রেকর্ড উপহার, র‌্যাফেল-ড্রয়ে প্রীতি সমাবেশ

সৌহার্দ সম্প্রীতির আমেজে রায়পুর সোসাইটির বার্ষিক বনভোজন

নিউইয়র্ক: প্রাণের উচ্ছ্বাস, উদ্দীপনা আর সৌহার্দ সম্প্রীতির আমেজে রায়পুর সোসাইটির ইউএসএর বার্ষিক বনভোজন-২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নিউইয়র্ক’সহ যুক্তরাষ্ট্রে বসবসাকারি লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলা প্রাবাসী বাংলাদেশীদের প্রাণের এ সংগঠনটির তৃতীয় আয়োজন ঘিরে ছিল রেকর্ড উপহার আর র‌্যাফেল-ড্রয়ের ছড়াছড়ি। এছাড়া ছিল প্রীতিভোজ’সহ কয়েকটি পর্বের প্রতিযোগিতামূলক খেলা। ছিল আকর্ষণীয় রকমারি উপহার। আর মনমতানো সুরের মুর্ছনায় ছুঁেয় যায় ওয়েস্টচেস্টার কাউন্টির ‘গ্লেন-আইল্যান্ড-পার্ক’। নদী-নালা ঘেরা দ্বীপ-নির্ভর ছোট্ট এ উদ্যানটির চারপাশ জুড়ে ছিল সবুজঘেরা মনোরম পরিবেশ। দৃষ্টিনন্দন পার্কটির পূর্ণতায় পায় রায়পুর সোসাইটির বার্ষিক বনভোজনের ব্যতিক্রমি সব আয়োজনে। যাতে শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে ছোট বড় বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। অত্যন্ত পরিপাটি ও সাজানো গোছানো ‘গ্লেন-আইল্যান্ড-পার্ক’র ‘প্যাভেলিয়ন-থ্রি’ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।
এ ধরণের একটি দর্শনীয় স্থানে প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়া সন্তোষ প্রকাশ করেন- রায়পুর সোসাইটির আমন্ত্রিত অতিথি’সহ কার্যনির্বাহী পরিষদ ও বনভোজন আয়োজক কমিটির নেতারা। এতে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে অংশ নিয়েছেন, বৃহত্তর নোয়াখালী, চট্টগ্রাম ও লক্ষ্মীপুর অন্তর্গত আঞ্চলিক এবং সামাজিক সংগঠনের নেতারা। যাদের মধ্যে অন্যতম, বৃহত্তর নোয়াখালী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহিদ মিন্টু ও সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান মানিক, লক্ষ্মীপুরের রায়পুর-প্রবাসী ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক ছায়ফুল আলম, বাংলা ট্যুরের সিইও সাংবাদিক হাবিব রহমান, প্রবাসী সাংবাদিক শাহেদ আলম, ব্রঙ্কস কমিউনিটি নেতা আবদুর রহীম বাদশাহ, চট্টগ্রাম সমিতির নেতা জাহাঙ্গির আলম’সহ বিভিন্ন পর্যায়ের শুভানুধ্যায়ীরা। পৃষ্ঠপোষকতায় ছিলেন- এটর্নী মঈন চৌধুরী, ওয়াসী চৌধুরী, সালেহ উদ্দীন সাল, মিজানুর রহমান ভূইয়া, নুরুল আমীন ভূইয়া প্রমুখ।
রোববার ছুটির দিন ও রৌদ্রজ্জল আবহাওয়া মধ্যেই শুরু হয় বনভোজন যাত্রা। সকাল ৯ ঘটিকায় ব্রঙ্কসের বাংলাদেশী অধ্যুষিক পার্কচেস্টার/ক্যাসেল হীলের স্টারলিং এভিনিউ, ব্রুকলীন ও কুইন্সের জ্যাকসন হাইট থেকে মোচ দুটি বাস ছেড়ে যায় পিকনিক-স্পটে। এছাড়াও নিউইয়র্ক সিটি, নিউজাসি, ক্যানেকটিকাট ও দেলোয়ার’সহ আশপাশের আরো কয়েকটি রাজ্য থেকে এ বার্ষিক বনভোজনে ছুটে আসেন রায়পুরবাসী ও তাদের শুভানুধ্যায়ী’সহ পৃষ্ঠপোষকরা। যাদের অনেকেই ব্যাক্তিগত গাড়ি চেপে রায়পুর সোসাইটির তৃতীয় আয়োজন বার্ষিক বনভোজনে অংশ নেন। আকাশের উষ্ণতা নির্ভর তপ্ত রোদের ঝলকানিতেও নতুন মাত্রা পায় এ প্রীতিভোজ আর সমাবেশ।
