গোলাম আযম

 
 

আরেকটু সুন্দর বাংলাদেশ

‘রাজাকারকুল’ শিরোমণি গোলাম আযম মৃত্যুবরণ করেছেন। দেশের সঙ্গে আমার এখন যোগাযোগের মূল মাধ্যম অনলাইন দৈনিক ও ফেসবুক। কাজেই আমি ঘণ্টায় ঘণ্টায় টাইমলাইনে বিভিন্ন বয়সী ‘ফেসবুক বন্ধুদের’ কাছ থেকে বিভিন্ন মাত্রার উচ্ছ্বাস দেখতে পাচ্ছি। পড়াশোনা অনেক বেশি করেছেন, চিন্তাভাবনা একটু গভীরভাবে করেন, বয়সও একটু বেশি– এ রকম কেউ কেউ অবশ্য টেলিভিশনের টক শো আর ফেসবুক পেইজে দেশ ও জাতিকে পরামর্শ দিয়েছেন উচ্ছ্বাসের মাত্রা যেন খুব বেশি না হয়। আশেপাশে দেখে অবশ্য মনে হচ্ছে না কেউ ওনাদের কথা শুনছে। নিজের চেয়ে কমবয়সীদের কখনও উপদেশ দিতে নেই! পরিবারের সবচেয়ে বড় পণ্ডিত, বুড়ো, খিটখিটেবিস্তারিত পড়ুন


স্বাধীন বাংলায় কবর নিলেন স্বাধীনতাবিরোধীদের নেতা

যে দেশের স্বাধীনতার চরম বিরোধী ছিলেন, স্বাধীনতার পর যে দেশের অস্তিত্ব মিশিয়ে দিতে ছিলেন সচেষ্ট, সে বাংলাদেশেই শেষ শয্যা নিতে হয়েছে গোলাম আযমকে। একাত্তরের যুদ্ধাপরাধের দায়ে কারাভোগের মধ্যে মারা যাওয়া গোলাম আযমকে শনিবার জানাজার পর ঢাকার মগবাজারে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। বিকালে দাফনের আগে দুপুরে বায়তুল মোকাররম মসজিদে হয় জামায়াতের সাবেক আমিরের জানাজা। এতে দলের নেতা-কর্মী-সমর্থকদের বাইরে রাজনৈতিক মিত্র বিএনপিসহ অন্য দলগুলোর গুটিকয়েক নেতাকেই দেখা গেছে। একাত্তরে গণহত্যা, ধর্ষণের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধের পরিকল্পনাকারী হিসেবে গোলাম আযমকে ৯০ বছর কারাদণ্ড দিয়েছিল যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল। সেই সাজার এক বছর গড়াতেই বন্দি অবস্থায়বিস্তারিত পড়ুন