সৌম্য কি আউট ছিলেন?

ঢাকা: ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যেতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। আজ আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির প্রস্তুতি ম্যাচেও আলোচনায় এলো বিতর্কিত আম্পায়ারিং। বাংলাদেশের ওপেনার সৌম্য সরকারকে যেভাবে সাজঘরে ফিরতে হলো, তা নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠতেই পারে। প্রস্তুতি ম্যাচ বলে কোনো রিভিউয়ের সুযোগ নেই। তা না হলে নিশ্চিতভাবেই রিভিউ নিতেন সৌম্য। আর সেটা নিতে পারলে হয়তো এখনো উইকেটেই দেখা যেত বাঁহাতি এই ওপেনারকে। মাত্র ২ রান করে সাজঘরে ফেরার হতাশায় ডুবতে হতো না।

বাংলাদেশের ইনিংসের চতুর্থ ওভারে অফ স্টাম্পের বাইরে পিচ করা বলটি সজোরে মারতে চেয়েছিলেন সৌম্য। কিন্তু ব্যাটে-বলে সংযোগ না হওয়ায় বল চলে যায় উইকেটরক্ষকের হাতে। কট বিহাইন্ডের জোরালো আবেদন করে ওঠেন ভারতের ফিল্ডাররা। আম্পায়ারও তুলে দেন আঙুল। কিন্তু সত্যিই বলটা ব্যাটে লেগেছিল কি না, তা নিয়ে সন্দেহ থেকে গেছে। সৌম্যও ঠিক মেনে নিতে পারছিলেন না আম্পায়ারের সিদ্ধান্তটা। প্রস্তুতি ম্যাচ বলে কোনো রিভিউর সুযোগ নেই। ফলে কিছুটা হতাশা নিয়েই সাজঘরে ফিরে যেতে হয়েছে সৌম্যকে।

শুরুতেই সৌম্যর বিদায়ের পর বাংলাদেশও দ্রুত হারিয়ে ফেলেছে চারটি উইকেট। প্রথম সাত ওভারের মধ্যে মাত্র ২১ রান জমা করতেই সাজঘরে ফিরেছেন সৌম্য, সাব্বির রহমান, ইমরুল কায়েস ও সাকিব আল হাসান। জয়ের জন্য বাংলাদেশকে পেরোতে হবে ৩২৫ রানের পাহাড়।






একই ধরনের খবর

  • কে চ্যাম্পিয়ন হতে পারে
  • বিশ্বকাপ ফুটবল-২০১৮ ॥ রাশিয়ায় ৮ গ্রুপে লড়ছে ৩২ দল : পায়ে পায়ে কথা বলছে ফুটবল
  • ‘আমি খুব রাগান্বিত এবং মর্মাহত’
  • বিশ্বকাপ ফুটবলে ভিএআর
  • ব্রাজিলকে রুখে দিল সুইজারল্যান্ড
  • মেক্সিকোতে ধরাশায়ী জার্মানী
  • ফ্রি-কিকের গোলে জিতল সার্বিয়া
  • জয় দিয়ে ক্রোয়েশিয়ার রাশিয়া বিশ্বকাপ শুরু
  • Shares