সোসাইটির উদ্যোগে আমন্ত্রিত অতিথি ও শিশু-কিশোরদেও জন্য ছিল বিভিন্ন ধরণের খেলা এবং প্রতিযোগিতা। নানা বয়সী শিশু-কিশোর, নারী-পুরুষদের অংশগ্রহণে ছিল ‘দৌড় প্রতিযোগিতা, যেমন খুশি তেমন সাজো, মহিলাদের হাঁড়ি-ভাঙ্গা, পিলো পাসিং (বালিশ-খেলা), পুরুষদের ফুটবল’সহ নানা আয়োজন। এতে অংশগ্রহণকারি প্রত্যেককেই দেয়া হয় ভিন্ন ভিন্ন উপহার সামগ্রী। একই সাথে গ্রুপ পর্বের ‘পরাজিত এবং বিজয়ী’ ১ম স্থান থেকে শুরু করে তৃতীয়স্থান অর্জনকারিরাও পান নির্ধারিত সম্মাননা পুরস্কার।  এর মধ্যে যেমন খুশি তেমন সাজো পুরস্কার দেয়া হয়েছে রায়পুর সোসাইটির অন্যতম নেতা জামাল উদ্দিন ভূঁইয়ার সৌজন্যে।
রায়পুর সোসাইটির তৃতীয় বার্ষিক বনভোজনে ছিল আকর্ষনীয় ‘র‌্যাফেল ড্র’ অনুষ্ঠান। এতে সর্বমোট ১৫টি পুরস্কার দেয়া হয়। প্রথম পুরস্কার: ‘ঢাকা টু নিউইয়র্ক’ রিটার্ন বিমান টিকিট-সৌজন্যে-জাহিদ মিন্টু, বৃহত্তর নোয়াখালী সোসাইটি-ইউএসএ ইন্ক। দ্বিতীয় পুরস্কার: ৫৫ ইঞ্চি এলইডি টিভি-সৌজন্যে-আবদুল কাদির মিয়া ফাউন্ডেশন। তৃতীয় পুরস্কার: স্মার্ট ল্যাপটপ-সৌজন্যে-আবদুল মালেক ভূঁইয়া রিংকু, সহ-সভাপতি রায়পুর সোসাইটি ইউএসএন ইনক। চতুর্থ পুরস্কার: ল্যাপটপ-সৌজন্যে-শাহ নেওয়াজ, প্রেসিডেন্ট অব এনওয়াই ইন্স্যুরেন্স। পঞ্চম পুরস্কার: ৩২ ইঞ্চি স্মার্ট টিভি-সৌজন্যে-জয়নাল আবদীন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক-বাংলাদেশ সোসাইটি। ষষ্ঠ পুরস্কার: ফুড কুপন (বড় একহালি ইলিশ)-সৌজন্যে-ইত্যাদি বাজার, জ্যাকসন হাইটস। সপ্তম পুরস্কার: ডীফ ফ্রিজ-সৌজন্যে-খামার বাড়ী, জ্যাকসন হাইটস। অষ্টম পুরস্কার: এয়ার কন্ডিশনার-সৌজন্যে-আলমগীর হোসেন মোল্লা। নবম পুরস্কার : স্মার্ট মোবাইল ফোন-সৌজন্যে-ডিজিটাল ওয়ান ট্রাভেলস, জাকসন হাইটস। দশম পুরস্কার: স্মার্ট ট্যাব-সৌজন্যে-পার্কচেস্টার ব্রঙ্কস রিয়েলিটি। একাদশ পুরস্কার: ব্লেন্ডার মেশিন-সৌজন্যে-আবদুর রহীম বাদশা। দ্বাদশ পুরস্কার: ব্লেন্ডার মেশিন-সৌজন্যে-মান্নান ডিসকাউন্ট, জ্যাকসন হাইটস। ত্রয়োদশ পুরস্কার: ডিনার সেট-সৌজন্যে-রহমানিয়া ট্রাভেলস, জ্যাকসন হাইটস। চর্তুদশ পুরস্কার : ডিজিটাল সাউন্ড বার-সৌজন্যে-এটর্নী মাইকেল গাসি এবং রায়পুর সোসাইটির পক্ষে পঞ্চোদশ পুরস্কার ছিল হাউজ হোল্ড সামগ্রী। এছাড়া বনভোজনের অংশগ্রহণকারি প্রায় ৩ শতাধিক, নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর-কিশোরী সবাইকে শ্রেণীভেদে ভিন্ন ভিন্ন সান্তনা পুরস্কার দেয়া হয়।
