১৪ লাখ ডলার হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে বাংলাদেশী হৃদয় গ্রেফতার

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): ভুয়া নাম ঠিকানা ও ট্যাক্স প্রদানকারীর তথ্য ব্যবহার করে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় ১৪ লাখ ডলার হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে নিউইয়র্কে আইআরএস-এর হাতে গ্রেফতার হয়েছেন জহিরুল হৃদয় নামের এক বাংলাদেশী। সে নিউইয়র্কে কুইন্সের বাসিন্দা। এই ঘটনায় কমিউনিটিতে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। খবরটি ইতিমধ্যেই মূলধারার মিডিয়ায় প্রচারিত হয়েছে। খবর ইউএনএ’র।
জানা গেছে গত ৯ অক্টোবর বুধবার আইআরএস জহিরুল হৃদয়ের উডসাইডের বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতারের পাশাপশি তার অ্যাপার্টমেন্টে তল্লাশি চালিয়ে নগদ ৪০ হাজার নগদ ডলার, ৫৭ হাজার ডলারের চেক, ৩৭৫টি ক্রেডিট কার্ড এবং দু’টি লাইসেন্সহীন বন্দুক উদ্ধার করে। আইআরএস জানায়, ২০১৩ সাল থেকে হৃদয় ৮ জন বিভিন্ন ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করে আইআরএস-এর জাল ট্যাক্স রিফান্ডের কাগজ পত্র দাখিল করে এবং প্রায় ১৪ লাখ ডলার হাতিয়ে নেয়। এর মধ্যে শুধু মোহাম্মদ হোসেন নাম ব্যবহার করেই তিনি ট্যাক্স রিফান্ডের ২০টি পেমেন্ট নেন। এনিয়ে সন্দেহের উদ্রেক হলেই অনুসন্ধানে নামে আইআরএস এবং বিপুল অংকের এই অর্থ প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়ার উল্লেখিত চিত্র বেরিয়ে আসে। তার বিরুদ্ধে প্রতারণা এবং রাষ্ট্রীয় অর্থ আত্মসাৎ সহ ক্রিমিনাল অ্যাক্টিভিটির অভিযোগ আনা হয়েছে।
এদিকে হৃদয়কে গ্রেফতারের দিনই ব্রুকলীনের একটি আদালতে হাজির করা হয় এবং আদালত তার জামিন শুনানী পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আদেশ দেন বলে জানা গেছে।






একই ধরনের খবর

  • বাংলাদেশীদের অনুষ্ঠানে সিনেটর চাক শুমারকে ঘিরে যা হলো
  • হাইরাম মানসেরাতকে নির্বাচিত করার আহ্বান
  • বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিলের নতুন কমিটি ঘোষণা
  • ভবিষ্যতে কংগ্রেসে নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশীরা : চাক শুমার
  • ফ্রেন্ডস সোসাইটি নতুন পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা : আগামী দিনে নতুন কিছু উপহার দেয়ার প্রতিশ্রæতি
  • বিশ্বব্যাপী গণহত্যার বিচার দাবী
  • নিউইয়র্কে বাংলাদেশী সুপার মার্কেট সহ ৫টি বাড়ীতে অগ্নিকান্ড ॥ আহত ১৫
  • ওজনপার্কে আগুন : ৪টি বসতবাড়ীসহ সুপার মার্কেট ক্ষতিগ্রস্ত
  • Shares