্ছে, তখনই বাংলাদেশকে খেলায় ফেরান নাহিদা আক্তার।
তার শট বল পুল করতে গিয়ে ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে ক্যাচ তুলে দেন স্মৃতি মান্দানা। ৩ চারে ৫১ বলে ৩০ রান করেন তিনি। পরের ওভারের তৃতীয় বলেই ভয়ঙ্কর হতে থাকা শেফালিকে ফেরান রিতু মনি।
এগিয়ে এসে তার বল খেলতে চেয়েছিলেন তিনি। ৪২ বলে ৪২ রান করেন শেফালি। এর পর মিতালি রাজকে একেবারে শূন্যরানেই সাজঘরের পথ দেখান রিতু।
ইয়াশকিতা ভাটিয়ার সঙ্গে এর পর ইনিংস মেরামতের কাজ শুরু করেছিলেন হারমানপ্রিত কার। কিন্তু তাকে দুর্দান্তভাবে রান আউট করেন ফারজানা হক। ৩৩ বলে ১৪ রান করেন তিনি। তার সঙ্গী ভাটিয়া অবশ্য তুলে নেন ফিফটি।
হককথা/এমউএ