পুরো আয়োজন সফল ও স্বার্থক করতে নিরলস কাজ করেছেন, রায়পুর সোসাইটির কার্যনির্বাহী পরিষদের সকল সদস্য’সহ বনভোজন কমিটির নেতারা। যাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন- রায়পুর সোসাইটির কার্যকরি কমিটির সভাপতি-এস.এম আমানত, সাধারণ সম্পাদক-বেলাল আহামেদ, সিনিয়র সহ সভাপতি-আক্তার হোসেন ভুঁইয়া, সহ সভাপতি-আব্দুল মালেক ভুঁইয়া (রিংকু), উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য সেলিম ভূঁইয়া, সোসাইটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক-দেলোয়ার হোসেন দেলু, অর্থ সম্পাদক ও বনভোজন কমিটির আহ্বায়ক-গিয়াস উদ্দিন রুবেল ভাট, সাংগঠনিক সম্পাদক-পীরজাদা মোরশেদুল হক, ক্রীড়া সম্পাদক-জামাল উদ্দিন ভুঁইয়া, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক-মোস্তফা কামাল, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মিজানুর রহমান কিশোর, আব্দুল লতিফ, মোহাম্মদ ইব্রাহীম, বুলবুল চৌধুরী, মেহেদী হোসেন ভুঁইয়া, রায়হান শরীফ তপু অন্যতম। এছাড়া স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে পুরো আয়োজনকে সফল ও স্বার্থক করে গড়ে তুলেছেন, তারিকুল ইসলাম অপু, কিংসুক এবং আলমগীর হোসেন মোল্লা’সহ অন্যরা।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন চন্দ্রা রায় ও বাপ্পি সোম।
পুরো আয়োজন শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় গ্লেন-আইল্যান্ড-পার্ক ত্যাগ করেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী রায়পুরের কৃতি সন্তান ও তাদের আমেরিকান প্রজন্মরা। ট্রান্সপোর্টেশনের দুটি বাসের ব্যয় ব্যাক্তিগত ভাবে বহন করেন-সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক-বেলাল আহামেদ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক-দেলোয়ার হোসেন দেলু।  এ ধরণের আয়োজন আগামীতেও অব্যাহত রাখার পাশাপাশি  রায়পুর-বাসীর প্রাণের এ সংগঠনকে এগিয়ে নিতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন সোসাইটির নেতারা।  -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।






একই ধরনের খবর

  • ‘এ-এইচ ১৬ ড্রিম ফাউন্ডেশন’র স্কুল সাপ্লাই বিতরণ
  • ভয়াল ৯/১১ এর ১৭ বছর মঙ্গলবার
  • ১৯টি পদে ৪০জন প্রার্থীর মনোনয়পত্র দাখিল : মুখোমুখি দুই প্যানেল : মনোনয়ন ফি বাবদ আয় ৯৪ হাজার ৫০০ ডলার : স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়নাল-সোহেল
  • ডা. সিদ্দিক সভাপতি ডা. ওসমানী সেক্রেটারী
  •  নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংবর্ধনা ২৩ সেপ্টেম্বর
  • বিশ্ব মানবতার শান্তি ও কল্যাণ কামনা : উত্তর আমেরিকায় পবিত্র ঈদুল আযহা পালিত
  • ১৯ পদের জন্য ৪৩ টি মনোনয়নপত্র বিক্রি ॥ দাখিল ২৬ আগষ্ট
  • নিউইয়র্কের ডাইভারসিটি প্লাজায় পাল্টা-পাল্টি শ্লোগান